শালবনীতে টানা ৭ দিনের জন্য বাঙুরের বিশেষজ্ঞরা, মেদিনীপুর মেডিক্যালের চিকিৎসক দল এবার সর্বক্ষণের জন্য

A team of specialists of MR Bangur hospital will stay at salboni to give hand holding support to doctors and nurses there and they also discharge duty there from 26th September to 2nd October

.

মণিরাজ ঘোষ, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৫ সেপ্টেম্বর : পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার একমাত্র লেভেল ফোর করোনা হাসপাতাল শালবনী ‌সুপার স্পেশালিটি’তে চিকিৎসা পরিষেবায় সামান্য খামতি (বা, ত্রুটি) রাখতে চাইছে না, রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর। পূর্ণ উদ্যমে, সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে, জেলা প্রশাসন, জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে। সম্প্রতি, শালবনীতে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ডায়ালিসিস (Dialysis) ইউনিট শুরু হয়েছে এবং এখনো পর্যন্ত দু’টি সফল ডায়ালিসিসও সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন, হাসপাতাল সুপার (Superintendent) ডাঃ নবকুমার দাস। ভেন্টিলেশন ব্যবস্থা যুক্ত, অত্যাধুনিক এইচ ডি ইউ (HDU- High Dependency Unit) ইউনিটও শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য কর্তারা। এর মধ্যেই গত ১৯ সেপ্টেম্বর (শনিবার), শালবনী হাসপাতাল ঘুরে গিয়েছিলেন, এম আর বাঙুর হাসপাতালের সুপার (Superintendent) ডাঃ শিশির নস্করের নেতৃত্বাধীন রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রতিনিধিদল। তারপরই, গত ২২ শে সেপ্টেম্বর, শালবনী করোনা হাসপাতালে আরো উন্নত স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদানের বিষয়ে, প্রাথমিক পর্যায়ের প্রশিক্ষণ দিতে উপস্থিত হয়েছিলেন, আর জি কর মেডিক্যাল কলেজের দুই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। আর, ওই দিনই জেলা স্বাস্থ্য ভবন ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানা গিয়েছিল, শালবনীতে কয়েকদিনের মধ্যেই, এম আর বাঙুর হাসপাতালের একটি বিশেষজ্ঞদল বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য উপস্থিত হবেন। এই বিষয়ে, জেলাশাসক ডঃ রশ্মি কমল স্বয়ং জানিয়েছিলেন, “এম আর বাঙুর হাসপাতাল থেকে একটি বিশেষজ্ঞ টিম, শালবনী হাসপাতালে আসবেন এবং তাঁরা চিকিৎসা পরিষেবায় সরাসরি নিয়োজিত থেকে, প্রয়োগিক (Practically) বিষয়গুলি হাতে কলমে এখানকার চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী দের বুঝে নিতে সহায়তা করবেন।” মাত্র একদিনের মধ্যে সেই বিষয়ে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়, রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের পক্ষ থেকে। গতকালই (২৪ সেপ্টেম্বর), জেলা প্রশাসন তথা জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ’কে এই বিষয়ে নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে। আগামী ২৬ শে সেপ্টেম্বর থেকে ২ রা অক্টোবর পর্যন্ত বাঙুরের এই বিশেষজ্ঞদল টানা সাত দিন চিকিৎসা পরিষেবায় নিয়োজিত থেকে, সঠিক স্বাস্থ্য পরিষেবার বিষয়টি তুলে ধরবেন। শুধু তাই নয়, এবার থেকে, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসকদের একটি দল (পর্যায়ক্রমে) সর্বক্ষণ লেভেল ফোর শালবনী করোনা হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবার সরাসরি যুক্ত থাকবেন বলেও জানা গেছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে।

THEBENGALPOST.IN
ত্রুটিমুক্ত স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদানে বদ্ধপরিকর শালবনী‌ করোনা হাসপাতাল :

.

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নিমাই চন্দ্র মন্ডল জানিয়েছেন, “এম আর বাঙুর হাসপাতালের ১৪ জনের বিশেষজ্ঞ দল আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২ রা অক্টোবর পর্যন্ত শালবনী করোনা হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত থেকে প্রাক্টিক্যালি বিষয়গুলি এখানকার চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী’দের বুঝিয়ে দেবেন। শালবনী করোনা হাসপাতালের সুপার এবং চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা আন্তরিকভাবে চেষ্টা করছিলেন, তার সাথে এই বিষয়টি যুক্ত হলে, ভেন্টিলেশন, সিসিইউ সহ সমস্ত পরিষেবা সঠিকভাবে প্রদান করা আরো সহজ হবে। ইতিমধ্যে, বিশেষজ্ঞ দলের থাকার জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে।” জেলার করোনা চিকিৎসা পরিষেবার ক্ষেত্রে বিষয়টিকে অত্যন্ত ইতিবাচক এবং ফলপ্রসূ হবে তা স্বীকার করে নিয়ে, জেলার জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক কর্মাধ্যক্ষ শ্যামপদ পাত্র জানিয়েছেন, “অত্যন্ত খুশির খবর যে, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের একটি দল রাজ্য থেকে প্রেরিত হচ্ছে। এর ফলে ত্রুটিমুক্ত স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রদান করা সম্ভব হবে বলে আমাদের মনে হয়।” এদিকে, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের একটি চিকিৎসক দল এবার থেকে, প্রতি একমাস করে, পর্যায়ক্রমে শালবনী করোনা হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবায় সর্বক্ষণের জন্য নিয়োজিত থাকবেন বলেও, জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গেছে। মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডাঃ পঞ্চানন কুন্ডু ইতিমধ্যে এই বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন বলেও জানা গেছে। ডাঃ কুন্ডু জানিয়েছেন, “মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসকেরা প্রথম থেকেই শালবনী করানো হাসপাতালের স্বাস্থ্য পরিষেবায় নিয়োজিত থেকেছেন এবং সিসিইউ পরিচালনার জন্য দু’জন এম.ও ওখানে নিয়োজিত আছেন। এবার থেকে, পর্যায়ক্রমে একদল চিকিৎসক করোনা স্বাস্থ্য পরিষেবায় সর্বক্ষণের জন্য নিয়োজিত থাকবেন। এই দলে অ্যানাসথেসিস্ট, চেস্ট মেডিসিন, জেনারেল মেডিসিনের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা ছাড়াও, এস আর বা হাউস স্টাফেরা থাকবেন। এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।” রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর, জেলা প্রশাসন সহ জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর এবং মেডিক্যাল কলেজের এই সিদ্ধান্ত ও উদ্যোগ যে লেভেল ফোর শালবনী’র চিকিৎসা পরিষেবা’কে আরো উন্নত ও ত্রুটিমুক্ত করতে সহায়তা করবে, তা স্বীকার করে জেলার উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী জানিয়েছেন, “এম আর বাঙুর হাসপাতালের একটি বিশেষজ্ঞ দল ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে টানা সাতদিন, শালবনী করোনা হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবায় প্রত্যক্ষ ভাবে নিয়োজিত থাকবেন, এর ফলে প্রয়োগিক বিষয়গুলি সম্পর্কেও তাঁরা নিখুঁতভাবে প্রশিক্ষণ দিতে সক্ষম হবেন বলে মনে করা হচ্ছে। এই দলে, ৪ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, ৬ জন অভিজ্ঞ সিসিইউ নার্স, ১ জন নার্সিং সুপারিটেন্ডেন্ট প্রমুখরা থাকবেন। হ্যান্ড হোল্ডিং সাপোর্টের মাধ্যমে বা সরাসরি, আমাদের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী’রা বিষয়গুলি আরো সুন্দরভাবে রপ্ত করে নিতে সক্ষম হবেন বলে আমরা মনে করছি। এছাড়াও, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের ইতিবাচক সিদ্ধান্তকেও আমরা জেলা স্বাস্থ্য ভবনের পক্ষ থেকে স্বাগত জানাচ্ছি।”

thebengalpost.in
শালবনী করোনা হাসপাতালে ডাঃ শিশির নস্করের নেতৃত্বাধীন রাজ্যের প্রতিনিধিদল (ফাইল ছবি, ১৯ সেপ্টেম্বর) :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে