শুভেন্দু অধিকারীর বাড়িতে প্রশান্ত কিশোর, ঘাটালে ‘নেত্রী’ আর ‘আন্দোলন’ কে স্মরণ করেও ‘এগিয়ে যাওয়ার’ বার্তা মেদিনীপুরের ভূমিপুত্রের

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ১২ নভেম্বর: ঘাটালে ‘বিস্ফোরণ’ ঘটিয়ে বক্তৃতা শেষ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী, “দেখবি, জ্বলবি আর লুচির মত ফুলবি!” তার আগের লাইনেই অবশ্য বলেছেন, “আমরা এগবো, আর যারা পিছনে পড়ে থাকবে, তারা শুধু দেখবে আর জ্বলবে।” দুপুর তিনটায় এই বক্তৃতা শেষ হওয়ার পরই, সন্ধ্যা নাগাদ শুভেন্দু অধিকারীর কাঁথির বাড়িতে পৌঁছে গেলেন, তৃণমূলের ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর (পিকে)। তবে, সূত্রের খবর অনুযায়ী বাড়িতে ছিলেন না শুভেন্দু অধিকারী। ছিলেন, তাঁর পিতা, পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা সভাপতি শিশির অধিকারী। তাঁর সাথেই ঘন্টা দুয়েক বৈঠক করেন পিকে। তবে, শুভেন্দু’র সাথে ফোনে পিকের কথা হয়েছে বলে জানা গেছে। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, দলের সাথে দূরত্ব ঘোচানোর শেষ চেষ্টা করলেন পিকে! বাকিটা সময়ই বলবে।

thebengalpost.in
শুভেন্দু’র বাড়িতে পিকে :

.
.

এর আগে, আজ (১২ নভেম্বর) ঘাটালে তৃণমূল কংগ্রেসের অতীত আন্দোলনের ইতিহাস স্মরণ করে, “আমার দল” আর “আমার নেত্রী” রূপে সম্বোধিত করলেন, যথাক্রমে তৃণমূল কংগ্রেস ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে। তবে, বৃহস্পতিবার তাঁর বক্তব্যের অধিকাংশ অংশ জুড়ে ছিল, নিজেকে ‘বিপ্লব’ আর ‘আন্দোলন’ এর পীঠস্থান অবিভক্ত মেদিনীপুরের ‘ভূমিপুত্র’ রূপে তুলে ধরার ঐকান্তিক প্রচেষ্টা। আর, যেন “কলকাতার কোন নেতাকে” বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, স্বাধীনতা আন্দোলন হোক কিংবা রাজনৈতিক আন্দোলন, শেষ কথা বলেছে মেদিনীপুর, ভবিষ্যতেও শেষ কথা বলবে মেদিনীপুরই!

thebengalpost.in
ঘাটালে শুভেন্দু অধিকারী :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে