বড়সড় ভাঙন তৃণমূলে! শুভেন্দু’র হাত ধরে সিঙুরের মাস্টারমশাইয়ের পুত্র তুষার ভট্টাচার্য এবং অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ বিজেপিতে

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, হুগলি ও কলকাতা, ২১ জানুয়ারি: ফের বড়সড় ভাঙন তৃণমূলে! বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্যের পর এবার সিঙুরের বিধায়ক ‘মাস্টারমশাই’ রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের পুত্র তুষার ভট্টাচার্য যোগ দিতে চলেছেন বিজেপি’তে। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে আজ তুষার নিজে জানিয়েছেন, “শুভেন্দুদা যে দিন সিঙ্গুরে সভা করতে আসবেন সে দিনই আমি বিজেপি-তে যোগ দেব।” শুধু নিজে যাওয়া নয়, বাবা রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকেও তিনি বিজেপি’তে যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করবেন বলে জানিয়েছেন। তবে সিঙ্গুরে ‘মাস্টারমশাই’ হিসেবে পরিচিত রবীন্দ্রনাথ এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, “ছেলে যেতেই পারে। তার জন্য বাবাকেও যেতে হবে, এমন কোনও কারণ নেই।” প্রসঙ্গত, ২০০১ সাল থেকে সিঙ্গুরের বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। সিঙ্গুর আন্দোলনের অন্যতম মুখও ছিলেন তিনি। ২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ক্ষমতায় আসার পর প্রথমে তাঁকে বিদ্যালয় শিক্ষামন্ত্রী ও পরে কৃষিমন্ত্রী করা হয়। তবে ইদানীং সময়ে, দলের সঙ্গে অনেকটাই ‘দূরত্ব’ তৈরি হয়েছে তাঁর। দ্বিতীয় দফার তৃণমূল সরকারে তিনি আর মন্ত্রিত্ব পাননি! সম্প্রতি, হরিপালের বিধায়ক বেচারাম মান্নার সঙ্গে তাঁর মতবিরোধ প্রকাশ্যে আসে। দ্বন্দ্ব মেটাতে হস্তক্ষেপ করতে হয় খোদ দলনেত্রী’কে। তার পর থেকেই রবীন্দ্রনাথের বিজেপি’তে যোগ দিতে পারেন বলে জল্পনা তৈরি হয়। যদিও তিনি সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু, তাঁর ছেলে জানিয়েছেন, “বাবাকে অনেক অপমান সহ্য করতে হয়েছে। আর বাকি কি আছে! হয়তো টিকিট দেবেনা। আমরাও বলেছি, বাবার বয়স ৯০ হয়ে গেছে। বিজেপিতে আসতে না চাইলে, প্রয়োজনে রাজনীতি থেকে অবসর নেবেন। আমার নরেন্দ্র মোদী কে ভালো লাগে। তাঁর দ্বারাই দেশ ও রাজ্যের প্রকৃত উন্নয়ন সম্ভব।” তুষার’কে বিজেপিতে স্বাগত জানিয়েছেন হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ও।

thebengalpost.in
রবীন্দ্রনাথ পুত্র তুষার ভট্টাচার্য বিজেপিতে :

বিজ্ঞাপন

[ আরও পড়ুন -   ভক্তদের প্রার্থনা শুনলেন ভগবান! করোনা মুক্ত হলেন শুভেন্দু অধিকারী ]

এদিকে, বিজেপি’তে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়েছেন তৃণমূল ঘনিষ্ঠ অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ। গতকাল তিনি একটি অনুষ্ঠানে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দেখা করেন। আজ তিনি জানিয়েছেন, “শুভেন্দু অধিকারী’র সঙ্গে কাজ করা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গতকালের অনুষ্ঠানে রুদ্রনীল ঘোষ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, বৈশালী ডালমিয়া, রথীন চক্রবর্তী প্রমুখ। তবে, শুভেন্দু’র সঙ্গে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় ও রথীন চক্রবর্তী’র সাক্ষাৎ হয়নি বলেই জানা গেছে। যদিও, রাজনৈতিক মহলে তীব্র জল্পনা, অমিত শাহের পরবর্তী রাজ্য সফরেই বিজেপি’তে যোগদান করতে চলেছেন রাজীব, বৈশালী, লক্ষ্মীরতন সহ একগুচ্ছ হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা-মন্ত্রী-বিধায়ক।

thebengalpost.in
রুদ্রনীল ঘোষ :

[ আরও পড়ুন -   "আমাকে আমার লক্ষ্য, আমার কর্ম পদ্ধতি, আমার দায়বদ্ধতা থেকে কেউ সরিয়ে দিতে পারে নি, ভবিষ্যতেও পারবে না", নেতাই গ্রামে 'সেবক' শুভেন্দু বললেন ]