নতুন সদস্যদের ‘আপন’ করে নিল জেলা বিজেপি, মেদিনীপুর কলেজিয়েট স্কুলের ফলাফলে উচ্ছ্বসিত নেতৃত্ব

thebengalpost.in
তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা মেদিনীপুর শহরের নেতাদের সংবর্ধনা জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে :
বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ২৩ ডিসেম্বর: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের শনিবারের (১৯ ডিসেম্বর) জনসভায়, ‘দাদা’ শুভেন্দু অধিকারী’র ‘পথ’ অনুসরণ করে, যাঁরা ঘাসফুল ছেড়ে পদ্মফুল হাতে তুলে নিয়েছিলেন (মেদিনীপুরের কলেজ কলেজিয়েট ময়দানের মঞ্চ থেকে), তাঁদের মধ্যে অন্যতম, মেদিনীপুর শহরের তিন সুপরিচিত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব- প্রণব বসু, রমাপ্রসাদ গিরি এবং স্নেহাশিস ভৌমিক। মেদিনীপুর পৌরসভার প্রাক্তন পৌরপ্রধান প্রণব বসু এবং তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন জেলা সাধারণ সম্পাদক স্নেহাশিস ভৌমিক দলের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন ইতিমধ্যে। কিন্তু, জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি, অমূল্য মাইতি, অধ্যক্ষ তপন দত্ত, উপাধ্যক্ষ কাবেরী চ্যাটার্জি প্রমুখরা নিজেদের পদ থেকে এখনও ইস্তফা না দেওয়ায়, ক্ষুব্ধ জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। তবে, আইনের মারপ্যাঁচে কিছু করে উঠতেও পারছেনা দল। কারণ, পঞ্চায়েত আইন অনুযায়ী, নির্বাচিত হওয়ার আড়াই বছরের আগে ‘আনাস্থা’ আনা যায়না বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা জানিয়েছেন। সেই নিয়মেই, আপাতত দলীয় নেতৃত্ব বিষোদগার করলেও, তাঁদের কর্মাধ্যক্ষ পদ কেড়ে নিতে পারছেনা। দুই কর্মাধ্যক্ষ তাঁদের ঘনিষ্ঠ মহলে জানিয়েছেন, “আমরা এখন বিজেপি দলের সদস্য। তাই দলীয় নেতৃত্বের সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।” অপরদিকে, অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ জানিয়েছেন, “আমরা বিরোধী দলের সদস্য হিসেবে নিজেদের পদে থাকতে পারি।” গড়বেতা ৩ নং ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি আকাশদীপ সিনহা কে নিয়েও একই সমস্যায় পড়েছে শাসকদল তৃণমূল! এদিকে, এই ধরনের রাজনৈতিক তরজার মধ্যেই, মেদিনীপুর পৌরসভার প্রাক্তন পৌরপ্রধান প্রণব বসু, কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি এবং শাসকদলের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক স্নেহাশিস ভৌমিক সহ তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা মেদিনীপুর শহরের অসংখ্য কর্মী-সমর্থককে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। বিজেপির মেদিনীপুর শহরের জেলা পার্টি অফিসে এই সংবর্ধনা দিয়ে তাঁদের ‘আপন’ করে নেওয়া হয়। জেলা সভাপতি শমিত দাস ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। উভয়পক্ষই জানান, স্বাভাবিকভাবেই কয়েকটা দিন সময় লাগবে পারস্পরিক সমন্বয়ের ক্ষেত্রে। তারপর সব ঠিক হয়ে যাবে।

thebengalpost.in
তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা মেদিনীপুর শহরের নেতাদের সংবর্ধনা জেলা বিজেপির পক্ষ থেকে :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে, সোমবার (২১ ডিসেম্বর), সু্প্রাচীণ ও ঐতিহ্য মণ্ডিত মেদিনীপুর কলেজিয়েট স্কুলের পরিচালন সমিতিতে শিক্ষক প্রতিনিধি বা টিচার্স রিপ্রেজেন্টেটিভ নির্বাচনে ৩ টি আসনের ৩ টিতেই বিজেপি সমর্থিত প্রার্থীদের জয়লাভ, পৌরভোট ও বিধানসভা ভোটের আগে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, মেদিনীপুর কলেজিয়েট বয়েজ স্কুলের টিচার্স রিপ্রেজেন্টেটিভ নির্বাচনে, বিজেপি শিক্ষক সেলের পক্ষ থেকে সত্যেন্দ্রনাথ কাপড়ি ৪৩ টি ভোটের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৪ টি ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। ২২ টি ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন বিজেপি সমর্থিত বাম প্রার্থী শান্তি কুমার সরকার মহাশয় এবং ১৮ টি করে ভোট পান বিজেপির মদন মোহন সামন্ত এবং তৃণমূলের পঙ্কজ সন্নিগ্রাহি। অবশেষে, টসে জয়লাভ করেন বিজেপির মদন মোহন সামন্ত‌। বিজেপির শিক্ষক সেল ছাড়াও, জেলা বিজেপি নেতৃত্ব এই ফলাফলে উচ্ছ্বসিত হয়ে উঠেছেন। জেলা বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য অনুযায়ী, মেদিনীপুর শহরের ঐতিহ্যবাহী এই বিদ্যালয়ের নির্বাচনী ফলাফল এক সুগভীর তাৎপর্যপূর্ণ। তাঁদের মতে, শিক্ষিত সম্প্রদায় যে রাজ্যের শাসকদলকে ছুঁড়ে ফেলতে উদগ্রীব, এই ফলাফল সেটাই প্রমাণ করছে।

thebengalpost.in
মেদিনীপুর কলেজিয়েট স্কুল (বয়েজ) :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে