খড়্গপুর আইআইটি’র অধ্যাপক যেন ‘কল্পতরু’ হয়ে এলেন জঙ্গলমহলের অপু-দুর্গাদের কাছে

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম, ৪ অক্টোবর:কোভিড নাইন্টিনের প্রভাবে, বিশ্বজোড়া মহামারী’র সংকটকালে আবারও দুঃস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এলো সমাজ মাধ্যম গ্রুপ “আমারকার ভাষা, আমারকার গর্ব”। করোনা আবহে, আসন্ন শারদোৎসবকে সামনে রেখে আর্থিক দিক পিছিয়ে থাকা কিছু শিশুর মুখে হাসি ফোটাতে খড়্গপুর আই আই টির অধ্যাপক ড.ভানুভূষণ খাটুয়ার সহযোগিতায় এবং সুবর্ণরৈখিক ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চা বিষয়ক ফেসবুক গ্রুপ “আমারকার ভাষা,আমারকার গর্ব”-এর ব্যবস্থাপনায় শনিবার বিকেলে ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর ২ নং ব্লকের হাতিডাঙ্গা গ্রামে আয়োজিত এক কর্মসূচিতে স্থানীয় ২০ জন শিশু ও বয়স্ক মানুষের হাতে নতুন পোশাক তুলে দেওয়া হয়।

thebengalpost.in
জঙ্গলমহলবাসীর হাতে পুজোর উপহার :

.

এদিনের এই কর্মসূচিতে অধ্যাপক ড.খাটুয়া ছাড়াও গ্রুপের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন বিশ্বজিৎ পাল,স্বরূপ কামিল্যা, তরুণ নন্দ, পঙ্কজ সুর, কিশোর রক্ষিত, অতনু সিনহা, প্রাণকৃষ্ণ সিনহা, গুনধর বধূক, প্রদীপ জানা, সৌমেন পাল, চিন্ময় সেনাপতি, দীপকুমার সেনাপতি, সুমন জানা, রথিকান্ত মাইতি , কৌশিক রক্ষিত সহ প্রমুখরা। মেদিনীপুর থেকে গ্রুপের পক্ষে শিক্ষক সুদীপ কুমার খাঁড়া জানান যে, “বিগত দিনেও তাঁরা তাঁদের গ্রুপের সদস্য-সদস্যা ও শুভানুধ্যায়ীদের সহযোগিতায়, সমাজসেবা ও পরিবেশ সচেতনতা বিষয়ক নানা কাজ করেছেন এবং আগামীদিনেও করতে চান।” জঙ্গলমহলের এই অপু-দুর্গা দের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য অধ্যাপক ভানুভূষণ খাটুয়াকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন গ্রুপের সদস্যরা।

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে