বছর শেষেও সংক্রমণে শীর্ষস্থান দখলে রাখল মেদিনীপুর ও খড়্গপুর পৌরসভা, শেষ সাতদিনে জেলায় ১২৫ জন আক্রান্ত

thebengalpost.in
মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের HDU SARI UNIT :
বিজ্ঞাপন

মণিরাজ ঘোষ, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৯ ডিসেম্বর: বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কোভিড নাইনটিনের নতুন স্ট্রেইনের হদিশ মিললেও, এখনও পর্যন্ত আমাদের দেশ আশঙ্কা মুক্ত! যদিও, UK ফেরত ৬ জন করোনা সংক্রমিতের নমুনা পাঠানো হয়েছে, পুনে, ব্যাঙ্গালোর সহ দেশের উন্নত তিনটি ল্যাবরেটরিতে। তবে, নতুন বছরের শুরুতেই ভ্যাকসিন আসার প্রাক-মুহূর্তে দেশবাসীকে সতর্ক করে, ৩১ শে জানুয়ারি পর্যন্ত নজরদারি বিষয়ক নির্দেশিকা জারি রাখা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। দৈনিক গড় সংক্রমণ এই মুহূর্তে ১২০০-১৩০০। প্রায় সাড়ে পাঁচ লক্ষ করোনা আক্রান্তের মধ্যে, ৯৬ শতাংশ হারে ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠছেন ৫ লক্ষ ২৭ হাজার জন। সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র ১২,৭৮৮। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে, ৯৬৫৫ জনের। করোনা সংক্রমণ স্তিমিত হয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুরেও। সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র ১৫৯ জন (জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের ২৭ ডিসেম্বরের রিপোর্ট অনুযায়ী)। এর মধ্যে, করোনা হাসপাতালে ভর্তি আছেন মাত্র ২০ জন। শালবনীতে ৭ জন, ঘাটালে ৩ জন এবং মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের HDU তে ১০ জন। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, শেষ সাতদিনে (২২ থেকে ২৮ ডিসেম্বর) জেলায় করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা মাত্র ১২৫ (২৫, ২৬, ২২, ১৪, ১৩, ৭ ও ১৮)।

thebengalpost.in
মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের HDU SARI UNIT :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার করোনা পরিসংখ্যান পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায়, সংক্রমণের প্রাথমিক পর্বে দাসপুর (১ ও ২) ও ঘাটাল থানা এগিয়ে থাকলেও মাত্র ৪-৫ সপ্তাহের মধ্যেই পাল্লা দিয়ে এগিয়ে গেছে খড়্গপুর ও মেদিনীপুর পৌরসভা। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা- ১৬,৯৫৯ (সুস্থ- ১৬৫৪৪)। এর মধ্যে, মেদিনীপুর পৌরসভা ও খড়্গপুর পৌরসভা ‘সদর্পে’ (!) শীর্ষস্থান দখল করে রেখেছে। দুই পৌরসভায় এখনও পর্যন্ত মোট সংক্রমিতের সংখ্যা যথাক্রমে- ৩৩১৬ (মেদিনীপুর) ও ১৭৫৩ (খড়্গপুর)। জেলায় মোট মৃত্যু সংখ্যা- ২৫৬। এক্ষেত্রেও শীর্ষ স্থানে মেদিনীপুর পৌরসভা (৪১)। যুগ্ম দ্বিতীয় স্থানে, খড়্গপুর ও ঘাটাল (২৬)। ২০২০’র শেষ সপ্তাহেও (মোট ১২৫ জনের মধ্যে) করোনা-সংক্রমণের শীর্ষ স্থানটি দখলে রাখল, যথাক্রমে- মেদিনীপুর ও খড়্গপুর পৌরসভা। শেষ ৭ দিনে সংক্রমিত যথাক্রমে- ৩৫ জন ও ১৬ জন। মহকুমা হিসেবেও শীর্ষস্থানে আছে, মেদিনীপুর সদর। এরপর, খড়্গপুর এবং তারপর ঘাটাল মহকুমা। তবে, এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, যে এলাকায় করোনা টেস্টের সুবিধা যত বেশি, সেখানে সংক্রমণের আধিক্যও তত বেশি! এদিকে, জেলার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আশার কথা শুনিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরও। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক (১) ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী জানিয়েছেন, “পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে। প্রতি সপ্তাহেই কমছে সংক্রমণের হার। গড় সংক্রমণের হার (টেস্টের সংখ্যা ও পজিটিভ সংখ্যা) যেখানে ৮ শতাংশের কিছু বেশি, সেখানে চলতি সপ্তাহে সংক্রমণের হার নেমে এসেছে আড়াই শতাংশে! তা সত্ত্বেও আরো কিছুদিন সতর্ক থাকা জরুরি। ভ্যাকসিন আসার আগে পর্যন্ত। যদিও, আমাদের দেশে এখনও পর্যন্ত নতুন স্ট্রেইনের সন্ধান মেলেনি। তবে, মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন। ভিড়ভাট্টা একটু এড়িয়ে চলুন।”

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে