আর্থিক প্রতারণা মামলায় ঐতিহাসিক রায়, সাক্ষী মেদিনীপুর! রাজ্যে প্রথম কোন চিটফান্ড কোম্পানীর বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পূর্ব মেদিনীপুর, ৪ অক্টোবর: রাজ্যে এই প্রথম বেআইনি বা ভুয়ো অর্থলগ্নি সংস্থার বিরুদ্ধে রায় দান করা হল। গতকাল (শনিবার, ৩ অক্টোবর), পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুক জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারপতি মৌ চট্টোপাধ্যায় বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা ‘পিনকন’ এর ৮ জন ডিরেক্টর (বা, সংস্থা’র প্রধান কর্মকর্তা) এর বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন সাজা ঘোষণা করেন এবং লগ্নিকারীদের আমানত ফেরত দেওয়ারও নির্দেশ দেন। সংস্থার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি করে আমানতকারীদের দ্রুত টাকা ফেরানোর জন্য ‘ডিরেক্টর অফ ইকনোমিকস অফেন্স’কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

thebengalpost.in
৩ বছর ধরে চলা ‘পিনকন’ মামলার রায় ঘোষণা‌ :

.

২০১৩ সালে আর্থিক প্রতারণা মামলায় নতুন আইন এনেছিল রাজ্য সরকার। সেই আইনে রাজ্যে প্রথম, ঐতিহাসিক রায় ঘোষণা করা হল অবিভক্ত মেদিনীপুরের (পূর্ব মেদিনীপুরের) জেলা ও দায়রা আদালতে। পিনকন-প্রতারণা মামলায় সংস্থার কর্ণধার মনোরঞ্জন রায় সহ ৮ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে, যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা দেওয়া হয়েছে। ১০ জনকে বেকসুর খালাস করা হয়েছে। ২ জন অভিযুক্ত মামলা চলাকালীন মারা গেছেন। মনোরঞ্জন রায় ও তাঁর স্ত্রী মৌসুমী রায় ছাড়াও, সাজাপ্রাপ্ত অন্যান্য ৬ জন হলেন- অরূপ ঠাকুর, দীপঙ্কর বসু, রাজকুমার রায়, রঘু জায়া শেট্টি, হরি সিং, বিনয় সিং। ৩ বছর ধরে চলা (২০১৭ থেকে) মামলার রায়দান শেষে পাবলিক প্রসিকিউটর বলেন, “ইলেকট্রনিক্স বা ভার্চুয়াল মাধ্যমের সাহায্যে ঐতিহাসিক রায় ঘোষিত হল। শুধু রাজ্য নয়, সারা ভারতবর্ষের ক্ষেত্রে এ এক ঐতিহাসিক রায়!” অপরদিকে সাজাপ্রাপ্তদের আইনজীবী বলেন, “আমরা উচ্চ আদালতে যাব।” প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিশ্বস্ত সূত্রের খবর অনুযায়ী, গত ৩ বছর ধরে চলা, “সারদা মামলা”র তদন্তও প্রায় শেষের পথে বলে জানা গেছে।

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে