অবিভক্ত মেদিনীপুরের শিক্ষাজগতে ইন্দ্রপতন! ‘খালিপদ বাবু’ রূপে খ্যাত জাতীয় শিক্ষক নির্মল চন্দ্র মাইতি’র প্রয়াণে শোকস্তব্ধ শিক্ষানুরাগীরা

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট বিশেষ প্রতিবেদন, মণিরাজ ঘোষ, ২৯ সেপ্টেম্বর: একেই বোধহয় বলে ‘খালি পায়ে’ বাঙালির (তথা মেদিনীপুর বাসীর) ভারত জয়! তিনি, খালিপদ বাবু তাঁর সু-নির্মল ও সু-মহান ব্যক্তিত্ব দিয়ে শিক্ষা জগত’কে জয় করেছিলেন। জাতীয় শিক্ষক তথা রাষ্ট্রপতি পুরস্কার প্রাপ্ত শিক্ষক রূপে অবিভক্ত মেদিনীপুরের শিক্ষাঙ্গনে তিনি বরণীয় ও চিরস্মরণীয়! সেই, শিক্ষক, শিক্ষাবিদ, শিক্ষক নেতা তথা শ্যামসুন্দরপুর পাটনা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাণপুরুষ নির্মল চন্দ্র মাইতি ৮৬ বছর বয়সে অমৃতলোকে পাড়ি দিলেন আজ। শোকস্তব্ধ অবিভক্ত মেদিনীপুরের সমগ্র শিক্ষাজগত তথা অসংখ্য শিক্ষানুরাগীরা!

thebengalpost.in
‘খালিপদ বাবু’ তথা জাতীয় শিক্ষক নির্মল চন্দ্র মাইতি :

.

মঙ্গলবার সন্ধ্যা নাগাদ তাঁর মৃত্যুর খবর আসে। “শিক্ষারত্ন” নির্মল চন্দ্র মাইতি’র অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এক শিক্ষক জানিয়েছেন, সুগার ও বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। আজ তাঁর হৃদযন্ত্র বিকল হয়! প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, তাঁর কর-স্পর্শে প্রাণ পেয়েছিল, বর্তমান পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়া ১ নং ব্লকে অবস্থিত শ্যামসুন্দরপুর পাটনা উচ্চ বিদ্যালয়। দক্ষিণপন্থী শিক্ষক আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃত নির্মল চন্দ্র মাইতি ‘অজাতশত্রু’ ছিলেন। সুমহান হৃদয়ের এই ব্যক্তিত্ব, শুধু শিক্ষা জগতকেই নয়, আলোকিত করে গেছেন একটি বৃহত্তর সমাজকেও। তাই, তাঁর প্রয়াণে শোকস্তব্ধ, তাঁর সুযোগ্য ও সুপ্রতিষ্ঠিত অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী থেকে শুরু করে, অবিভক্ত মেদিনীপুরের প্রায় সকল শিক্ষানুরাগীরা।

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে