বিধানসভার আগেই মাস্টার স্ট্রোক মমতা’র! প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি, বি.এড পাসরাও যোগ্য

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, কলকাতা, ২৩ নভেম্বর: বিধানসভা নির্বাচনের আগেই ফের মাস্টার স্ট্রোক দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যবাসীর ঘরে ঘরে উন্নয়নমূলক প্রকল্প পৌঁছে দেওয়ার ঘোষণা করেছিলেন বিকেলেই। এবার, সরকারের বিরুদ্ধে সবথেকে বিক্ষুব্ধ ছিলেন যারা, সেই শিক্ষিত বেকার চাকুরী প্রার্থীদের জন্য দিলেন সবথেকে বড় চমক! করোনা পরিস্থিতির আগে গত এক বছর ধরে এবং আনলক পর্ব শুরু হওয়ার পর থেকেই গত কয়েক মাস ধরে, রাস্তায় নেমে যারা সরকারের বিরুদ্ধে সব থেকে বেশি আন্দোলন করছিলেন, তাঁরা রাজ্যের শিক্ষক পদপ্রার্থী বিএড ও ডিএলএড‌ পাস চাকরি প্রার্থীর দল। ২০১৪ তে প্রাইমারি টেট (Primary Tet) পাস করা প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত’রা (মূলত ডিএলএড ট্রেনিং প্রাপ্তরা) রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বারবার আবেদন করছিলেন, তাঁদের সরাসরি নিয়োগপত্র দেওয়া হোক। অপরদিকে, বিএড প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত’রা আবেদন করছিলেন, এনসিটিই (NCTE- National Council for Teacher Education)’র নিয়ম মেনে, অন্যান্য রাজ্যের মতো এ রাজ্যেও বিএড পাস করা প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের এসএসসি’র সাথে সাথে প্রাইমারির জন্যও এলিজেবল (Eligible) বা যোগ্য রূপে বিবেচিত করা হোক। আজ (২৩ নভেম্বর) বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (WBBPE- West Bengal Board of Primary Education) জানিয়ে দিল, আগামী ২৫ শে নভেম্বর থেকে ২০১৪ টেট পাস বিএড ও ডিএলএড’রা নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়ায় সরাসরি আবেদন করতে পারবেন অনলাইনে। ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন বা নথিপত্র যাচাই বা স্ক্রুটিনীর এই কাজ চলবে ১ লা ডিসেম্বর পর্যন্ত।

thebengalpost.in
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজকের এই বিজ্ঞপ্তির পরই, ২০১৪ প্রাইমারি টেট পাস এবং প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের মধ্যে স্বভাবতই উচ্ছ্বাসের আবহ তৈরি হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই তাঁরা আন্দোলন করছিলেন, তাঁদের নিয়োগের বিষয়ে। সম্প্রতি, রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর একটি অডিও বার্তা ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার কারণে, অনেকে মুষড়েও পড়েছিলেন। তবে, এই বিজ্ঞপ্তির ফলে সমালোচকদের মুখের উপর যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বড়সড় জবাব দিতে পারলেন, তা বলাই বাহুল্য! অনেকেই এখন মনে করছেন, সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী যে ১৬,৫০০ শিক্ষক নিয়োগের কথা বলেছিলেন, টেট পাস দের মধ্য থেকে, এই বিজ্ঞপ্তি প্রমাণ করছে যে, ওই ১৬,৫০০ শিক্ষক নিয়োগ হবে প্রাইমারিতেই; তাও আবার ফেব্রুয়ারি-মার্চের মধ্যেই। উল্লেখ্য যে, ২০১৪ টেট পাস এবং ডি এল এড ট্রেনিং প্রাপ্ত প্রায় ৪০,০০০ শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে ইতিমধ্যে। ২০১৭ সালে সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু, তারপরও রাজ্যের প্রায় ৮০,০০০ (মোট টেট পাস করেছিলেন ১ লক্ষ ২০,০০০ পরীক্ষার্থী) পরীক্ষার্থী ছিলেন। এর মধ্যে, অনেকেরই সেই সময় ট্রেনিং ছিল না। তবে, গত ৩-৪ বছরে তাঁদের বেশিরভাগেরই ট্রেনিং সম্পন্ন হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। এই বিজ্ঞপ্তিতে রাজ্য সরকার তথা প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ২০২০ সালে পাস করা (২০১৮-২০২০ ব্যাচ) প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদেরও আবেদন করার সুযোগ দিচ্ছে। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য যে, আজকেই প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ২০১৮-‘২০ ব্যাচের ডি এল এড পরীক্ষার্থীদের ফলাফল ঘোষণা করার বিজ্ঞপ্তিও জারি করেছে।

thebengalpost.in
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে