মুখ্যমন্ত্রী’র মেদিনীপুর সফরের আগেই গর্জে উঠল ডেবরা! সেতু না পেলে ভোট বয়কটের ডাক চারটি অঞ্চলের কয়েকহাজার গ্রামবাসীর

thebengalpost.in
ভোট বয়কটের ডাক দিল ডেবরাবাসী :
বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ৫ ডিসেম্বর: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা ব্লকের ট্যাবাগেড়িয়া ফেরিগাটে সেতুর দাবি যেন এক প্রবহমান ইতিহাস। স্বাধীনতা পরবর্তী ১৯৭২ সাল থেকে ডেবরার মূল জনস্রোত থেকে বিচ্ছিন্ন ১ নং, ২ নং, ৭ নং এবং ৮ নং এই চারটি অঞ্চল। এই চারটি অঞ্চলের বাসিন্দারা ছাড়াও, সারা ডেবরা ব্লকের সাধারণ মানুষ বারবার সেতুর দাবিতে গর্জে উঠেছেন। শুরু হয়েছে আন্দোলন। তৎকালীন ডেবরা বিধানসভার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ বেরা ট্যাবাগেড়িয়া সেতুর জন্য রাজ্য সরকারের আর্থিক অনুমোদন পেলেও, শেষ পর্যন্ত সেতু হয়নি! গ্রামবাসীরা বলছেন, “এর পর দীর্ঘ দশকের পর দশক গড়িয়েছে, নদী দিয়ে গড়িয়েছে অনেক জল, কিন্তু সেতু হয়নি।”

thebengalpost.in
ভোট বয়কটের ডাক দিল ডেবরাবাসী :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিভিন্ন সময়ে, বিভিন্ন ভাবে সেতু নির্মাণের দাবি সরকারের কাছে পোঁছে দিয়েছে জনগন, তবে সাফল্য আসেনি! অবশেষে ২০১৮ সালে ৫ আগস্ট ১নং ভবানীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দা সমাজসেবী গৌতম মাজী ৪ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের অবহেলিত সাধারণ মানুষকে সঙ্গে নিয়ে, একটি অরাজনৈতিক মঞ্চ তৈরি করেন। নাম দেন, ‘দ্বীপান্তর মুক্তি সংগ্রামী মঞ্চ’। স্থায়ী সেতু নির্মাণের জন্য আন্দোলন সংগঠিত করেন। এই মঞ্চের অন্যান্য উদ্যোক্তারা হলেন- সঞ্জয় গোস্বামী, সুজিত পারিয়াল, অরবিন্দ সাউট্যা, কেশব চক্রবর্তী, পুলকেশ কুইঁতি। তাঁদের নেতৃত্বে হাজার হাজার বঞ্চিত দ্বীপান্তর বাসী কখনও ডেবরা বিডিও অফিসে, কখনও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদ, কখনও জেলাশাসকের দপ্তরে দরবার করেছেন। এমনকি ডেবরাতে সারাদিন ব্যাপী জাতীয় সড়ক অবরোধ করেও দাবি আদায়ে ব্যার্থ হয়েছে। আজ (৫ ডিসেম্বর) ডেবরা চৌরাস্তার মোড়ে প্রায় ৫ হাজার মানুষ সমবেত হয়ে, মুখ্যমন্ত্রীর মেদিনীপুরের ঐতিহাসিক সভার আগে ফের নিজেদের দাবি তুলে ধরেন। এবার আর, সাধারণ দাবি বা আন্দোলন নয়, একেবারে ভোট বয়কটের ডাক। বিধানসভার আগে, মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী জনসভার প্রাক মুহূর্তকেই ভোট বয়কটের উপযুক্ত সময় হিসেবে বেছে নিয়েছেন ডেবরাবাসী।

thebengalpost.in
ভোট বয়কটের দাবিতে গর্জে উঠল ডেবরাবাসী :

বিজ্ঞাপন

‘দ্বীপান্তর মুক্তি সংগ্রামী মঞ্চ’ এর সম্পাদক গৌতম মাজী বলেন, “আমরা স্বাধীনতার পর কমবেশি ৪২ টি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি। প্রতিটি নির্বাচনের আগে, সব নেতারাই প্রতিশ্রুতি দেন, ক্ষমতায় এলে সেতু নির্মাণ করে দেবেন। নির্বাচন পেরিয়ে যায়, এই দ্বীপান্তর বাসীর সেতু আর হয় না। আজকে কয়েক হাজার দ্বীপান্তর বাসী জোটবদ্ধ , পারাপারের নামে আর টাকা লুঠ করতে দেবনা ডেবরা পঞ্চায়েত সমিতিকে। একটাই কথা ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে সেতুর কাজ না হলে, ডেবরা বিধানসভার মানুষ আর কোনো ভোটে অংশগ্রহণ করবে না। মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের আগে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে আমাদের এটাই বার্তা।”

বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে