ফের সংক্রমণের বাঁধ ভাঙলো পশ্চিম মেদিনীপুরে! আক্রান্ত ৫৭৭; শহর মেদিনীপুর ছাড়াও শালবনী, গড়বেতা ও বেলদায় ভয়াবহ গোষ্ঠী সংক্রমণ গত চব্বিশ ঘণ্টায়

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৭ মে: মাঝখানে মাত্র ১ দিন স্বস্তি দিয়ে ফের বাঁধভাঙা করোনা সংক্রমণের ধারা অব্যাহত রাখল পশ্চিম মেদিনীপুর। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের রবিবারের রিপোর্ট অনুযায়ী, জেলায় করোনা সংক্রমিত হয়েছিলেন ৩৯০ জন। মাঝখানে সোমবার কোনও রিপোর্ট পাওয়া যায়নি স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে। মঙ্গলবার ফের ৫৭৭ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে! আর, এর ফলে গত ৭ দিনে (মাঝখানে সোমবার বাদ দিয়ে) জেলায় মোট করোনা সংক্রমিত হলেন- ৩৫৭১ (৫১৬, ৫৬১, ৫২০, ৫০২, ৫০৫, ৩৯০ ও ৫৭৭) জন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় যে ৫৭৭ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে, তার মধ্যে আরটি-পিসিআর অনুযায়ী ৩২৪ জন, র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন অনুযায়ী ২১৫ জন এবং ট্রুন্যাট অনুযায়ী ৩৮ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় জেলার করোনা হাসপাতাল গুলিতে মাত্র ৩ জনের (শালবনী ১, মেদিনীপুর মেডিক্যাল ১ এবং ঘাটাল ১) মৃত্যু হয়েছে। গত চব্বিশ ঘণ্টায় করোনা হাসপাতালগুলি থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৪৫ জন এবং হোম আইসোলেশন থেকে সুস্থ হয়েছেন আরও শতাধিক করোনা আক্রান্ত।

thebengalpost.in
মেদিনীপুর শহর সহ পশ্চিম মেদিনীপুরে ফের সংক্রমণের জোয়ার দেখা গেল :

মোবাইলে খবর পেতে জয়েন করুন
Whatsapp Group এ

এদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায় পরিবার ও গোষ্ঠী সংক্রমণের ধারা অব্যাহত রেখে মেদিনীপুর শহরে ফের করোনা সংক্রমণের জোয়ার দেখা দিয়েছে! শুধুমাত্র, মেদিনীপুর শহর বা পৌরসভা এলাকাতেই ১৩৭ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। এর মধ্যে— মির্জাবাজারে ৪, ধর্মায় ৫, সেখপুরায় ৪, বল্লভপুরে ৬, মীরবাজারে ১, বক্সীবাজারে ১, সুজাগঞ্জে ১, রাজাবাজারে ৫, বড় আস্তানায় ১, হোসনাবাদে ১, তাঁতিগেড়িয়ায় ৫, মহতাবপুরে ৪, দেওয়াননগরে ১, শরৎপল্লীতে ১, ছোটো বাজারে ২, স্কুলবাজারে ২, সিপাই বাজারে ৪, নতুন বাজারে ৩, রবীন্দ্র নগরে ২, চিড়িমারসাইতে ১, রাঙামাটিতে ৫, বক্সীবাজারে ৪, কুইকোটাতে ২১, আবাসে ১০, খাসজঙ্গলে ২, ফড়িংডাঙায় ১, কেরানীচটীতে ৩, তোলাপাড়ায় ২, তলকুইতে ১, সুকান্ত পল্লীতে ১, পাটনা বাজারে ৩, নজরগঞ্জে ২, বিধাননগরে ১, বিবেক নগরে ১, হাতারমাঠে ১, হাঁসপুকুরে ২, কামার আড়ায় ১, অলিগঞ্জে ১, জর্জকোটে ১, অরবিন্দ নগরে ১, বার্জটাউনে ২, কেরানীটোলাতে ৩, গোলকু্ঁয়াচকে ২, হবিবপুরে ৪, ক্ষুদিরাম নগরে ১, দেশবন্ধু নগরে ২, মধুসূদন নগরে ১, পুলিশ লাইনে ৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। অন্যদিকে, কোতোয়ালী থানার বিভিন্ন এলাকায় আরও ৮ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে গত চব্বিশ ঘণ্টায়। অপরদিকে, মেদিনীপুর সদর ব্লকের গুড়গুড়িপালে ১, বাগডুবিতে ১, গোপগড় ২, কালগাংয়ে ৪, খয়রুল্লাচকে ১, কঙ্কাবতীতে ১, নেপুরাতে ২, মুড়াডাঙায় ১, চাঁদড়ায় ১, শিরোমণিতে ১, পাঁচখুরিতে ১, জামালপুরে ১ এবং পাথরায় ১ জন সহ সদর ব্লকে মোট ১৮ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। মেদিনীপুর শহর ও সংলগ্ন এলাকায় মোট ১৬৩ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে গত চব্বিশ ঘণ্টায়।

thebengalpost.in
জেলার করোনা হাসপাতালগুলোতে আছে পর্যাপ্ত করোনা শয্যা :

অন্যদিকে, খড়্গপুরে ৮৫ (গ্রামীণ ২০, শহর ৪৩, রেল ২০ এবং আইআইটি ২) জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। এদিকে, জঙ্গলমহলের গড়বেতাতে প্রথম থেকেই সংক্রমণ-চিত্র মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এদিনও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। গোষ্ঠী সংক্রমণের ধারা অব্যাহত রেখে, গড়বেতার তিনটি ব্লক মিলিয়ে নতুন করে ৫১ (১ নং এর আমলাগোড়া, ঝাড়বনী-ফতেসিংপুর, রাধানগর প্রভৃতি; ২ নং এর কিয়াবনী, করমাশোল, কিয়ামাচা, গোয়ালতোড় প্রভৃতি, ৩ নং এর দুর্লভগঞ্জ, সাতবাঁকুড়া, দ্বারিগেড়িয়া, বিলা প্রভৃতি) জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অন্যদিকে, ভয়াবহ গোষ্ঠী সংক্রমণ দেখা দিয়েছে জঙ্গলমহল শালবনী ব্লকের বুড়িশোল নামক গ্রামে। বিগত ২ দিনে (শুক্রবার ও শনিবার) করোনা সংক্রমিত হয়েছিলেন ৩ টি পরিবারের মোট ১৪ জন। মাঝখানে রবিবার এই গ্রাম থেকে কারুর টেস্ট হয়নি। সোমবার টেস্ট করানোর পর, মঙ্গলবারের রিপোর্টে ফের এই গ্রামের ২ টি পরিবারের মোট ৪ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। ফলে, শালবনীর বুড়িশোল (কৃষ্ণনগর) গ্রামে এখনও পর্যন্ত ১৬ জন করোনা সংক্রমিত হলেন। এদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায় এই গ্রামের ৪ জন সহ শালবনীতে মোট ৩৬ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এর মধ্যে, ভুরসায় (কাশীজোড়া) ১ জন রাউতোড়াতে ১ জন, সাতপাটীতে ১ জন, পিড়াকাটাতে ১ জন, ভীমপুরে ২ জন, JSW তে ১ জন, OCL এ ১ জন, ডাঙরপাড়াতে ১ জন, কর্ণগড়ে ১ জন, ভাদুতলাতে একই পরিবারের ৩ জন সহ মোট ৪, গোদাপিয়াসালে ২ জন, বিআরবি তে ১ জন এবং চকতারিনী সহ শালবনীতে ১৩ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন।

thebengalpost.in
শালবনীর বুড়িশোল গ্রামে দেখা দিয়েছে গোষ্ঠী সংক্রমণ :

গত চব্বিশ ঘণ্টায় ভয়াবহ গোষ্ঠী সংক্রমণ‌ দেখা দিল নারায়ণগড় (বেলদা) ব্লকের কয়েকটি গ্রামেও! বেলদা-নারায়ণগড় এলাকায় মোট ৮৪ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। এর মধ্যে, হরিপুরপুরের জফলায় ৩-৪ টি পরিবারে মোট ২৫ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়াও, পোরলদাতেও ২ টি পরিবার মিলিয়ে ৬ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়াও, পুঁয়াতে ২ জন, অমরদাতে ৩ জন, আমিডানগরে ৫ জন, সাবড়াতে ৪ জন ছাড়াও বেলদাতে ৫ জন, খাকুড়দা, সাউড়িতে ২ জন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও, কুলিগেড়িয়া, আকন্দা, অভিরামপুর, ফতেপুরে ৩-৪ জন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। মকরামপুর বাজার ও সংলগ্ন এলাকায় মোট ১০ জন‌ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। অপরদিকে, দাঁতনে মোট করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ২২ জন। এর মধ্যে, পুরুন্দায় ও রসুলপুরে দেখা দিয়েছে গোষ্ঠী সংক্রমণ। সংক্রমিত যথাক্রমে ৪ জন ও ১২ জন। এছাড়াও, কেশরম্ভা, তুরকা, আঙুয়া, ধারদাতে ১ জন করে এবং ১ জন বিডিও অফিসের কর্মী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কেশিয়াড়িতে ৯ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। এদিকে, ডেবরায় ১১ জন (কিশোরপুরে ৪ জন, বড়গড়, বড়মাধবপুর, গঙ্গারামপুর, দোগেড়িয়া, নুরলাচক, গ্রামবালীচক, রামপুরচকে ১ জন করে) করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। সবংয়ে ১৪ (রুইনান ২, বলরামপুর ২, সতসই, চকলাল, খেলনা, বুড়াল, আমডা, গৌরবাড়, নাড়মা, বীরকোটা) জন এবং পিংলায় ৪ (পিংলা, মাকড়দা, কান্তপুকুর ও জলচক) জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। ইছাইপুরে ৫ জন, মহিশদা, পাচরা, তুরিয়া ও গোড়াইপুরে ১ জন সহ কেশপুর ব্লকে মোট ৯ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। অন্যদিকে, ঘাটাল মহকুমায় ৬৪ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, জেলার করোনা হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক শয্যা আছে।

আরও পড়ুন -   কমছে সংক্রমণ! গত ৪৮ ঘন্টায় পশ্চিম মেদিনীপুরে ৯৭৩; মেদিনীপুরে ২৪৫, খড়্গপুরে ২০৫, গড়বেতায় ১১৭, শালবনীতে ৪৯ জন সংক্রমিত; মৃত্যু ১৭ জনের