শীতের আমেজ গায়ে মেখে ব্যতিক্রমী বড়দিনে বাঙালি! ‘বিশ’ এর বিদায়ের অপেক্ষায় বিশ্ববাসী

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট বিশেষ প্রতিবেদন, অমৃতা ঘোষ দত্ত, ২৫ শে ডিসেম্বর: ২৫ শে ডিসেম্বর। মেরি মাতার কোল আলো করে ‘বিস্ময়শিশু’ যীশু খ্রিস্টের আবির্ভাব। বিশ্ববাসীর মেরি ক্রিসমাস (Merry Christmas)। উৎসবপ্রিয় বাঙালির বড়দিন। অতিমারীর আবহে শুধু বাংলা নয় সারা বিশ্বেই পালিত হচ্ছে, নিয়ম মেনে, সচেতনতার সঙ্গে। প্রার্থনা বা উপাসনা হলেও, তা স্বাস্থ্য বিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই বিভিন্ন চার্চে গতকাল রাত্রি থেকে পালিত হয়েছে। কলকাতার সেন্ট পলস ক্যাথিড্রাল চার্চ আজ দুপুর ২ টোর পরই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মেদিনীপুরের ক্যাথলিক চার্চ (নির্মল হৃদয় আশ্রম) এও উপাসনা হয়েছে নিয়ম মেনে। গতকাল (২৪ ডিসেম্বর) রাত্রি ৮ টাতেই প্রার্থনা সম্পন্ন হয়েছে, রাত্রি ১২ টার পরিবর্তে। সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে, বন্ধ এবার বিখ্যাত চার্চের মেলাও। যদিও, বছরশেষের কনকনে ঠান্ডায় সাড়ম্বরে বড়দিন পালনের উপযুক্ত পরিবেশ ছিল, তা সত্বেও মারণ ভাইরাস মানুষকে এবার অনেকখানি সংযত ও নিয়ন্ত্রিত রেখেছে। ১০-১২ ডিগ্রির শীতল পরিবেশ আর রৌদ্রকরোজ্জ্বল আবহাওয়া তেও তাই উচ্ছ্বাস আর উৎসবের রং এবার কিছুটা ম্লান!

thebengalpost.in
thebengalpost.in

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
thebengalpost.in
মেদিনীপুর ক্যাথলিক চার্চ (নির্মল হৃদয় আশ্রম) :

এসবের মধ্যেই, বড়দিনের পিকনিকে মেতেছে মানুষ। কেউবা নিজেদের বাড়িতেই বা বাড়ির সামনে বাগান অথবা ছাদে। কেউবা, পার্ক বা কোনও উদ্যানে। উৎসবমুখর বাঙালি আনন্দ করছেন, তবে পরিচিত গন্ডীর মধ্যে অথবা সীমাবদ্ধতা বজায় রেখে। মেদিনীপুর শহরের গোপগড়ের ইকোপার্ক, মোহনপুরের ক্ষুদিরাম পার্ক, নদীর ধারের বিদ্যাসাগর পার্ক, মণিদহের পার্ক অথবা কংসাবতী নদীর পাড়গুলিতে পিকনিক এবারও হচ্ছে। তবে, সংখ্যা টা অনেক কম। চন্দ্রকোনা রোডের পরিমল কানন দীর্ঘদিন পরে খুলেছে, স্বভাবতই ভিড় আছে। কিন্তু, অন্যান্য বছরের তুলনায় কম! সবমিলিয়ে বলা যায়, ‘বাহির-মুখী’ বাঙালি বহুবছর আজকের দিনে ‘ঘর-মুখী’। ভিড়ভাট্টা এড়িয়ে, পরিবারের সদস্যদের নিয়েই সময় কাটানোটাই এবারের বড়দিনের মূলসুর। সকলেই সেই একই সুরে তাই বলছেন, “এই ‘বিশ’ টা গেলে বাঁচি, একুশে হবে বাঁধভাঙা আনন্দ!”

thebengalpost.in
গোপগড় ইকো পার্ক (ভিড় অনেকটাই কম) :

বিজ্ঞাপন
thebengalpost.in
কংসাবতী নদীর তীরে পিকনিক (উচ্ছ্বাস ও সমাগম তুলনামূলক কম) :

অন্যদিকে, ব্রিটেন তথা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কোভিডের নতুন স্ট্রেইন নিয়ে চিন্তিত ভারতবাসী তথা বাঙালিও। যদিও, লন্ডনের সাথে আপাতত বিমান-বিচ্ছিন্ন ভারত কিছুটা নিশ্চিন্তে আছে। বাঙালিরা আরো স্বস্তিতে। দৈনিক গড় সংক্রমণ কমতে কমতে ১৬০০ ‘র আশেপাশে। সুস্থতার হার ৯৫ শতাংশ। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় গত ৭ দিনে করোনা সংক্রমিত মাত্র ১৪২ জন (২৫, ৩২, ২, ১০, ২৫, ২৬, ২২)। সুস্থতার হার এই মুহূর্তে প্রায় ৯৭ শতাংশের কাছাকাছি। আপাতত, বহু বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব, প্রিয়জন বা আপনজন’ কে কেড়ে নেওয়া দু’হাজার বিশ ‘ কে দু’চোখ ভরা অশ্রু নিয়ে বিদায় জানাতে প্রস্তুত হচ্ছে আপামর বাঙালি, ভারতবাসী তথা বিশ্ববাসী।

thebengalpost.in
পরিবারের সঙ্গেই পিকনিকে মাতল বাঙালি :

thebengalpost.in
ঘরের উঠোনেই পিকনিক :

বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে