আনন্দ মুহূর্তে বদলে গেল বিষাদে! বিশে পা দেওয়ার আগেই বুবাইয়ের বিদায়ে শালবনীতে শোকের ছায়া

Drown of a teenager at Salboni

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, শালবনী, ২০ শে সেপ্টেম্বর: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনী থানার বরাকুলি গ্রামে আজ বিষাদের ছায়া! দেবীপক্ষের শুরুতেই এই বিপদ কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না, আপামর শালবনী’বাসী। মাত্র ১৯ বছর ১১ মাস ১২ দিনের বুবাই ঘোষ (ঋক) সকলকে ছেড়ে চলে গেল অজানার দেশে! ঊনিশ ফুরিয়ে বিশে পা দেওয়ার ঠিক ১৯ দিন আগেই নিয়তির নিষ্ঠুর পরিহাসে, শালবনীর এই সুস্থ, সবল ও প্রাণোচ্ছ্বল যুবকের ‘সলিল সমাধি’ (জলে ডুবে মৃত্যু) ঘটল। বন্ধুদের সাথে আনন্দ করতে গিয়ে, এভাবে সকলকে নিরানন্দের ঘোর অন্ধকারে ডুবিয়ে দিয়ে, তার চলে যাওয়াটা কিছুতেই যেন মেনে নিতে পারছেন না, বুবাইয়ের পরিবার-পরিজন থেকে শুরু করে আত্মীয় ও বন্ধু-বান্ধব কেউই!

thebengalpost.in
বাঁধ থেকে বুবাই’কে উদ্ধার করার সময় :

.

সূত্রের খবর অনুযায়ী, বন্ধুদের সাথে আজ দুপুরে পিকনিক করতে (অনেকের মতে, বিশ্বকর্মা ঠাকুর বিসর্জন করতে) বুবাই (ঋক) গিয়েছিল, শালবনী থেকে ২-৩ কিলোমিটারের মধ্যে (আসনাবনি ও মিরগার মাঝে) একটি বাঁধে (কাঁকর বাঁধে)’র ধারে। সেখানেই খাওয়া-দাওয়ার পর, বন্ধুরা মিলে স্নান করতে নেমেছিল বাঁধে। তারপরই, বর্ষায় পরিপূর্ণ বাঁধে সাঁতার দেওয়ার ইচ্ছে! সেই, ইচ্ছেই শেষ ইচ্ছে হয়ে যায় বুবাইয়ের। সূত্রের খবর অনুযায়ী, জলের মধ্যেই শ্বাসযন্ত্র রুদ্ধ হয়ে যায় তার, চিরতরে থেমে যায় হৃদযন্ত্র। জলের তলায় চলে যায় সে! সঙ্গে থাকা অন্য বন্ধুরা (স্থানীয়দের অনুমান, ২-৩ জন ছিল) আতঙ্কিত হয়ে, লোকজন ডাকাডাকি শুরু করে। এরপর, স্থানীয়রা এসে বুবাই’কে যখন উদ্ধার করে, তখন সব শেষ! শালবনী গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে, চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। বিকেল চারটা থেকে সাড়ে চারটার মধ্যে এই ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছে, বুবাইয়ের দেহ শালবনী থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। শালবনী থানার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পরিবারের তরফে কোন অভিযোগ বা মামলা দায়ের করা হয়নি। প্রাথমিক অনুমান, জলের মধ্যেই শ্বাসরোধ হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে, নিয়ম মেনে আগামীকাল সকালে দেহ ময়নাতদন্তের জন্য মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হবে বলেও জানিয়েছেন আইসি গোপাল বিশ্বাস। বুবাইয়ের বাবা কিঙ্কর ঘোষ এলাকার একজন প্রসিদ্ধ ব্যবসায়ী। তাঁর দুই সন্তান (পুত্র), বুবাই বড়। কলেজে পড়াশোনার সাথে সাথে বুবাইয়ের ছিল, বাইক ও ফটোগ্রাফির শখ। এভাবে, ‘বিনা মেঘে বজ্রপাতে’ শোকস্তব্ধ তিনি এবং তাঁর পরিবার! জ্যেষ্ঠ সন্তানকে হারিয়ে প্রায় সংজ্ঞাহীন মা!

thebengalpost.in
বুবাই ঘোষ (ছবি : ফেসবুক) :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে