মারণ ভাইরাসের ভয়াবহ আক্রমণে পশ্চিম মেদিনীপুরে ৫৮৮ জন সংক্রমিত! আক্রান্ত অতিরিক্ত জেলাশাসকও, ৮ জনের মৃত্যু হল গত চব্বিশ ঘণ্টায়

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ৬ মে:পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের বৃহস্পতিবারের রিপোর্ট অনুযায়ী, জেলার সর্বকালীন রেকর্ড ভঙে দিয়ে গত চব্বিশ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৫৮৮ জন (বুধবার সংক্রমিত হয়েছিলেন ৫৭৭ জন)। এর মধ্যে, র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে (RAT) পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে ২০৪ জনের, আরটি-পিসিআরে (RT-PCR) পজিটিভ এসেছে ৩৪৯ জনের এবং ট্রুন্যাটে (TRUENAT) পজিটিভ এসেছে ৩৫ জনের। গত ৭ দিনে জেলায় মোট করোনা সংক্রমিত হলেন- ২৮৪৮ (৩৬৬, ৩৪৩, ৩৮০, ২৩০, ৩৬৪, ৫৭৭, ৫৮৮) জন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় ৮ জনের মৃত্যু’র খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে, স্বাস্থ্য দপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ৪ জন, শালবনীতে ২ জন ও ঘাটাল সেফ হোমে ১ জন। অপরদিকে, মেদিনীপুর শহরের ভোলাময়রার চকের এক সত্তোরোর্ধ্ব প্রৌঢ় বুধবার নিজের বাড়িতেই করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। যদিও তাঁর হার্টের অসুখ ছিল বলে জানা গেছে।

thebengalpost.in
আয়ুশ হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা শুরু হল :

মোবাইলে খবর পেতে জয়েন করুন
Whatsapp Group এ

এদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায়, মেদিনীপুরে ১২৭ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এর মধ্যে, সদর ব্লকের মুড়াকাটা, গুড়গুড়িপাল, ঝরিয়া, ভালকি, ভুনিহাটা, বীরভদ্রপুর সহ বিভিন্ন এলাকায় ১৫ জন, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ সূত্রে ১৪ জন এবং পুলিশ লাইনের ৪ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। সংক্রমিত হয়েছেন একজন অতিরিক্ত জেলাশাসকও। এছাড়াও, মেদিনীপুর শহরে সংক্রমিত হয়েছেন আরও ৯৩ জন। কোতবাজার, মির্জাবাজার, নতুন বাজার, পালবাড়ি, পাটনা বাজার, হবিবপুর, ধর্মা, আবাস, নজরগঞ্জ, শরৎপল্লী, বিধাননগর, তাতিগেঁড়িয়া, রাঙামাটি প্রভৃতি এলাকায় রীতিমতো গোষ্ঠী সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। অন্যদিকে, খড়্গপুরেও ১২৭ (শহর ৬০, গ্রামীণ এলাকায় ৫, আইআইটি ৪, রেল ৫৮) জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়।

thebengalpost.in
বিভিন্ন হাসপাতালে বাড়ছে অক্সিজেনের চাহিদা :

অন্যদিকে, শালবনী ব্লকে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ২৪ জন। এর মধ্যে, কমলা গ্রামের একটি পরিবারেই ৯ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন, এছাড়াও ডাঙরপাড়ায় ২ জন, বালিজুড়িতে ১, রাউতোড়াতে ১, তিলাখুলিতে ২ জন, তিলাবনীতে ১ জন এবং শালবনীতে ৮ জন সংক্রমিত হয়েছেন। গড়বেতার তিনটি ব্লক মিলিয়ে ৩৯ (শুধু গড়বেতাতেই ৩৫, গোয়ারতোড় ও চন্দ্রকোনারোড এলাকায় আরও ৪) জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। দুর্লভগঞ্জ, বড়মুড়া, সানমুড়া প্রভৃতি এলাকায় দেখা দিয়েছে গোষ্ঠী সংক্রমণ। ডেবরা ব্লকে ৩০ (আলিসাগড়, বড়গড়, ডেবরা, হাইপাট, চককুমার, লোয়াদা, রাধামোহনপুর প্রভৃতি এলাকা থেকে সংক্রমিতের সন্ধান পাওয়া গেছে) জন, সবং ২ (সবং ও রুইনান) এবং পিংলায় ৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। বেলদা – নারায়ণগড় এলাকায় ৪২ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে গত চব্বিশ ঘণ্টায়। এছাড়াও, দাঁতন এলাকায় ১৭ জন, কেশিয়াড়িতে ৮ জন এবং কেশপুরে ২ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন গত চব্বিশ ঘণ্টায়। ঘাটাল মহকুমায় করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ১০৭ জন। অপরদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায়, জেলার ৬ টি করোনা হাসপাতাল থেকে প্রায় ৫০ জন এবং হোম আইশোলেশন থেকেও প্রায় শতাধিক মানুষ সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যদিও, জেলায় ধীরে ধীরে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বাড়তে থাকায় অক্সিজেনের চাহিদা বাড়ছে। প্রবল সংক্রমণের মুখে, জেলার প্রতিটি করোনা হাসপাতালেই চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী’র অভাবও আছে! এদিকে, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে সঠিক পরিষেবার অভাবের বিষয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন জেলার একাধিক সমাজকর্মী। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখার কথা জানিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর ও মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন -   করোনা মুক্ত হয়ে মন্দিরে 'দাদা', অনুগামীরা টানা কর্মসূচিতে, মুখ্যমন্ত্রীর সফরের পর 'অবস্থান' আরো স্পষ্ট হল