৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে খড়্গপুর পৌরসভায় চাকরি! ডেবরা ও কেশপুরের প্রতারিত দুই যুবকের তৎপরতায় ‘বাবা’ বদ্রীনাথ ও ‘বাবা’ তারকনাথ হাতেনাতে পাকড়াও

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, খড়্গপুর, ২৪ সেপ্টেম্বর: মহামারী’র মধ্যেও প্রতারণার নিপুণ ফাঁদ পেতেছিল খড়্গপুরের দুই যুবক। খড়্গপুর পৌরসভার (Kharagpur Municipality) গ্রুপ-ডি কর্মী পরিচয় দিয়ে, খড়্গপুর শহরের বাসিন্দা বদ্রীনাথ শর্মা (৪৭) এবং তার সাগরেদ তারক কুন্ডু (যথাক্রমে, নিমপুরা ও মালঞ্চার বাসিন্দা বলে জানা যায়) একেবারে খড়্গপুর পৌরসভাতেই গ্রুপ-ডি’র চাকরি পাইয়ে দেওয়ার টোপ দিয়েছিল, ডেবরা ও কেশপুরের দুই যুবক’কে। চাকরির ভরা আকালের বাজারে, সেই টোপ গিলেও ফেলেছিলেন ওই দুই যুবক! প্রথম দফায় ২০ হাজার করে টাকাও “অ্যাডভান্স” (অগ্রিম) বাবদ দিয়ে দিয়েছিলেন, ওই দুই যুবক (নিরাপত্তার স্বার্থে আপাতত নাম গোপন রাখা হচ্ছে)। এরপর, গতকাল (২৩ সেপ্টেম্বর, বুধবার) ছিল, দ্বিতীয় কিস্তির আরো ৩০ হাজার টাকা (অগ্রিম) জমা দেওয়ার নির্ধারিত দিন! দুই যুবক সেই টাকা নিয়ে যথারীতি পৌঁছেও গিয়েছিলেন, নির্ধারিত সময়ে (দুপুর নাগাদ), খড়্গপুর পৌরসভার সামনে। কিন্তু, যেকোনো কারণেই হোক, ‘বাবা’ বদীনাথ (বদ্রীনাথ শর্মা) ও তার অনুচর ‘বাবা’ তারকনাথ (তারক কুন্ডু) পৌঁছতে দেরি করে দেয়! সেই সুযোগে এবং মনের মধ্যে একটু-আধটু সন্দেহ জন্মানোয়, ওই দুই যুবক খড়্গপুর পৌরসভার কয়েকজন কর্মী’কে নিজেদের মোবাইলে থাকা বদীনাথ শর্মা’র ছবি দেখিয়ে জিজ্ঞেস করেন, এই ভদ্রলোক এখানকার কর্মী কিনা। ব্যাস! এতেই ধীরে ধীরে ‘কীর্তিমান’দের কুকীর্তি ফাঁস হয়। ধরা পড়ে ওই দুই প্রতারক।

thebengalpost.in
বদ্রীনাথ শর্মা ও তারক কুন্ডু :

.

ডেবরা ও কেশপুরের প্রতারিত ওই দুই যুবকের কাছ থেকে জানা যায়, ৫ লক্ষ টাকার বিনিময়ে খড়্গপুর পৌরসভায় গ্রুপ-ডি পোস্টের চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথা বলেছিল, খড়্গপুরের ওই দুই প্রতারক। নিজেদের তারা, পৌরসভার গ্রুপ-ডি কর্মী হিসেবে পরিচয় দিয়েছিল। কথামতো, প্রথম দফার ২০,০০০ টাকা দেওয়াও হয়ে গিয়েছিল। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ছিল, দ্বিতীয় দফায় আরো ৩০,০০০ টাকা দেওয়ার দিন। কিন্তু, ওখানে পৌঁছে বদীনাথ শর্মা’কে বারবার ফোন করেও না পেয়ে, ওই দুই যুবক সন্দেহের বশে পৌরসভার কর্মীদের কাছে বদ্রীনাথের বিষয়ে খোঁজ নেওয়া শুরু করে। কিন্তু, পৌরসভার কর্মীরা চেনেননা বলে জানিয়ে দেন। এরপর, প্রতারিত দুই যুবক, চালাকি করে ওখানেই ‘ওঁত পেতে’ দাঁড়িয়ে থাকে, আর ফোন করতে থাকে বদ্রীনাথ ও তারক’কে। অবশেষে, দর্শন দেন দুই কীর্তিমান (পড়ুন, কু-কীর্তিমান)! পৌরসভায় তারা পৌঁছানোর সাথে সাথেই, দু’জনকে চেপে ধরেন প্রতারিত দুই যুবক। এরপর, শুরু হয় কথা কাটাকাটি, চিৎকার। প্রতারিত দুই যুবক পৌরসভার অন্যান্য কর্মীদের ডাকাহাঁকা শুরু করে। ওই দুই যুবককে সকলে মিলে ধরে রাখেন। আসেন, পৌর প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য শেখ হানিফও। তিনিই সব শুনে পুলিশে খবর দেন। খড়্গপুর টাউন থানার পুলিশ পৌঁছলে, প্রতারক দুই যুবক’কে তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। সন্ধ্যা নাগাদ দু’জনকে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর, উপযুক্ত প্রমাণের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতার করা হবে বলে জানা গেছে।

thebengalpost.in
বদ্রীনাথ শর্মা (৪৭) :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে