শুভেন্দু অধিকারী’র ছেড়ে দেওয়া পদে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, ঝাড়গ্রাম থেকে মেদিনীপুর মানুষের পাশে ‘সদাজাগ্রত’ জননেতা

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট বিশেষ প্রতিবেদন, সমীরণ ঘোষ, ২৬ নভেম্বর: আরও স্পষ্ট ভাবে দলকে বার্তা দিলেন পরিবহনমন্ত্রী তথা মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। অতিসম্প্রতি, তাঁর পূর্ব মেদিনীপুরের ঘনিষ্ঠ অনুগামী, জেলা পরিষদের খাদ্য কর্মাধ্যক্ষ সিরাজ খান বিজেপি’তে যোগদান করে ঘোষণা করেছেন, “শুভেন্দু’র আশীর্বাদ সঙ্গে আছে।” এদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুরে তাঁর আর এক ঘনিষ্ঠ অনুগামী, তথা মেদিনীপুর পৌরসভার প্রাক্তন পৌরপ্রধান বর্ষীয়ান তৃণমূল কংগ্রেস নেতা প্রণব বসু দলনেত্রী তথা প্রশাসনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে গেছেন। সম্প্রতি, মেদিনীপুর পৌরসভার পৌর প্রশাসক মণ্ডলী থেকে তাঁকে বাদ দেওয়া হয়েছে। সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেই কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছেন তিনি। পরোক্ষে, এই সমস্ত ঘটনা দলের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর দূরত্বকে আরো স্পষ্ট করেছে। আর আজ স্বয়ং শুভেন্দু অধিকারীও একটি সংস্থা’র চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে, আরও পরিস্কার করে দিলেন, তিনি নিজের সিদ্ধান্তে ‌অনড়! প্রয়োজনে, এক এক করে অন্যান্য পদগুলিও যে তিনি ছেড়ে দেবেন, তাও বুঝিয়ে দিলেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আজ (২৬ নভেম্বর) হুগলি রিভার ব্রিজ কমিশনের (HRBC) চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।‌ সূত্রের খবর অনুযায়ী সেই পদে আসীন হয়েছেন শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

thebengalpost.in
শুভেন্দু অধিকারী’র প্রচেষ্টায় এস কে এমে ভর্তি হওয়ার পর গুরুপ্রসাদ করণ :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি, প্রবীণ তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় মন্তব্য করেছিলেন, “শুভেন্দু দলেই আছে। একসঙ্গে সকলে মিলে লড়াই করব।” কিন্তু, সেই সব মন্তব্য’কে হুগলি নদীর জলে নিক্ষিপ্ত করে শুভেন্দু অধিকারী আজ, হুগলি নদী ব্রিজ কমিশনের চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে দিলেন। আর এরপরই জল্পনা আরও বাড়ল! তাহলে কি এবার সরাসরি দল ছাড়ার ইঙ্গিত দিলেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী? আগামী সপ্তাহেই সব কিছু স্পষ্ট ‌হবে, খবর পাওয়া গেল বিশ্বস্ত সূত্রে। তবে, ঝাড়গ্রাম থেকে মেদিনীপুর, ‘জনসেবা’ বা ‘মানবসেবা’য় যে তিনি প্রতিমুহূর্তে নিয়োজিত আছেন, তা বলাই বাহুল্য! গতকাল (২৫ শে নভেম্বর), ঝাড়গ্রাম জেলার বেলিয়াবেড়ার বাসিন্দা বছর পঞ্চাশের গুরুপ্রসাদ করণ’কে রাজ্যের সর্বোচ্চ মানের সরকারি হাসপাতাল এসএসকেএম-এ ভর্তির ব্যবস্থা করে দেন শুভেন্দু অধিকারী। শুধু তাই নয়, দীর্ঘদিন যাবৎ লিভার ও কিডনির সমস্যায় ভোগা গুরুপ্রসাদের পরিবারের হাতে‌ ৫০,০০০ টাকাও তুলে দেন জননেতা শুভেন্দু অধিকারী। ওই পরিবার বিভিন্ন জায়গায় তাঁর চিকিৎসা করিয়ে, প্রায় সর্বস্বান্ত হয়েছিলেন। এদিকে, আজ বিদ্যাসাগর সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের অন্যতম বোর্ড অফ ডাইরেক্টর তথা মেদিনীপুর সদর ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ও‌ মণিদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান অঞ্জন কুমার বেরা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন। তাঁর প্রয়াণে ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান শুভেন্দু অধিকারী নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে শোকবার্তা দিয়ে বলেন, “মহোদয়ের প্রয়াণে আমি শোকাহত, মর্মাহত। ওনার বিদেহী আত্মার চিরশান্তি কামনা করি। পরিবার ও শুভানুধ্যায়ীদের জানাই গভীর সমবেদনা” সবমিলিয়ে, প্রতিমুহূর্তে তিনি মানুষের সাথে, মানুষের পাশে থাকলেও, তিনি যে ‘দলের’ সাথে নেই, তা আরও পরিষ্কার হচ্ছে ক্রমশ।

thebengalpost.in
শুভেন্দু অধিকারী’র শোকবার্তা :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে