“ধরা নাহি দিব”! নন্দীগ্রাম থেকে মেদিনীপুর বাম-কংগ্রেস-বিজেপির প্রতি ‘সম্মান’, আক্রমণকারীদের ‘ছোটোলোক’ বলেও ধোঁয়াশা রাখলেন শুভেন্দু

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, ৩১ অক্টোবর: “প্যারাসুট থেকে নামিনি, লিফটেও উঠিনি, সিঁড়ি ভাঙতে ভাঙতে উঠেছি। ছোটো লোকেদের দিয়ে আমার বিরুদ্ধে বাজে কথা বলালে, ভাবছে আমি উত্তর দেব! আমি ওই লেভেলে নীচে নামি না।” নন্দীগ্রামের কলেজ মাঠে বিজয়া সম্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এমনই ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করলেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি আরও বলেন, “কুকুর মানুষের পায়ে কামড়ালে মানুষ কখনও কুকুরের পায়ে কামড়ায় কি?” ১০নভেম্বর নন্দীগ্রামে রক্তাক্ত সূর্যোদয়ের বর্ষপূর্তি। ওইদিন নন্দীগ্রামে বড় সমাবেশ হবে বলেও ঘোষণা করেন শুভেন্দু। নন্দীগ্রাম সীতানন্দ কলেজে আজ (৩১ অক্টোবর) বিজয়া সম্মিলনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে, পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রামের মানুষকে বিজয়ার শুভেচ্ছা জানালেন। এদিনের সভাতেও, কোন দলীয় পতাকার ছত্রছায়ায় আসা তো দূরের কথা, একবারের জন্যও নাম নেননি, মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে, তৃণমূল কংগ্রেসের কোন নেতা মন্ত্রীর। শুধু তাই নয় একবারও উচ্চারণ করলেন না “তৃণমূল কংগ্রেস” শব্দটি! বরং অত্যন্ত শ্লেষাত্মক ভঙ্গিতে আক্রমণ করলেন, তাঁর প্রতি বিদ্রূপাত্মক মন্তব্য করা তৃণমূল বিধায়ক তথা মন্ত্রীদের প্রতি। প্রসঙ্গত, দু’দিন আগেই দিঘায় এসে পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম শুভেন্দুর অরাজনৈতিক সভা সমাবেশ করা নিয়ে কটাক্ষ করে বলেছিলেন, “পথ ভাবে আমি দেব…হাসেন অন্তর্জামী!” দলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই যে শেষ কথা, সেই দাবি করে, শুভেন্দুর “ঔদ্ধত্য” এর প্রতি কটাক্ষ করেছিলেন। অপরদিকে, দিনকয়েক ধরেই তাঁকে তীব্র কটাক্ষ করে চলেছেন, পূর্ব মেদিনীপুরে তাঁর তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বী তথা বিধায়ক অখিল গিরি। আজ তারই প্রত্যুত্তরে, পরোক্ষে ‘ছোটোলোক’ বললেও সরাসরি আক্রমণ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন। বরং নিজের রাজনৈতিক আন্দোলনের ইতিহাস বর্ণনা এবং জননেতা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার তাগিদ অনুভব করা গেল তাঁর প্রতিটি কথাতে।

thebengalpost.in
নন্দীগ্রামে নতমস্তকে শুভেন্দু অধিকারী :

.
.

অন্যদিকে, মেদিনীপুর শহর ক্লাব সমন্বয় কমিটির বিজয়া সম্মিলনী’তে, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী’র মর্মর মূর্তিতে মাল্যদান করাই নয়, তাঁর প্রতি নিজের আন্তরিক শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করে বললেন, “প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দারিদ্র্যকে দেশের সব থেকে বড় শত্রু বলে চিহ্নিত করেছিলেন। আজও দেশের বেশিরভাগ সম্পত্তি মাত্র ২ শতাংশ লোকের করায়ত্ত! এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।” শ্রদ্ধা জানালেন, ‘লৌহ পুরুষ’ সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেলের প্রতিও। অপরদিকে, রাজ্য তথা অবিভক্ত মেদিনীপুরের বিখ্যাত বাম নেতা সুকুমার সেনগুপ্তের প্রতিও শ্রদ্ধা প্রকাশ করে বলেন, “প্রয়াত সুকুমার সেনগুপ্ত সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী এক তরুণ সম্ভাবনাময় রাজনৈতিক নেতা।” তাঁর সাথে, মেদিনীপুর শহর তথা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শীর্ষস্থানীয় সিপিআইএম নেতা কীর্তি দে বক্সীর ব্যক্তিগত সুসম্পর্কের কথাও তুলে ধরলেন। নাজিম আহমেদ থেকে শুরু করে প্রণব বসু মেদিনীপুর পৌরসভার প্রায় সকল পৌরপ্রধান’দের সাথে আন্তরিক সম্পর্কের কথাও বললেন। মঞ্চে তখন তাঁর পাশেই বসে আছেন, তৃণমূল কংগ্রেস গঠিত পৌরবোর্ডের বিদায়ী পৌরপ্রধান তথা জেলা পরিষদের মেন্টর প্রণব বসু। যিনি আবার নিজের বক্তৃতায় ‘ভুল করে’ শুভেন্দু অধিকারী কে ‘পরিবহনমন্ত্রী’র পরিবর্তে ‘মুখ্যমন্ত্রী’ সম্বোধন করে বসেছিলেন! তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, এই ‘ভুল’ সম্বোধনেও মেদিনীপুর শহরের বিদ্যাসাগর স্মৃতি মন্দির প্রাঙ্গণ তখন হাততালিতে ফেটে পড়ছে! তাঁর অনুগামীরা উচ্ছ্বসিত হয়ে বলছেন, “আপনি ঠিকই বলেছেন ভাবি মুখ্যমন্ত্রী!”

thebengalpost.in
মেদিনীপুরের শুভেন্দু অধিকারী :

.

মেদিনীপুরের মঞ্চেও নতুন দল নাকি বিজেপি, নাকি নতুন দল করে বাম-কংগ্রেস অথবা বিজেপি’র সাথে জোট, কোন কিছুই স্পষ্ট করেননি! তবে, দু’জায়গাতেই সমান্তরালভাবে নিজের ব্যক্তিগত ‘জনদরদি মুখ’ বা জনপ্রতিনিধি হিসেবে সাফল্যের ইতিকথাই তুলে ধরেছেন। বারবার মানবসেবার কথা বলেছেন। কখনো উচ্চারণ করেছেন রবীন্দ্রনাথের, “চিত্ত যেথা ভয় শূণ্য উচ্চ যেথা শির” কখনোবা বিবেকানন্দের “জীবে প্রেম করে যেইজন সেইজন সেবিছে ঈশ্বর”। মেদিনীপুর শহরের ক্লাব সমন্বয় কমিটি’কে ‘শক্ত’ পায়ে এগিয়ে যাওয়ার নির্দেশ (পরামর্শ) দিলেন। আর মানুষের সাথে থাকার কথা বললেন, দলমত নির্বিশেষে সকল মানুষকে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শও দিলেন। প্রিয় অনুগামীদের বার্তা দিলেন, “পদ নয়, মানুষকে সঙ্গে নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার!” সব মিলিয়ে, ‘জীর্ণ-পুরাতন’কে পরিত্যাগের বার্তা থাকলেও, অনিশ্চিত আগামীর ধোঁয়াশাও রেখে দিয়ে গেলেন, অবিভক্ত মেদিনীপুরের রাজনীতির অন্যতম মুখ ‘জননেতা’ শুভেন্দু অধিকারী।

thebengalpost.in
প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মূর্তিতে মাল্যদান :

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে