“জীবসেবা”তেই জীবন সঁপে এগোতে চান মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র, “সমঝোতা” স্পষ্ট করলেন অমিত শাহ

thebengalpost.in
সম্প্রতি, খড়্গপুর তালবাগিচা চিত্তরঞ্জন স্পোর্টিং ক্লাবের কমিউনিটি হল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী :
.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট বিশেষ প্রতিবেদন, খড়্গপুর ও বাঁকুড়া, ৬ নভেম্বর: খড়্গপুরের অরাজনৈতিক মঞ্চ থেকে বিবেকানন্দের বাণী’কে পাথেয় করে ফের একবার “মানবসেবা” তথা “জীবসেবা”কেই ভিত্তি করে এগোনোর বার্তা দিলেন মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। সম্প্রতি, অবিভক্ত মেদিনীপুরে যতগুলি সভা করেছেন, “জীবসেবা হল শিবসেবা” এই বাণীই তাঁর বক্তব্যের মূল সুর হয়ে উঠেছে। এ দিনও, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়্গপুর শহরের উপকণ্ঠে “তালবাগিচা চিত্তরঞ্জন স্পোর্টিং ক্লাব” এর ‘কমিউনিটি হল’ উদ্বোধন উপলক্ষে উপস্থিত হয়ে, দল-মত-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মানবসেবার বার্তা দিলেন তিনি। মানুষের জন্য কাজ করা প্রতিটি ক্লাবের পাশে তিনি আগেও ছিলেন, বর্তমানে আছেন এবং ভবিষ্যতেও থাকবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা দিয়ে বললেন, “আমি আপনাদের পাশে সাধ্যমত থাকবো।” তুমুল করতালি তে ফেটে পড়ল ক্লাব প্রাঙ্গণ। নিজেকে বারবার, বিদ্যাসাগর, ক্ষুদিরামের স্মৃতিধন্য “মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র” পরিচয়ে পরিচিত করে অবিভক্ত মেদিনীপুরের এক এবং একমাত্র “জননেতা” রূপে মানুষের হৃদয়ে স্থান পেতে চাইলেন।

thebengalpost.in
তালবাগিচা চিত্তরঞ্জন স্পোটিং ক্লাবের কমিউনিটি হল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী :

.
.

পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরের বিভিন্ন ক্লাবকে দেওয়া খেলাধুলার সামগ্রী থেকে শুরু করে, অ্যাম্বুলেন্স প্রদানের হিসেব দিয়ে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, অবিভক্ত মেদিনীপুরের পাশে তিনি ছিলেন ও থাকবেন। পরোক্ষে, তাঁদের প্রতিও যে এই বার্তা দিলেন, “আপনারাও মেদিনীপুরের ভূমিপুত্রের পাশে থাকুন” , তা বোঝার জন্য রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন নেই। যদিও এদিন এর বক্তব্যে, “রাজনীতির” নামগন্ধও ছিল না! তবে ছিল, ক্লাবের প্রবীণ ব্যক্তিত্বদের পা ছুঁয়ে প্রণাম করা থেকে শুরু করে, “রাজনৈতিক পরিচয়ের ঊর্ধ্বে উঠে” নিজের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের কিছু খতিয়ান তুলে ধরার প্রচেষ্টা। ইঙ্গিত স্পষ্ট, সকলের আশীর্বাদ নিয়ে অবিভক্ত মেদিনীপুরকেই “পাখির চোখ” করে এগোতে চাইছেন মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। এদিন, মঞ্চের উপরে কিংবা নিচে তাঁর সাথে ছিলেন, খড়্গপুর পৌরসভার প্রাক্তন পুর প্রধান তথা জেলা তৃণমূলের অন্যতম শীর্ষ নেতা জহর পাল, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি, খড়্গপুর পুরসভার প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান হানিফ আহমেদ, জেলা যুব তৃণমূলের নেতা অসিত পাল প্রমুখ। সচেতন ভাবেই এই অনুষ্ঠান হয়তো এড়িয়ে গেছেন, বিধায়ক প্রদীপ সরকার, যাঁর বিধানসভা জয়ের মূল কারিগর ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

thebengalpost.in
খড়্গপুরের তালবাগিচার অনুষ্ঠানে শুভেন্দু অধিকারী :

.

অপরদিকে, বৃহস্পতিবার (৬ নভেম্বর), বাঁকুড়ায় একটি বেসরকারি সংবাদমাধ্যমকে শুভেন্দু অধিকারী প্রসঙ্গে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ স্পষ্ট বললেন, ₹ভোটের আগে কেন? ভোটের পরেও সবার জন্য দরজা খোলা।” প্রসঙ্গত, এদিন শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপি’তে যোগদানের জল্পনা নিয়ে সাংবাদিকের সরাসরি প্রশ্নের উত্তরে শাহ বলেন, “আমার সঙ্গে ওনার কখনো কোনও কথা হয়নি। এটা তো রাজ্য নেতৃত্বের ব্যাপার। আমার সঙ্গে তাঁর কোনও যোগাযোগ নেই। অনেকেই এসেছেন। আমরা তো ভোটের পরও তাঁকে স্বাগত জানাবো।” বোঝা গেল, নতুন দল বা মঞ্চ করে, অন্তত ৩০-৪০ জন জয়ী বিধায়ক নিয়ে ভোটের পরেই জোট বাঁধতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। কোন দলের সাথে? সেটা সময়ই বলবে!

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে