তৃণমূলে ফিরলেন সৌমিত্র পত্নী সুজাতা, ‘হাউহাউ’ করে কেঁদে ফেললেন সৌমিত্র, পাঠাচ্ছেন বিবাহবিচ্ছেদের নোটিশ

thebengalpost.in
সুজাতা মণ্ডল খাঁ :
বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, কলকাতা, ২১ ডিসেম্বর : নাটকীয় পরিস্থিতি রাজ্য রাজনীতিতে! বিজেপির উপর প্রত্যাঘাত করল তৃণমূল। বিজেপি থেকে ছিনিয়ে নিল, সাংসদ ও যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁ’ এর পত্নী সুজাতা মণ্ডল খাঁ’কে। তৃণমূলে যোগদান করেই বঞ্চনার কথা তুললেন! বললেন, “বিজেপি যোগ্য লোকেদের সম্মান দেয়না। অন্য দল থেকে আসা অযোগ্যদের সম্মান‌ দেয়!” সৌমিত্র খাঁ’র বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, “রাজনীতি আলাদা পরিবার আলাদা!” তবে, অদূর ভবিষ্যতে সৌমিত্র খাঁও যে নিজের পুরানো দলে ফিরতে পারেন, এমন জল্পনার ইঙ্গিত দিলেন। সুজাতা’র দাবি উড়িয়ে দেয় বিজেপি। এরপরই সরাসরি আসরে নামেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সোমিত্র খাঁ। তিনি সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়ে দেন, “তৃণমূল আমার পরিবার ভেঙে দিল। আমার জন্য সুজাতা অনেক করেছে। কিন্তু, ও তৃণমূলে যোগদান করায় ওর সাথে সব সম্পর্ক শেষ করতে বাধ্য হচ্ছি!” এরপরই, ‘হাউহাউ’ করে কেঁদে ফেলেন সৌমিত্র খাঁ। তিনি বলেন, “বিবাহবিচ্ছেদের নোটিশ পাঠাতে বাধ্য হচ্ছি। সারাজীবন বিজেপিতেই থাকব। বিজেপির জন্যই আজ আমি এই জায়গায়। ভালো থেকো সুজাতা, তোমাকে ভালোবাসি। তবে, সুজাতা মণ্ডল হয়ে যা খুশি কর, খাঁ পদবি ব্যবহার করোনা”

thebengalpost.in
গতকাল বীরভূমে সৌমিত্র খাঁ :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে জেলে থেকেও জয়ী হয়েছিলেন সৌমিত্র খাঁ। একা হাতে প্রচারকার্যের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সুজাতা মণ্ডল খাঁ। লড়াকু নেত্রী হিসেবে, তৃণমূল কর্মীদের চোখে চোখ রেখে কথা বলে, সারা রাজ্য জুড়ে রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন। তারপর, সৌমিত্র খাঁ রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতির দায়িত্ব পেলেও, সুজাতা’কে বড় দায়িত্ব দেয়নি দল। এ প্রসঙ্গে দলের সাফাই ছিল, সুজাতা রাজনীতিতে অনভিজ্ঞ! তবে, তৃণমূলে যোগদান করে সুজাতা মণ্ডল খাঁ আজ ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, “বিজেপি যোগ্যদের সম্মান দেয়না। তাই, লড়াকু নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেই ফিরে এলাম, তাঁর সেনানী হিসেবে।” শুভেন্দু প্রসঙ্গেও বলেন, “শুভেন্দু ধান্দাবাজ নেতা। ওকে নেতা বলে মানিনা।” এসবের জন্যই স্বামী সৌমিত্র খাঁ সুজাতা মণ্ডল খাঁ এর উদ্দেশ্যে বলেন, “জ্যোতিষীর কথাতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জ্যোতিষী বলেছিল, তৃণমূলে গেলে ভালো পদ পাবে! বাচ্চা মেয়ে, উচ্চকাঙ্খা ছিল, তাই ভুল করল। বিজেপিতে একসাথে পদ পাওয়া যায়না। কিন্তু, ওকে স্বয়ং অমিত শাহ ভালোবাসতেন। ‌বলতেন, ওই আসল সাংসদ। তারপরও নিজের উচ্চাকাঙ্ক্ষা পূরণে তৃণমূলে যোগদান করল। এরপর একসাথে থাকা যায়না! সুজাতা, আজ থেকে তুমি খাঁ পদবি ব্যবহার করোনা!”

thebengalpost.in
সুজাতা মণ্ডল খাঁ :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে