মানবিকতার হাত বাড়িয়ে মেদিনীপুর! থ্যালাসেমিয়া আক্রান্তদের জন্য রক্তদান, শীতার্তদের কম্বল ও বস্ত্র বিতরণ

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ১১ জানুয়ারি: করোনা আবহে ব্লাড ব্যাংক গুলিতে রক্তের চাহিদা কিছুটা হলেও মেটাতে এবং থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের পাশে দাঁড়াতে মানবিক মুখ নিয়ে এগিয়ে এল, মেদিনীপুর শহরের জগন্নাথ মন্দির চকের সুপ্রাচীন নববীর এ্যাথলেটিক ক্লাব। রবিবার, জগন্নাথ মন্দির চকে ক্লাবের নবনির্মিত ভবনে অনুষ্ঠিত হল, একটি রক্তদান শিবির। এই শিবিরে তিন জন মহিলা সহ মোট তেতাল্লিশ জন রক্তদাতা রক্তদান করেন। এদিনের শিবিরে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা সেলিব্রিটি ক্রিকেট লীগের কোচ সুশীল শিকারিয়া, স্থানীয় এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলর সমাজসেবী সৌমেন খান, ভলান্টারি ব্লাড ডোনার্স ফোরামের জেলা সভাপতি অসীম ধর, শিক্ষক চন্ডীচরণ ত্রিপাঠী সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। ক্লাবের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সম্পাদক আশীষ মাজী, সভাপতি পৃথ্বীশ দাস, কোষাধ্যক্ষ সোমনাথ দত্তসহ ক্লাবের অন্যান্য সদস্যরা ও শুভানুধ্যায়ীরা। এদিন রক্তসংগ্রহ করেন মেদিনীপুর ব্লাড ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। শিবির আয়োজনে সহযোগিতা করেন মেদিনীপুর ভলান্টারি ব্লাড ডোনার্স ফোরাম।

thebengalpost.in
রক্তদান শিবির জগন্নাথ মন্দিরে :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অপরদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শালবনী ব্লকের ভাদুতলা অঞ্চলের সাওড়া গ্ৰামে আদিবাসী জনগোষ্ঠী ও আর্থিক দিক দিয়ে পিছিয়ে থাকা দরিদ্র মানুষদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে অনুষ্ঠিত হল, কম্বল ও পোশাক বিতরণ কর্মসূচী। রবিবার পড়ন্ত বিকেলে, মেদিনীপুর থেকে হেল্পিং হ্যান্ড ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্য সদস্যাগণ বিতরণের উদ্দেশ্যে কম্বল ও শিশুদের জন্য পোশাক নিয়ে পৌঁছে যান প্রত্যন্ত সাওড়া গ্ৰামে। চুণী কোটাল চ্যারিটেবল ট্রাস্টের কর্ণধার মৃনাল কোটালের উপস্থিতি ও সহযোগিতায় এবং অনগ্ৰসর শ্রেণীর মানুষজনের স্বতস্ফুর্ত ও সাগ্ৰহ উপস্থিতিতে শুরু হয় কম্বল ও পোশাক বিতরণ কর্মসূচী। শুরুতে সংস্থার পক্ষ থেকে সামান্য বক্তব্য রাখেন নীলাদ্রি শেখর ব্যানার্জী, সুদীপ্তা দে, রাজশ্রী মন্ডল, পারমিতা গিরি, গৌতম কুমার ভকত, বরুণ কোলে প্রমুখ। সংস্থা’র কার্যকরী সভাপতি রাজশ্রী মন্ডল বিভিন্ন কর্মসূচি সম্পর্কে সকলকে অবহিত করেন ও আগামীদিনে এভাবেই এই প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রান্তজনের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়াও, সংস্থার সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মৌসুমী মান্না, পিন্টু সাউ, রূপা মহাপাত্র, সোড়শী সিংহ, স্বপ্না ভকত। সহযোগিতা ছিলেন সনৎ দে ও ছোট্ট শিশু নন্দিনী ভকত। এদিন, ৫০ জন বৃদ্ধ-বৃদ্ধার হাতে কম্বল ও শিশুদের জন্য পোশাক তুলে দেয়, হেল্পিং হ্যান্ড ওয়েলফেয়ার সোসাইটি। এলাকার সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় এবং আশীর্বাদে আপ্লুত সংস্থা’র সদস্যবৃন্দ।

thebengalpost.in
ইচ্ছেডানার শীতবস্ত্র বিতরণ :

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে, মানবিকতার হাত বাড়িয়ে আবারও এগিয়ে এল, মেদিনীপুর শহরের অন্যতম পরিচিত স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ইচ্ছেডানা। এই শীতের মরসুমে দুঃস্থ মানুষদের মধ্যে উষ্ণতার ছোঁয়া দিতে শনিবার দুপুরে ইচ্ছেডানা পরিবারের সদস্য-সদস্যারা হাজির হয়েছিলেন মেদিনীপুর শহরের কামারআড়া এলাকায়। সেখানে বেশ কিছু দুঃস্থ মানুষের হাতে কম্বল তুলে দেওয়া হয় ইচ্ছেডানার পক্ষ থেকে। এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সভানেত্রী সঙ্ঘমিত্রা জানা, সম্পাদিকা সুস্মিতা কুণ্ডু, সহ-সভাপতি গৌতম দেব, কোষাধ্যক্ষা জয়িতা জানা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ছিলেন পিয়ালী মাইতি, মৌমিতা রাউত, স্বাগতা সাহা, সুদীপ্তা মহাপাত্র, পার্থসারথি দে, শুক্লা চক্রবর্তী, সুতপা সাহা, ঝুমু কর্মকার, সুষমা পাল, তুহিনা পাল, দুহিতা সাহা, সৌমিতা সাহা প্রমুখ সদস্য-সদস্যাবৃন্দ।

thebengalpost.in
হ্যাল্পিং হ্যান্ডের শীতবস্ত্র বিতরণ :

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে