শুভেন্দু’কে ‘পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী’ বলে বহিষ্কৃত কনিষ্ক, রাজীবের ক্ষোভ প্রশমনে উদ্যোগী তৃণমূল

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, কলকাতা, ১৩ ডিসেম্বর: তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত শ্রমিক সংগঠনের অফিস রাতারাতি হয়ে গিয়েছিল, গেরুয়া রঙে রাঙায়িত শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) সহায়তা কেন্দ্রে। শুভেন্দুর খাসতালুক পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি শহরে শুরু হওয়া এই অফিসটির প্রধান উদ্যোক্তা, দলের অন্দরে বরাবরই শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের (TMC) সাধারণ সম্পাদক কনিষ্ক পণ্ডা। গেরুয়া রং এর পাঞ্জাবী পরিহিত কনিষ্ক পণ্ডা গতকাল হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, “যতদিন না নবান্ন থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়’কে (Mamata Banerjee) সরানো হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত এই শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) সহায়তাকেন্দ্র চালু থাকবে। দিদি রেডি হোন। মেদিনীপুরের গামছা পরা, পান্তাভাত খাওয়া ছেলেটা আপনার বিরুদ্ধে লড়বে।” আর, তার পরের দিনই তৃণমূল কংগ্রেস বহিষ্কার করল সেই কনিষ্ক’কে। এখনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি কনিষ্ক পণ্ডা’র।

thebengalpost.in
গেরুয়া রঙে রাঙায়িত শুভেন্দু বাবুর সহায়তা কেন্দ্র :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
thebengalpost.in
গেরুয়া রঙে রাঙায়িত শুভেন্দু বাবুর সহায়তা কেন্দ্র :

প্রসঙ্গত, গত কয়েক মাস ধরেই শুভেন্দু অধিকারী’র অরাজনৈতিক নানা কর্মকাণ্ড বা সভা-সমিতি-মিছিল এর অন্যতম প্রধান কাণ্ডারী কনিষ্ক পণ্ডা। মন্ত্রিত্ব ত্যাগের পর শুভেন্দু অধিকারী’ও দলের সঙ্গে নিজের ব্যবধান স্পষ্ট করেছেন। তারপরই বিরোধিতার সুর চড়িয়েছেন কনিষ্ক পণ্ডা’র মতো অনুগামীরা। শুধু তাই নয়, দলীয় কার্যালয় পৃথক করে নেওয়ার কাজও শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে, বহিষ্কার করা হয়েছে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক গৌতম রায়’কে। আর এবার বহিষ্কার করা হল, পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক কনিষ্ক পণ্ডা’কে। আজ তাঁকে বহিষ্কার করা হয়েছে। অপরদিকে, শুভেন্দু অধিকারী’র পর দলের অপর জনপ্রিয় নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ও দলের বিরোধিতায় সুর চড়িয়েছেন। গতকালই, তিনি হুগলি জেলার কামারপুকুরে রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের জন্মস্থানে গিয়ে এক অরাজনৈতিক মঞ্চে মন্তব্য করেছেন, “যত মত তত পথ…মতের মিল না হলে, অনেক পথ খোলা আছে।” আর, তারপরই আজ তাঁকে নিয়ে বৈঠক করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর। বৈঠক শেষে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “মতপার্থক্য হলে আলোচনা হয়, এরকম আলোচনা ভবিষ্যতেও হবে!” তবে, দুই জনপ্রিয় নেতার গৈরিকীকরণ যে এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা, তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলের বিন্দুমাত্র সন্দেহও নেই!

thebengalpost.in
রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে