অন্তিম যাত্রায় পথে নামল তিলোত্তমা, নেতৃত্বে নিরলস মুখ্যমন্ত্রী, শোকবার্তা অসুস্থ বুদ্ধদেবের, রবীন্দ্রসঙ্গীতে-গান স্যালুটে শেষ বিদায় অ-পরাজিত অপুকে

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট বিশেষ প্রতিবেদন, অমৃতা ঘোষ, ১৬ নভেম্বর: পঞ্চভূতে বিলীন হলেন অ-পরাজিত ‘অপু’। পাড়ি দিলেন পরপারে। অবসান হল বাংলা চলচ্চিত্রের একটি অধ্যায়ের। ১৫ ই নভেম্বর (২০২০) বেলা ১২ টা ১৫ মিনিটে অমরত্ব লাভ করেছেন বাঙালির প্রাণপ্রিয় ‘ফেলুদা’, ‘উদয়ন পণ্ডিত’, ‘ক্ষিদ্দা’ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। মহানায়ক উত্তম কুমারের পর যিনি ছিলেন বাঙালির প্রাণের নায়ক, হৃদয়ের অভিনেতা। ৪০ বছর আগেই (১৯৮০ র ২৪ জুলাই) অবশ্য অমৃতলোকে পাড়ি দিয়েছেন বাঙালির ‘মহানায়ক’ উত্তম কুমার। ২৮ বছর আগে (১৯৯২ এর ২৩ এপ্রিল) স্বর্গযাত্রা করেছেন তাঁদের ‘নায়ক’ রূপে প্রাণ-প্রতিষ্ঠা করার প্রধান রূপকার সত্যজিৎ রায়।

thebengalpost.in
মহাপ্রয়াণ মহানায়কের (রবীন্দ্রসদনে) :

.
.
thebengalpost.in
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অন্তিম যাত্রার নেতৃত্বে :

রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় (১৫ নভেম্বর, ২০২০) অতিমারী’র রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে, তাঁদের প্রিয় অপু বা ফেলুদার অন্তিম যাত্রার সাক্ষী হতে রাস্তায় নেমে এলেন তিলোত্তমার হাজার হাজার সাধারণ মানুষ। রাস্তার দুই ধারে তাঁদের প্রিয় নায়কের ছবি, ফুল ও মালা নিয়ে কাতারে কাতারে সাধারণ মানুষ ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকলেন। আর, শববাহী শকটের সামনে, রবীন্দ্রসদন থেকে কেওড়াতলা মহাশ্মশান পর্যন্ত ১ ঘন্টার পথ হাঁটলেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে অসংখ্য নেতা-মন্ত্রী-শিল্পী ও অনুরাগীরা। মহানায়ক উত্তম কুমারের ঐতিহাসিক শেষ যাত্রার পর এতো আবেগ, এতো উদ্বেলতা, এত আকুলতা কোনো বাঙালি অভিনেতাকে ঘিরে এই প্রথম! করোনা কারণে, স্বাস্থ্যবিধি বা সচেতনতা থাকলেও, সাধারণ মানুষের স্বতোস্ফূর্ত আবেগের ঢেউ কল্লোলিনী কলকাতার রাস্তায় উপচে পড়ল। তবে, কোথাও বিশৃঙ্খলা নেই, অনিয়ম নেই! থাকবেই বা কি করে, তিনি যে ‘হীরক রাজার দেশে’র উদয়ণ পণ্ডিত কিংবা ‘কোনি’ র কঠোর শৃঙ্খলা-পরায়ণ ক্ষিতীশ সিংহ (ক্ষিদ্দা)।

thebengalpost.in
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শেষ যাত্রায় :

.
thebengalpost.in
কেওড়াতলা মহাশ্মশানের সামনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও আমলা-আধিকারিকরা :

বিকেল ৫ টা বেজে ২৭ মিনিটে রবীন্দ্রসদন থেকে তাঁর পুষ্প-সুসজ্জিত স্বর্গীয় দেহ নিয়ে পদযাত্রা শুরু হয়, কেওড়াতলা মহাশ্মশানের দিকে। রবীন্দ্রসদনে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে, অন্তিম যাত্রায় হাঁটলেন বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্র, সুজন চক্রবর্তীরা। আপাদমস্তক, আজীবন বামপন্থী সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শেষ যাত্রার নেতৃত্বে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়, মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, ইন্দ্রনীল সেন, দেব, রাজ চক্রবর্তী প্রমুখদের নিয়ে কালী পুজোর ঠিক পরের সন্ধ্যায় নিরলস পায়ে হেঁটে চললেন শেষ পর্যন্ত। আকাশ-বাতাস মুখরিত কবি-শিল্পী-আবৃত্তিকার-নাট্যকর্মী-অভিনেতা তথা রবীন্দ্রপ্রেমী সৌমিত্র’র প্রিয় রবীন্দ্র সঙ্গীতে। কখনও বা তাঁর নিজেরই ‘গম্ভীরনাদী’ ঐশ্বরিক কণ্ঠে উচ্চারিত গীতবিতান বা সঞ্চয়িতার অমর পংক্তিগুলি! সন্ধ্যে ঠিক ৬ টা ৩৭ মিনিট নাগাদ তাঁর ‘অমর দেহ’ খানি পৌঁছে যায় কেওড়াতলা মহাশ্মশানে। অনুরাগীদের আবেগ সামলাতে বন্ধ করে দেওয়া হয়, প্রধান গেট। তখনও বেজে চলেছে, “আমার এই দেহখানি তুলে ধরো, তোমার ওই দেবালয়ের প্রদীপ করো। নিশিদিন আলোক-শিখা জ্বলুক গানে।”

thebengalpost.in
রবীন্দ্রসদনে শেষ শ্রদ্ধা বামেদের :

thebengalpost.in
কন্যা পৌলমী বসু (চট্টোপাধ্যায়)’র শেষ চুম্বন :

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা নাগাদ পিতৃদেব তথা গুরুদেব সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের কপালে শেষ চুম্বন ছোঁয়ালেন, নাট্যকর্মী কন্যা পৌলমী বসু (চট্টোপাধ্যায়)। রেখে গেলেন, স্ত্রী দীপা চট্টোপাধ্যায় এবং পুত্র সৌগত চট্টোপাধ্যায়’কেও। সঙ্গে, এক আকাশ কীর্তি, বর্ণময় ও সংযত জীবন-যাপনের অমলিন স্মৃতি। এরপর, পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করার পালা! গান স্যালুটে জানানো হল শেষ বিদায়। ইতিপূর্বে, এসে পৌঁছেছে প্রায় দশ বছরের অনুজ, ‘বন্ধুপ্রতিম’ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের শোকবার্তা, “সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যু এক গভীর দুঃখজনক ঘটনা। বাংলা চলচ্চিত্র চিরকাল তাঁর কাছে ঋণস্বীকার করবে। আমি তাঁর পরিবার পরিজনকে সমবেদনা জানাই।”

thebengalpost.in
নিরলস মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা সৌমিত্র কন্যারও :

thebengalpost.in
কেওড়াতলা মহাশ্মশানে গান স্যালুটের আগে :

শোকবার্তা এসে পৌঁছয় সুদূর বাংলাদেশ থেকেও। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লেখেন, “‌প্রতিভাবান এই শিল্পীর মৃত্যুতে অভিনয় জগতে এক বিশাল শূন্যতার সৃষ্টি হল‌! সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় তাঁর সৃষ্টিশীল কর্মের মধ্য দিয়ে মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন।” ‘কিংবদন্তি অভিনেতা’, ‘এক অসাধারণ ব্যক্তিত্ব’ রূপে অভিহিত করে শোকবার্তায় নিজের এবং সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সর্বশেষ সাক্ষাতের (কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে) ছবি সহ টুইট করেন, আরেক জীবন্ত কিংবদন্তি অমিতাভ বচ্চন। স্বচ্ছ বাংলায় গভীর শোক প্রকাশ করে ইতিমধ্যেই টুইট করেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, রেলমন্ত্রী পীযুশ গোয়েল থেকে শুরু করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় সহ দেশ ও রাজ্যের শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিত্বরা।

শেষ শয্যায় শায়িত সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, বিদায় অ-পরাজিত অপু :

thebengalpost.in
বিজ্ঞাপন :

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে