জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ সহ ষষ্ঠীর রাতে মেদিনীপুর শহরে সংক্রমিত ২২

thebengalpost.in
ষষ্ঠীর রাতে মেদিনীপুর শহরে দর্শনার্থীদের ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি, পরিস্থিতি ছিল নিয়ন্ত্রণে :
.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৩ অক্টোবর: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে প্রাপ্ত, বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) রাতের করোনা রিপোর্ট অনুযায়ী, জেলায় নতুন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ১৩৮ জন। এর মধ্যে, মেদিনীপুর শহরে ষষ্ঠীর রাতে সংক্রমিত হয়েছেন ২২ জন। এই তালিকায় আছেন, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা পরিষদের কৃষি ও সেচ কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি। যদিও, বর্তমানে তিনি মেদিনীপুর শহরে নয়, দাঁতনে নিজের গ্রামের বাড়ি তথা নির্বাচনী এলাকাতেই আছেন। স্বল্প উপসর্গযুক্ত হওয়ায় তিনি গৃহ নিভৃতবাসেই আছেন বলে জানা গেছে। বুধবার থেকে তাঁর সামান্য জ্বর হয়েছিল বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে, তিনি তাঁর নমুনা দেন করোনা পরীক্ষার জন্য। বৃহস্পতিবার রাতে সেই রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলে জানা যায় জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার রাজনীতিতে এই মুহূর্তে অন্যতম শুভেন্দু অধিকারী ঘনিষ্ঠ ও ‘দাদার অনুগামী’ হিসেবে পরিচিত রমাপ্রসাদ গিরি’র ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত তিনি মেদিনীপুর শহরেই ছিলেন। ছুটি পড়ে যাওয়ায়, বুধবার তিনি দাঁতনে নিজের গ্রামের বাড়িতে যান, সেখানেই তিনি সামান্য জ্বর অনুভব করায়, বৃহস্পতিবার করোনা পরীক্ষা করানোর সিদ্ধান্ত নেন। আপাতত তিনি দাঁতনেই হোম আইশোলেশনে আছেন এবং সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে। এদিকে, ষষ্ঠীর রাতে (২২ অক্টোবর), মেদিনীপুর শহরের এক অভিজ্ঞ (বয়স- ৫৮) স্ত্রী ও প্রসূতি রোগ বিশেষজ্ঞের (Gynecologist) করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলেও জানা গেছে। তিনি, মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের স্ত্রী রোগ ও প্রসূতি বিভাগের একজন সিনিয়র চিকিৎসক। তিনিও স্বল্প উপসর্গযুক্ত বলে জানা গেছে।

thebengalpost.in
জেলা পরিষদের কৃষি ও সেচ বিষয়ক কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি করোনা সংক্রমিত হলেন :

.
.

এছাড়াও, ষষ্ঠীর রাতে মেদিনীপুর শহরে আরো ২০ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এই তালিকায়, শহরের নান্নুরচকের এক বৃদ্ধ দম্পতি (৬৭ ও ৬০) এবং মানিকপুরের এক দম্পতি (৪২ ও ৩৪) আছেন বলে জানা যায় স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে। এছাড়াও, সিপাই বাজারের একই পরিবারের ২ জন (৬০ ও ৩৫ বছরের দুই মহিলা) করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বৃহস্পতিবার। অপরদিকে, রবীন্দ্রনগর (৪০ বছরের মহিলা), বিধাননগর (৪৩ বছরের মহিলা), অশোকনগর (২৫ বছরের যুবক), তাঁতিগেড়িয়া (৫৭ বছরের ব্যক্তি), বল্লভপুর (৫৮ বছরের ব্যক্তি), পুলিশ লাইন (৪৫ বছরের ব্যক্তি), মীরবাজার (৪৬ বছরের মহিলা), ধর্মা (৫৭ বছরের ব্যক্তি), আবাস (২০ বছরের যুবক) ও কুইকোটা (২৬ বছরের যুবক) এলাকায় ১ জন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়াও, কোতোয়ালী থানা এলাকায় আরো ৪ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ষষ্ঠীর রাতে। তবে, মেদিনীপুর শহরের সার্বিক করোনা পরিস্থিতি এখনো পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণেই আছে বলে ওয়াকিবহাল মহলের ধারনা। একইসাথে, মহা ষষ্ঠী পর্যন্ত সাধারণ মানুষ তথা শহরবাসী যেভাবে সংযম ও সচেতনতার প্রর্দশন করেছে, সেভাবেই বজায় থাকলে শহরের সংক্রমণ নিয়ে দুঃশ্চিন্তার পরিবেশ তৈরি হবেনা বলেই মনে করা হচ্ছে।

thebengalpost.in
ষষ্ঠীর রাতে মেদিনীপুর শহরে দর্শনার্থীদের ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি, পরিস্থিতি ছিল নিয়ন্ত্রণে :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে