এবার করোনা সংক্রমিত ঘাটালের সার্কেল ইন্সপেক্টর! মেদিনীপুর, খড়্গপুর, শালবনী, গড়বেতা সহ গত দু’দিনে ১৪৪ জন করোনা আক্রান্ত জেলায়, রাজ্যে সংক্রমিত প্রায় ৪০০০

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৮ অক্টোবর: এবার করোনা সংক্রমিত হলেন, ঘাটালের সার্কেল ইন্সপেক্টর (সিআই) দেবাশিস ঘোষ (৫৫)। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে প্রাপ্ত মঙ্গলবার রাতের রিপোর্ট অনুযায়ী, ঘাটাল তথা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার শীর্ষস্থানীয় এই করোনা যোদ্ধার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। সামান্য উপসর্গ থাকায়, সোমবার (২৬ অক্টোবর) তিনি নিজের করোনা পরীক্ষা (আরটি-পিসিআর) করিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাতে সেই রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবে, তিনি সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগে ঘাটাল থানার ওসি দেবাংশু ভৌমিক সহ ঘাটাল মহকুমার একাধিক পুলিশ কর্মী তথা করোনা যোদ্ধা সংক্রমিত হয়েছেন। বর্তমানে প্রায় সকলেই সুস্থ হয়ে ফের করোনা যুদ্ধে সামিল হয়েছেন। এদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায়, অর্থাৎ মঙ্গলবার রাতে পশ্চিম মেদিনীপুরে নতুন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৯৩ জন। এর মধ্যে, আরটি-পিসিআর অনুযায়ী ৬৭ জন, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন অনুযায়ী ২০ জন এবং ট্রুনেট অনুযায়ী ৬ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এর আগে, সোমবার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল মাত্র ৫২ জনের। র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে ৪৫ জন এবং আরটি-পিসিআরে মাত্র ৭ জন সংক্রমিত হয়েছেন বলে জানা গেছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে। জেলায় এই মুহূর্তে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩৫৩১। ৯১.৫ শতাংশ হারে সুস্থ হয়েছেন ১২৩৮৫ জন। চিকিৎসাধীন আছেন মাত্র ৯৫১ জন। এর মধ্যে, করোনা হাসপাতাল ও সেফ হোমে আছেন ২৩০ জন। উপসর্গহীন ৭২১ জন আছেন গৃহ নিভৃতবাসে ‌ তবে, গত আটচল্লিশ ঘণ্টায় পশ্চিম মেদিনীপুরে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬ জনের। এর ফলে মোট মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯৫ জন।

thebengalpost.in
করোনা সংক্রমিত হলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার আরো এক শীর্ষস্থানীয় করোনা যোদ্ধা, দেবাশিস ঘোষ (সিআই,‌ঘাটাল) :

.
.

এদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায় সংক্রমিত ৯৩ জনের মধ্যে ঘাটালের শীর্ষস্থানীয় করোনা যোদ্ধা তথা সিআই দেবাশিস ঘোষ সহ মহকুমায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২। এর মধ্যে, ঘাটাল পৌরসভা এলাকায় ৪ জন, গ্রামীণ এলাকায় ৩ জন, ক্ষীরপাই পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডে ১ জন এবং দাসপুর ১ ও ২ মিলিয়ে ১২ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। অপরদিকে, গড়বেতা থানা এলাকায় ফের ৯ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এর মধ্যে, গড়বেতায় ২ জন, পানিকোটর, গনগনি ও গারাঙ্গা-তসরগেড়িয়ায় ১ জন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। পিয়াসালাতে একই পরিবারের ২ জন এবং মোলডাঙ্গা তে এক বৃদ্ধ দম্পতি (৭৩ ও ৬২) করোনা সংক্রমিত হয়েছে। এছাড়াও, সবংয়ে ২ জন এবং দাঁতনে ১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে আরটি-পিসিআর অনুযায়ী। অপরদিকে, শালবনী ব্লকের সাতপাটী গ্রামের এক ব্যক্তি (৪৯) এবং গোবরু’র এক ব্যক্তি (৪৬) র করোনা রিপোর্টও পজিটিভ এসেছে মঙ্গলবার রাতের আরটি-পিসিআর রিপোর্ট অনুযায়ী।

thebengalpost.in
উৎসব পরবর্তী মেদিনীপুরে করোনা আক্রান্ত হলেন ১৫ জন :

.

অন্যদিকে, খড়্গপুরে রেল সূত্রে ১ জন সহ মোট ৯ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন আরটি-পিসিআর অনুযায়ী। এর মধ্যে নিমপুরা’র সুষমাপল্লীতে একটি পরিবারের ৩ জন (বাবা ৫০, মা ৪০ ও কন্যা ১৮) ছাড়াও ইন্দা, খরিদা, পাঁচবেড়িয়া, লিটল সিস্টার আবাসন ও ঝাপেটাপুর এলাকায় ১ জন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এদিকে, উৎসব পরবর্তী মেদিনীপুর শহরে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ জন। কুইকোটা তে ৩ জন (৪৫ পুরুষ, ৩৭ পুরুষ, ৩৫ মহিলা) এবং মানিকপুরে একই পরিবারের দুই ব্যক্তি (৪৫ ও ৩০) করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়াও, মহতাবপুর (৪২ পুরুষ) মধুসূদননগর (৩৫ পুরুষ), বার্জটাউন (৪৪ মহিলা), তাঁতিগেড়িয়া (৬৩ প্রৌঢ়) বাড়মানিকপুর-সুদামপুকুরপাড় (৫৪ পুরুষ), বিধাননগর (৫০ মহিলা), গোলকুঁয়ারচক (৩২ বছরের যুবক) প্রভৃতি এলাকায় ১ জন করে এবং বাড়ুয়া সহ কোতোয়ালী থানার অন্তর্গত আরো ৩ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন মঙ্গলবার রাতের ‌আরটি-পিসিআর অনুযায়ী। র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট (Rapid Antigen Test) এবং বেসরকারি হাসপাতালের ট্রুনেট (Truenat) অনুযায়ী জেলায় যে ২৬ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন, তাঁদের সঠিক ঠিকানা জানা যায়নি। তবে, আরটি-পিসিআরের ৬৭ জন সহ গত চব্বিশ ঘণ্টায় পশ্চিম মেদিনীপুরে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৯৩ জন এবং করোনা মুক্ত হয়েছেন শতাধিক মানুষ।

thebengalpost.in
সংক্রমিত খড়্গপুর, ঘাটাল, গড়বেতা, শালবনীতেও :

এদিকে, গত চব্বিশ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা সংক্রমণ সামান্য কমেছে। ৪১০০-৪২০০ থেকে সামান্য কমে, মঙ্গলবার রাতের করোনা বুলেটিন অনুযায়ী সংক্রমিতের সংখ্যা ৩৯৫৭। গত চব্বিশ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৫৮ জনের। মোট মৃত্যু’র সংখ্যা ৬৬০৪। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩,৫৭,৭৭৯। ৮৭.৭৬ হারে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩,১৪,০০৩ জন। চিকিৎসাধীন আছেন ৩৭,১৭২ জন, যার মধ্যে অনেকেই (প্রায় ৯০ শতাংশ) উপসর্গহীন বা স্বল্প উপসর্গ যুক্ত বলে জানা গেছে। যদিও, সারা দেশে এবং বিভিন্ন রাজ্যে দৈনিক গড় সংক্রমণ অনেকটাই কমেছে। সেই তুলনায়, এই মুহূর্তে পশ্চিমবঙ্গের দৈনিক গড় সংক্রমণ এবং মৃত্যু’র সংখ্যা মহারাষ্ট্রের ঠিক পরেই। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে সেই চিত্রটা আরো সঠিকভাবে পরিস্ফুট হবে। এদিকে, ইতিমধ্যেই কেন্দ্র সরকার আনলক ৫ এর নির্দেশিকা ৩০ নভেম্বর, ২০২০ পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে।

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে