BREAKING: ধরা পড়ল মেদিনীপুর সেন্ট্রাল জেল থেকে পলাতক এক আসামী, অপরজনের খোঁজে চলছে জোর তল্লাশি

thebengalpost.in
জেল থেকে উদ্ধার হওয়া ১৮ ফুটের আঁকশি (মেদিনীপুর কোতোয়ালী থানা) :
বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর ও উঃ ২৪ পরগণা, ২ ডিসেম্বর: পশ্চিম মেদিনীপুরের ‘মেদিনীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার’ (Midnapore Central Correctional Home) থেকে পলাতক, যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামী’কে উত্তর ২৪ পরগণার বীজপুর থেকে মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপরজনের খোঁজেও চলছে জোর তল্লাশি! প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সোমবার সন্ধ্যা নাগাদ মেদিনীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের ৯ নং ওয়ার্ড থেকে পালিয়ে যায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বন্দী মিঠুন দাস (৩৫) এবং মনোজিৎ বিশ্বাস ওরফে রাজু (৩১)। দু’জনের বাড়ি যথাক্রমে- বারাসতের নিবেদিতা পল্লী এবং উল্টোডাঙার বাসন্তী কলোনীতে। দু’জনেই খুনের মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বন্দী। মাস ছয়েক আগে, গত ২৫ মে কারা দপ্তরের নির্দেশে দমদম কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার থেকে এদের পাঠানো হয়েছিল মেদিনীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে। সোমবার (৩০ নভেম্বর), সন্ধ্যার আগে সংশোধনাগারের উত্তর দিকের প্রাচীর টপকে পালিয়ে যায় তারা। সন্ধ্যে ৬ টা নাগাদ, বন্দীদের হিসেব মেলাতে গিয়ে বিষয়টি নজরে আসে কর্তৃপক্ষের। তারপর থেকেই, সারা মেদিনীপুর শহর জুড়ে পুলিশের নাকা তল্লাশি শুরু হয়। বারাসাত, উল্টোডাঙা সহ কলকাতার প্রতিটি থানাকে অ্যালার্ট করে দেওয়া হয়। অবশেষে, প্রায় ২৪ ঘন্টারও বেশি সময় পরে এল সাফল্য! উল্টোডাঙার মনোজিৎ বিশ্বাস (রাজু) কে উত্তর ২৪ পরগণার বীজপুর থেকে পাকড়াও করল পুলিশ।

thebengalpost.in
ধৃত আসামী মনোজিৎ বিশ্বাস :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
thebengalpost.in
জেল থেকে উদ্ধার হওয়া ১৮ ফুটের আঁকশি (মেদিনীপুর কোতোয়ালী থানা) :

উল্লেখ্য যে, ২০১১ সালে বারাসতের রাজীব দাস খুনের ঘটনায় মনোজিৎ বিশ্বাস ও মিঠুন দাস নামে দুই যুবককে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। সেই খুনের ঘটনায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দন্ডিত হয়ে, প্রথমে দমদম সংশোধনাগারে এবং তারপরে মেদিনীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে বন্দী ছিল ওই দুই অভিযুক্ত। সোমবার সন্ধ্যায় পাঁচিল টপকে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনার তদন্তে নেমে, কোতোয়ালী থানার পুলিশ এবং কারারক্ষী বাহিনী একটি ১৮ ফুটের আঁকশি বা বড় লাঠি আবিস্কার করে। মঙ্গলবার দুপুরে তদন্তে গিয়ে, জেলের দেওয়াল থেকে আঁকশিটি উদ্ধার করে, কোতোয়ালী থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। এই ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে, জেলের ভেতরে এত বড় আঁকশি সবার নজর এড়িয়ে কিভাবে তৈরি হল। জেলের ভিতরে, গাছের ডাল জোড়া লাগিয়ে এবং লোহার রড ব্যবহার করে এই আঁকশিটি তৈরি করা হয়েছিল বলে জানা গেছে। এই ঘটনায়, সংশোধনাগারের চিফ কন্ট্রোলার, জেলার সহ তিন জনকে সাসপেন্ড করেছে কারা দপ্তর। দায়িত্বে থাকা ৩ জন রক্ষীকেও শোকজও করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কারা দপ্তর। আর এসবের মধ্যেই, অবশেষে এক পলাতককে (আসামী’কে) গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। আর, এ সবের মধ্যেইবীজপুর থানার পুলিশ কাঁচরাপাড়ার চারাপোল এলাকা থেকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, ধরে ফেলে এক অভিযুক্ত মনোজিৎ বিশ্বাস ওরফে রাজু (৩১) কে। অপর অভিযুক্ত মিঠুনের (৩৫) খোঁজে জোর তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

thebengalpost.in
মনোজিৎ বিশ্বাস (ফাইল ছবি):

thebengalpost.in
মিঠুন দাস (ফাইল ছবি) :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে