মেদিনীপুরের বিজয়া সম্মিলনীতে আমন্ত্রিত শুভেন্দু, পুরুলিয়ায় ‘গেরুয়া কার্ডে’ রাজস্থানী পাগড়িতে ‘দাদা’র ছবি !

thebengalpost.in
জননেতা শুভেন্দু অধিকারী :
.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট বিশেষ প্রতিবেদন, সমীরণ ঘোষ, ৩১ অক্টোবর: মেদিনীপুরে ‘ক্লাব সমন্বয় কমিটি’র বিজয়া সম্মিলনী’তে আজ (৩১ অক্টোবর) বিকেলে উপস্থিত থাকতে পারেন পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তবে, অরাজনৈতিক এই অনুষ্ঠানে তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রী হিসেবে নয়, প্রিয় ‘দাদা’ হিসেবেই আসতে পারেন তিনি। আয়োজক নেতৃত্বের বেশিরভাগ জনই “দাদার অনুগামী” হিসেবে পরিচিত। ‘ক্লাব সমন্বয় কমিটি’র পক্ষ থেকে অন্যতম ‘দাদার অনুগামী’ তথা জেলা ও শহর তৃণমূলের অন্যতম শীর্ষ নেতা স্নেহাশিস ভৌমিক জানিয়েছেন, “দাদাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আজ বিকেলে আসতেও পারেন!” প্রসঙ্গত, পুজোর আগে আয়োজকদের বস্ত্রদান অনুষ্ঠান উপলক্ষে শুভেন্দু অধিকারী’র আসার কথা থাকলেও, ওই দিনের অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছিল বিভিন্ন কারণে। তবে, তার পরিবর্তে, ১৮ অক্টোবর তিনি নেতাইয়ের কর্মসূচিতে নিজের অনুগামীদের নিয়ে উপস্থিত ছিলেন। এবার, আজকের অরাজনৈতিক সভাতেও তাঁর উপস্থিতি এবং গতিবিধি নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ হতে পারে!

thebengalpost.in
শুভেন্দু অনুগামীদের হোর্ডিং মেদিনীপুরে :

.
.

ইতিমধ্যে, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া সহ জঙ্গলমহল এবং দক্ষিণবঙ্গের বিশাল অংশ জুড়ে জননেতা ও সমাজসেবী শুভেন্দু’র ফ্লেক্স, হোর্ডিংয়ে ভরে গেছে। করোনা মুক্ত হওয়ার পর, এমনকি পুজোর পরও যে সমস্ত মঞ্চে তিনি উঠেছেন এবং বক্তৃতা দিয়েছেন, সেখানে তৃণমূল কংগ্রেস কিংবা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামগন্ধও নেই! উল্টে শ্লেষাত্মক ভঙ্গিতে আক্রমণ আছে। শুভেন্দু’কে আক্রমণ করতে ছাড়েননি পূর্ব মেদিনীপুরে তার কট্টর বিরোধী বলে পরিচিত, বিধায়ক অখিল গিরি’ও। অপরদিকে, সবথেকে তাৎপর্যপূর্ণ হল, রাজ্য তৃণমূলের কো-অর্ডিনেটর তথা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম পূর্ব মেদিনীপুরে গিয়েই পরোক্ষে শুভেন্দু অধিকারী’কে আক্রমণ করার বিষয়টি। ‘কবিগুরু’র উদ্ধৃতি টেনে ফিরহাদ বলেন, “পথ ভাবে আমি দেব, রথ ভাবে আমি, মূর্তি ভাবে আমি দেব, হাসেন অন্তর্জামী!” এই উক্তিতে, দলীয় কর্মসূচি থেকে সন্তর্পনে নিজেকে সরিয়ে নেওয়া অবিভক্ত মেদিনীপুরের জনপ্রিয় নেতা শুভেন্দু অধিকারীর প্রতিই যে আক্রমণ শানানো হয়েছে, তা বুঝতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন নেই। এই মন্তব্য প্রসঙ্গে, শুভেন্দু অধিকারী এখনো কিছু না বললেও, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমকে শিশির অধিকারী জানিয়েছেন, ফিরহাদের এই মন্তব্যের ব্যাখ্যা উনি নিজেই করতে পারবেন। এর মধ্যেই, আগুনে ঘৃতাহুতির মতোই, পুরুলিয়া থেকে খবর পাওয়া গেল, আগামী ৭ ই নভেম্বর “দাদার অনুগামী”রা বিজয়া সম্মিলনী করতে চলেছেন, তার আমন্ত্রণপত্র করা হয়েছে গেরুয়া রং এর! আর, ‘দাদা’র ছবিটিও বেশ ইঙ্গিতবাহী। রাজস্থানি পাগড়ি পরিহিত শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দেওয়া হয়েছে আমন্ত্রণপত্রে।

thebengalpost.in
জননেতা ও সমাজসেবক শুভেন্দু অধিকারী নেতাইয়ে :

.

যদিও, পুরুলিয়ার এই অনুষ্ঠানের অন্যতম উদ্যোক্তা, জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক গৌতম রায় মন্তব্য করেছেন, “আমরা তৃণমূলেরই সৈনিক। কিন্তু, দলের নামে কর্মসূচি করলে দলের অনুমতি নিতে হয়। সরাসরি দল করেন না, এ রকম অনেকেই ইচ্ছে থাকলেও সেখানে যেতে পারেন না। তাই দাদার ফ্যান ক্লাবের সদস্যেরা এই নামে আয়োজন করেছেন। এই ব্যানার বিভিন্ন ব্লকেও লাগানো হচ্ছে।’” তাঁদের দাবি, শুভেন্দুও ওই দিন থাকতে পারেন। অপরদিকে, তৃণমূলের পুরুলিয়া জেলা কমিটির চেয়ারম্যান তথা রাজ্যের মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো শুক্রবার বলেন, “শুভেন্দুবাবুর ছবি দেওয়া আমন্ত্রণপত্র ছড়িয়ে বিজয়া সম্মেলনের আয়োজন হয়েছে বলে খবর নেই।” বিজেপি’র জেলা সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তীর দাবি, ‘”তৃণমূলের অনেকেরই মোহভঙ্গ হয়েছে।!” তবে, এই বিষয়ে শুভেন্দু অধিকারী’র মন্তব্য এখনো পাওয়া যায়নি। তাঁর ঘনিষ্ঠ, নন্দীগ্রাম বিধানসভা কমিটির চেয়ারম্যান মেঘনাদ পালের বক্তব্য, “একেবারেই অরাজনৈতিক কর্মসূচি। তাই হয়তো উদ্যোক্তারা চেয়েছেন শুভেন্দুবাবুর মন্ত্রী বা ওই ধরনের পরিচয়ের বদলে তাঁর জননেতার ভাবমূর্তি সামনে রাখতে।” তাঁর ব্যাখ্যা, গেরুয়া রং ব্যবহারও উদ্যোক্তাদের একান্ত নিজস্ব পছন্দ!

thebengalpost.in
শুভেন্দু অধিকারী আজ মেদিনীপুরে ?

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে