খুশির দিনেই গায়ে আগুন! মেদিনীপুর শহরে প্রৌঢ়ার আত্মহত্যা কি মানসিক অবসাদেই? তদন্তে পুলিশ

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ২০ অক্টোবর:করোনা মুক্ত হয়ে এদিনই বাড়ি ফিরে আসার কথা, বাড়ির বড় বউমা’র। সেই প্রস্তুতিই চলছিল সকাল থেকে। হঠাৎ দুপুরে ছন্দপতন! খুশির দিনে, গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করলেন বৃদ্ধা শাশুড়ি। সোমবার দুপুরে, ঘটনাটি ঘটেছে মেদিনীপুর শহরের নেপালিপাড়া এলাকায়। জানা গিয়েছে, এদিনই করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরছেন বউমা। এই খুশির দিনেই অগ্নিদগ্ধ হয়ে বৃদ্ধা মায়ের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ পরিবার!

thebengalpost.in
মেদিনীপুর শহরে এক প্রৌঢ়ার অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু :

.
.

প্রসঙ্গত, দিন সাতেক আগে, করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন বাড়ির বড় বউ’মা। সোমবারই (১৯ অক্টোবর) বাড়ি ফেরার কথা তাঁর। সকাল থেকে চলছিল তারই প্রস্তুতিও। এরমধ্যে ঘটল অঘটন! হঠাৎ বাথরুম থেকে ধোঁয়া দেখে, ছুটে আসে বাড়িতে থাকা ছোট বউমা। প্রতিবেশীদের ডাকাডাকি করেও শেষ রক্ষা হয়নি! ততক্ষনে, সম্পূর্ণ অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে বিজলী রাণী দে’র (৭২)। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় মেদিনীপুর কোতোয়ালী থানার পুলিশ। বাথরুম থেকে দেহ’টি উদ্ধার করে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয় ময়নাতদন্তের জন্য। মৃতের ছেলে অর্ণব কুমার দে বলেন, “সকালে মাকে স্নান করিয়ে চা বিস্কুট খাইয়ে কাজে বেরিয়ে ছিলাম। মাকে দেখভালের জন্য বাড়িতে লোক রাখা ছিল। আমাদের বাড়িতে কোনোও ঝামেলা ছিলনা! কেন এমন করলেন, কিছু বুঝতে পারছিনা।’ পুলিশ ও পরিবারের সদস্যদের প্রাথমিক অনুমান মানসিক অবসাদের জেরেই এই ঘটনা ঘটিয়েছেন ওই প্রৌঢ়া। গোটা ঘটনারই তদন্ত শুরু করেছে কোতোয়ালী থানার পুলিশ।

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে