‘টিকটক’, ‘হ্যালো’র বিকল্প অ্যাপ উপহার দিল মেদিনীপুর, দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়া প্রিয়াংশু’র কীর্তিতে মুগ্ধ সারা দেশ

Advertisement

মণিরাজ ঘোষ, মেদিনীপুর, ৩০ জুন : গতকাল (২৯ জুন)’ই কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক ৫৯ টি চিনা অ্যাপস’কে ব্যান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একদিকে, চীনকে উপযুক্ত শিক্ষা দেওয়ার তাগিদ, অন্যদিকে, “আত্মনির্ভর ভারত” স্লোগানকে সার্থকতা দেওয়ার জন্যই প্রতিটি ক্ষেত্রে ভারত স্ব-নির্ভর হতে চেয়েছে আজ থেকেই। ভারতীয় সেনাদের উপর চীনের অতর্কিত হামলায় এমনিতেই সারা দেশ এখন চীনের প্রতি গভীর ক্ষোভ ও চরম ঘৃণা লালন করছে! মেদিনীপুরও তার ব্যতিক্রম নয়। কিছুদিন আগেই (২৬ জুন), ভারতের আর এক শত্রু দেশ আর চীনের মিত্র দেশ পাকিস্তানের পরোক্ষ ইন্ধন পাওয়া জঙ্গিদের হামলায় প্রাণ গেছে মেদিনীপুরের (সবংয়ের সিংপুরের) বীর সন্তান শ্যামল কুমার দে’র। আর সবমিলিয়ে, জঙ্গি, পাকিস্তান কিংবা চীনকে প্রতিটি পদক্ষেপে উপযুক্ত জবাব দেওয়ার জন্য মুখিয়ে আছে, মেদিনীপুর তথা সারা বাংলা কিংবা সারা দেশ। আজ (মঙ্গলবার) সকালে, মেদিনীপুরের এক স্কুল পড়ুয়া চীনা সংস্থা’র জনপ্রিয় অ্যাপ “টিক টক”, “হ্যালো” , “ভিগো ভিডিও’ প্রভৃতির বিকল্প হিসেবে “ইনোসেন্স” (Inosens) নামে একই ধরনের বৈশিষ্ট্য যুক্ত যে অ্যাপ তৈরি করেছিল, তা অফিসিয়ালি লঞ্চ করল।

Advertisement
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
ইনোসেন্স :

মেদিনীপুরের ডিএভি পাবলিক স্কুলের দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়া প্রিয়াংশু সিং লকডাউনের মধ্যেই তৈরি করে ফেলেছে, ‘ইনোসেন্স’ (Inosens) নামে এই দেশি অ্যাপ। অ্যাপটি সাইবার নিরাপত্তাও (cyber security) সুনিশ্চিত করছে বলে জানা গেছে। আজ এই অ্যাপ উদ্বোধন করলেন, মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ। কলকাতা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি এই অ্যাপ উদ্বোধন করলেন এবং কিশোর প্রিয়াংশু’কে বাহবা দিয়ে বললেন, “এভাবেই আত্মনির্ভর ভারত এগিয়ে যাবে।”

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
প্রিয়াংশু সিং এবং অ্যাপের উদ্বোধক সাংসদ দিলীপ ঘোষ  :

আর, আত্মনির্ভর ভারতের আগামী প্রজন্মের এক উজ্জ্বল ধ্রুবতারা প্রিয়াংশু বললেন, “লকডাউনে বাড়িতে বসেই এই ধরনের অ্যাপ বানানোর পরিকল্পনা মাথায় আসে। টিকটক ও হ্যালো থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই এই ইনোসেন্স নামক দেশি অ্যাপটি তৈরি করেছি। এই অ্যাপে সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে।” আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যেই প্লে-স্টোর থেকে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে বলেও জানানো হয়েছে।
দ্য বেঙ্গল পোস্ট