করোনা আক্রান্ত খড়্গপুর পৌরসভার বিদায়ী ভাইস-চেয়ারম্যান শেখ হানিফ সহ ৩ জন, মৃত্যু হল করোনা আক্রান্ত তৃণমূল বিধায়ক তমোনাশ ঘোষের

Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন, মণিরাজ ঘোষ, ২৪ জুন : খড়্গপুর পৌরসভার সদ্য প্রাক্তন (বিদায়ী) ভাইস-চেয়ারম্যান শেখ হানিফের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজেটিভ এলো গতকাল (মঙ্গলবার) গভীর রাতে। শেখ হানিফ খড়্গপুর পৌরসভার বর্তমান ৬ সদস্যের প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য। সোমবার অবধি তিনি বিভিন্ন জায়গায় গেছেন এবং নানা গুরুত্বপূর্ণ মিটিং ও যোগ দিয়েছেন। তাই তাঁর পজেটিভ রিপোর্টে পৌরসভার অন্যান্য প্রাক্তন কাউন্সিলর সহ আধিকারিকদের মধ্যেও চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। তবে, আশার কথা হলো শেখ হানিফের শরীরে বিশেষ উপসর্গ নেই। তাই, তাঁকে হোম আইসোলেশনে রেখেই চিকিৎসা করা হবে বলে জানা যায়। বুধবার সকাল থেকেই তিনি হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন।

Advertisement
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
সেখ হানিফের চেম্বার :

উল্লেখ্য যে, মঙ্গলবার গভীর রাতে খড়্গপুরের পাঁচবেড়িয়ার (৪ ও ৫ নং ওয়ার্ড) ৩ জন ব্যক্তির করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। শেখ হানিফ ছাড়াও ওই এলাকার আরো দু’জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এই এলাকা অন্যতম করোনা এফেক্টেড জোন হিসেবে চিহ্নিত। এর আগে এই এলাকার দুই ব্যক্তির মৃত্যুও হয়েছে করোনা আক্রান্ত হয়ে। তাই, রেনডম টেস্ট করার জন্য এই এলাকার ৫৩ জনের নমুনা সংগৃহীত হয়েছিল, যার মধ্যে বিদায়ী ভাইস-চেয়ারম্যানও ছিলেন। মঙ্গলবার সকালে ১৫ জনের রিপোর্ট অমীমাংসিত (Inconclusive) এসেছিল। চিন্তা ছিল তখন থেকেই! অবশেষে গভীর রাতে ৩ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এল। আপাতত যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে প্রশাসন ও স্বাস্থ্য ভবনের পক্ষ থেকে।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ :

এদিকে, আজ সকালেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করে জানিয়েছেন, তাঁদের ২৫ বছরের রাজনৈতিক সঙ্গী, বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ তাঁদের ছেড়ে চলে গেছেন! উল্লেখ্য যে, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ফলতা বিধানসভার তিন বারের বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ গত একমাস ধরে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তবে, তাঁর শরীরে অন্যান্য জটিলতা বা কো-মর্বিডিটিও ছিল। ডায়াবেটিস, লিভার ও কিডনির সমস্যা ছিল, তাই প্রথম থেকেই অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল, সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের এই কোষাধ্যক্ষের। এ নিয়ে ঘনিষ্ঠ মহলে মুখ্যমন্ত্রী উদ্বেগ প্রকাশও করেছিলেন। তমোনাশ বাবুর পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা করোনা আক্রান্ত হলেও তাঁরা ইতিমধ্যে সুস্থ হয়ে গেছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে, পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন। দুই মেয়ে ও স্ত্রী’কে রেখে গেলেন প্রয়াত বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
মুখ্যমন্ত্রীর টুইট :