মাত্র পাঁচ দিনে পাঁচ বছরের এক শিশু সহ ৭ জন’কে করোনা মুক্ত করে সাফল্যের পথচলা শুরু শালবনী সুপার স্পেশালিটি’র

Advertisement

মণিরাজ ঘোষ, শালবনী, ২২ জুন : অনেক বিতর্ক আর বিক্ষোভ শেষে, গত ১৭ জুন থেকে করোনা হাসপাতাল হিসেবে পথচলা শুরু করেছিল, শালবনী সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল। মাত্র পাঁচ দিনে পাঁচ বছরের এক শিশুকন্যা সহ ৭ জন’কে করোনা মুক্ত করে সাফল্যের সাথেই এগোনো শুরু করল, শালবনী সুপার স্পেশালিটি তথা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার একমাত্র লেভেল ফোর করোনা হাসপাতাল। সোমবার (২২ জুন) একসাথে ৭ জন করোনা আক্রান্ত’কে সুস্থ করে ছুটি দেওয়া হল। এই করোনা-মুক্ত’দের তালিকায় ৫ বছরের এক শিশুকন্যাও আছে।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
করোনা মুক্ত :

উল্লেখ্য যে, গত ১৭ জুন থেকে, করোনা চিকিৎসার পরিষেবা শুরু করেছিল শালবনী সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল। এই পাঁচ দিনে ২১ জন করোনা আক্রান্ত ভর্তি হয়েছিলেন এই হাসপাতালে। এর মধ্যে আজ ৭ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাওয়ার পর, ১৪ জন এখনো চিকিৎসাধীন বলে জানা গেছে স্বাস্থ্য দপ্তর ও হাসপাতাল সূত্রে। আজ যে ৭ জন সুস্থ হলেন, তার মধ্যে ৬ জনই দাসপুর থানার বাসিন্দা। এর মধ্যে একজন মা ও তাঁর ৫ বছরের ফুটফুটে শিশুকন্যাও আছে। সকলেই সম্পূর্ণ সুস্থ। আজ তাদের রীতিমতো সংবর্ধনা দিয়ে, আগামী কয়েকদিনের স্বাস্থ্য-সম্বন্ধীয় বিধিনিষেধ ও আগামীদিনের সুষম খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে ছাড়া হয়েছে হাসপাতাল থেকে। পুরো বিষয়টি তদারকি করলেন, শাললবনী ব্লকের স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ অভিষেক মিদ্যা। ডাঃ মিদ্যা বললেন, “মাত্র পাঁচ দিন হল এই হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা শুরু হয়েছে। তাই আজকের এই সাফল্য নিঃসন্দেহে আনন্দের। আমরা শুভেচ্ছা জানাই হাসপাতালের সমস্ত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের।”
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
করোনা মুক্ত :

অপরদিকে, বাড়ি ফিরে যাওয়ার আগে, করোনা মুক্ত ব্যক্তিরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অকুণ্ঠ ধন্যবাদ জানিয়ে গেলেন। বললেন, “চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী প্রত্যেকের কাছ থেকে সুন্দর ব্যবহার ও শুশ্রূষা পেয়েছি। যখনই অসুবিধা হয়েছে ওনারা সাহায্য করেছেন। এত তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যেতে পেরে আমরা খুব খুশি।”

Advertisement