সবংয়ে দাদাকে বাঁচাতে গিয়ে ভাইয়েরও মৃত্যু, দুই বোনকে বাঁচাতে গিয়ে দিদিরও মৃত্যু! মাত্র কয়েকঘন্টার ব্যবধানে ৫ টি তাজা প্রাণ অকালে ঝরে গেল

দ্য বেঙ্গল পোস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক, সবং, ২১ জুন : সবং এর মোহাড় ব্লকের মধ্যপাড়াতে রবিবার ঘটে গেল এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনা! বাড়ির সেপটিক ট্যাংক (শৌচাগারের ট্যাঙ্ক) পরিস্কার করতে গিয়ে, প্রাণ হারালেন দুই যুবক। রবিবার সকালে, নিজেদের বাড়ির এই ধরনের ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে নেমেই ঘটে গেল মর্মান্তিক দুর্ঘটনা! ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে নেমেছিলেন দাদা নিতাই মন্ডল। উপরে দাঁড়িয়ে থাকা তাঁর ভাই পূর্ণ মন্ডল নীচের দিকে তাকিয়ে বুঝতে পারেন, দাদার প্রবল কষ্ট হচ্ছে! দাদার কষ্ট দেখে উপরে তুলতে পূর্ণও নেমে যায়। নামার পর দুজনেই আর উপরে উঠতে পারেনি। পরে বাড়ির লোকজন এসে দেখতে পান, দুই ভাই ট্যাঙ্কের ভেতরে পড়ে আছেন। স্থানীয় লোকজন এসে তাঁদের উদ্ধার করে, স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপর, সবং থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠায়।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
দুই ভাই এর মৃতদেহ ;

ঐ সেপটিক ট্যাঙ্কের বিষাক্ত গ্যাসের কারণেই মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যায় স্থানীয় সূত্রে। দুই ভাইয়ের এই অকাল মৃত্যুতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। পরিবারে যেন বিনা মেঘে বজ্রপাত! বিকেল নাগাদ তাঁদের বাড়িতে গিয়ে সমবেদনা জানিয়ে আসেন, সাংসদ মানস রঞ্জন ভূঁইয়া এবং তাঁর স্ত্রী গীতা রাণী ভূঁইয়া। তাঁরা এই পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
সাংসদ ও বিধায়ক সবং এর প্রয়াত দু ভাইয়ের বাড়িতে :

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সেপটিক ট্যাঙ্কের বিষাক্ত গ্যাস থেকে প্রায়শই এই ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে বিভিন্ন এলাকায়। মাটির নীচে বদ্ধভাবে থাকার জন্য বিষাক্ত কার্বন মনোক্সাইড, কার্বন ডাই অক্সাইড প্রভৃতি গ্যাস বিপুল পরিমাণে তৈরি হয়; আর অক্সিজেন একদমই কমে যায় বা থাকেইনা! ফলে, শরীর অবশ হয়ে যায় এবং তারপর মৃত্যু হয়। তাই, অক্সিজেন মাস্ক ছাড়া এই সব ট্যাঙ্কের নীচে নামা রীতিমতো বিপজ্জনক বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
বিষাক্ত গ্যাসে মৃত্যু :

এদিকে, রবিবারই সবং থানার দেভোগ এলাকায় কপালেশ্বরী নদীতে স্নান করতে নেমে তলিয়ে গেল তিন কিশোরী। জানু শবর (৬) ও বানু দেব (৭) নামে দুই কিশোরী প্রথমে বর্ষার জলে খরস্রোতা হয়ে যাওয়া নদীতে নেমে তলিয়ে যায়! তাদের উদ্ধার করতে নেমে নদীর জলে তলিয়ে যায়, দুই কিশোরীর পাড়া সম্পর্কিত দিদি কদম শবর (১০) ও ! ঘটনায় শোকস্তব্ধ হয়ে গেছেন গ্রামবাসীরা। সবং থানার পুলিশ এসে মৃতদেহগুলি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোর ব্যবস্থা করে।