“আমরা ৩০০-৪০০ জন ছিলাম, ওরা ২০০০-২৫০০”, তবুও আঘাত করেছি ওদের, আহত এক সেনা জানালেন তাঁর বাবাকে

Advertisement

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, ২০ জুন : কোনোরকম গুলি-গোলা ছাড়াই লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ২০ জন ভারতীয় জওয়ান শহীদ হয়েছেন। পাল্টা প্রত্যাঘাতে চীনের সৈন্যদেরও মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে বিভিন্ন ভারতীয় সংবাদ সংস্থা। ইতিমধ্যে, যে লোহার যন্ত্র বা অস্ত্র দিয়ে চীন অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে, তাও প্রকাশ্যে এসেছে বিভিন্ন সংবাদ সংস্থা’র মাধ্যমে। এবার চীনের হামলায় আহত এক সৈন্যের পৃষ্ঠদেশের ক্ষতবিক্ষত ছবি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সামনে এসেছে এবং একইসাথে তাঁর বাবার দেওয়া বয়ানও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
ক্ষতবিক্ষত পিঠের ছবি প্রকাশ করা গেলনা, ওই অংশ এডিট করা হয়েছে :

চীনা হামলায় আহত ভারতীয় সৈনিক সুরেন্দ্র সিং এর বাবা বলবন্ত সিং বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, তাঁর ছেলে সুরেন্দ্র বলেছেন- “আমরা ৩০০-৪০০ জন ছিলাম, আর ওরা ছিল ২০০০-২৫০০। হঠাৎ আমারা ওদের ঘেরার মধ্যে চলে আসি কিছু বোঝার আগেই। কারণ, আলোচনায় শর্ত ছিল, কেউ কোনো অস্ত্র রাখবেনা, কিন্তু ওরা বিশ্বাসঘাতকতা করল! ওদের কাছে তারের রড, খুঁটি, বড় পাথর আগে থেকেই মজুত ছিল। যার দ্বারা ওরা হঠাৎ আঘাত করে!” সুরেন্দ্র তাঁর বাবা ও স্ত্রী’র কাছে এও আক্ষেপ করেছেন, পাল্টা প্রত্যাঘাত করেও তাঁরা নিজেদের ২০ জন সৈন্যকে রক্ষা করতে পারেননি বলে!
ইতিমধ্যে, ভারতীয় সেনাবাহিনীও জানিয়েছে, ভারতীয় সৈন্যবাহিনী সীমান্তে চীনা আগ্রাসনের বিষয়ে আলোচনা করতে গিয়েছিল, সেখানেই চীনারা অতর্কিতে হামলা চালায় এবং ২০ জন সেনা শহীদ হয়। তবে, ভারতও পাল্টা প্রত্যাঘাত করে প্রায় ৪০ জন চীনা সৈন্যদের হত্যা করে। যদিও, চীন এই তথ্য স্বীকার করেনি!
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
এই সেই মারাত্মক অস্ত্র :

Advertisement