পুলিশকর্মীর পজিটিভ রিপোর্টে তীব্র আতঙ্ক পশ্চিম মেদিনীপুরের সবং এলাকায়

Advertisement

নীলাদ্রি শেখর জানা, সবং, ১৯ জুন : দীর্ঘ লকডাউনের পর সরকার ইতিমধ্যে শুরু করে দিয়েছে আনলক প্রক্রিয়া। সামনেই নির্বাচনের মুখে, ধুঁকতে থাকা অর্থনীতিকে সচল রাখতে কনটেনমেন্ট জোনের বাইরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাজারহাট, রেস্টুরেন্ট, হোটেল, শপিং মল খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে, দিনের পর দিন কিন্তু পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও। যদিও, সুস্থতার হার বেশ আশাপ্রদ তবুও সবক্ষেত্রে সচেতনতা মেনে চলতে হবে কঠোরভাবে, একটু খামখেয়ালীপনা আমাদের ঠেলে দিতে পারে এই রোগের মুখে।

Advertisement
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
আক্রান্তের এলাকা সিল করা হয়েছে :

আক্রান্ত হওয়ার হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেন না, পুলিশ কর্মীরাও!

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং থানায় গতকাল একজন করোনা আক্রান্ত পুলিশ কর্মীর খোঁজ মিলেছে। হাওড়া থেকে খবর আসার পরই, তড়িঘড়ি পশ্চিম মেদিনীপুর পুলিশ প্রশাসনের তরফে সিল করে দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট এলাকা। সূত্র অনুযায়ী, ৪৮ বছর বয়সী আক্রান্ত পুলিশকর্মীর বাড়ি শলাগেড়িয়া বাকিটাকি গ্রামে। ওই ব্যক্তি হাওড়ার পানিয়ারা পুলিশ লাইনে চাকরি করেন। গত ১০ই জুন ভদ্রলোক বাড়ি এসেছিলেন এবং ফিরে যান গত ১৪ই জুন। গত সোমবার (১৫ জুন) পানিয়ারা পুলিশ লাইন থেকে করোনা টেস্টের জন্য লালা রস সংগ্রহ করে নিয়ে যাওয়া হয়, গতকাল (১৮ জুন) শঙ্কু রঞ্জন বাবুর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এখন উনি সঞ্জীবন হসপিটালে ( হাওড়া) চিকিৎসাধীন। জানা গিয়েছে, শঙ্কু বাবুর বাড়িতে মোট সাতজন থাকেন এবং চারজন ভাড়াটিয়া থাকেন। এই ঘটনার পর, ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে। যদিও, পুলিশি ঘেরাটোপের মধ্যেই আছে ওই এলাকা।