করোনা’র প্রভাব থাকবে স্কুল খোলার পরেও, প্রতি স্কুলে থার্মাল গান, স্যানিটাইজার, মাস্ক, সাবান সরবরাহ করবে শিক্ষা দপ্তর

দ্য বেঙ্গল পোস্ট

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, ১৫ জুন : করোনা’র প্রভাব থাকবে জুলাই, আগস্ট, সেপ্টেম্বর কিংবা তারপরেও, বারবার বলছেন বিশেষজ্ঞরা। এই পরিস্থিতিতে, জুলাই মাসে স্কুল খোলা বা শিক্ষাবর্ষ শুরু করার কোন পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও। কেন্দ্র সরকার ইতিমধ্যে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত স্কুল বন্ধ রাখার কথা জানিয়েছে। তবে, আগস্টের প্রথম সপ্তাহে বা তৃতীয় সপ্তাহে যখনই স্কুল খুলুক না কেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধের আগাম ব্যবস্থা গ্রহণ করতে উদ্যোগী হল, পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যালয় শিক্ষা দপ্তর।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
স্বাস্থ্য বিধি মানতে হবে কঠোরভাবে :

এই উদ্দেশ্যে, রাজ্যের প্রতিটি স্কুলে থার্মাল গান, মাস্ক ও স্যানিটাইজার সরবরাহ করা হবে শিক্ষা দপ্তর থেকে, এমনই জানা গেছে সূত্র মারফত। প্রাথমিক স্কুলগুলিতে ১ টি করে ও উচ্চ প্রাথমিক স্কুলগুলিতে ২ টি করে থার্মাল গান দেওয়া হবে। এছাড়াও, প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য মাসে ২ টি মাস্ক দেওয়া হবে, বিদ্যালয়ে থাকবে স্যানিটাইজারের বোতল, দেওয়া হবে সাবান। ইতিমধ্যে, উম্পুন বিধ্বস্ত ৮ টি জেলায় বিভিন্ন খাতে প্রায় ১৮ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। আরো ১৮ কোটি (প্রায়) দেওয়া হবে দ্বিতীয় পর্যায়ে। এর মধ্যে, সুরক্ষাবিধি’র জন্য অর্থ বরাদ্দের আলোচনাও চলছে বলে জানা গেল।