মেদিনীপুর সদরে লজ্জাজনক ঘটনা! করোনা আক্রান্তের গ্রাম বয়কট পড়শি গ্রামের, প্রতিবাদে পথ অবরোধ, সুস্থ হয়ে ফিরলেন আক্রান্ত যুবক

দ্য বেঙ্গল পোস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক, মেদিনীপুর, ১৫ জুন : গত ১২ জুন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন, মেদিনীপুর সদর ব্লকের মণিদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের এনায়েতপুর গ্রামের এক মহারাষ্ট্র ফেরত যুবক। ১৩ তারিখ সকালেই আক্রান্ত যুবককে আয়ুশ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল এবং গুড়গুড়িপাল থানার পুলিশ গিয়ে আক্রান্তের পাড়া সিল করে দিয়েছিল। কিন্তু, ওই গ্রামের সমস্ত বাসিন্দাদের এই ক’দিন সমস্ত রকমভাবে বয়কট করে রেখেছে পাশাপাশি গ্রামের বাসিন্দারা, আজ এই  অভিযোগে বিক্ষোভ ও পথ অবরোধ করল এনায়েতপুর গ্রামের বাসিন্দারা। ইতিমধ্যে, দ্বিতীয় করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় আজ ওই যুবক সুস্থ হয়ে বাড়িও ফিরে এসেছেন।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
এনায়েতপুর গ্রাম :

করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই, ঐ গ্রামের বাসিন্দাদের পাশের গ্রামের কোনো দোকানদার দ্রব্যসামগ্রী দিচ্ছেন না বলে অভিযোগ। এই অভিযোগ তুলে, সোমবার সকাল থেকে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। এদিকে দুপুরে ঐ করোনা আক্রান্ত যুবক সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার পরই, মেদিনীপুর-ধেড়ুয়া সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাসীরা! তাদের অভিযোগ, এত তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ফিরেছে এই যুবক, মানে রিপোর্ট নেগেটিভই ছিল, ভুল করে পজিটিভ দেখানো হয়েছে। আর তার খেসারত দিতে হচ্ছে গ্রামবাসীদের! গুড়গুড়িপাল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে, পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করে। পুলিশকে ঘিরে চলে বিক্ষোভ। প্রথম দফার অবরোধ উঠলেও, কিছুক্ষণ পরে মনিদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের সামনে গিয়ে ফের অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা। রাস্তার দু’পাশে দাঁড়িয়ে পড়ে যানবাহন। স্থানীয় বাসিন্দা শুভম দোলই, রতন দোলইরা বলেন, “আমাদের গ্রামে এক যুবকের করোনা আক্রান্ত হওয়ায় পাশের গ্রামের মাঠে গবাদি পশু চরাতে গেলেও বাধা দেওয়া হচ্ছে। দোকানে কোনো জিনিসপত্র দিচ্ছে না। পুলিশ প্রশাসন কোনো রকম সাহায্য করেনি।” মনিদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান অঞ্জন কুমার বেরা জানান, “করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ায় ঐ গ্রামের দু-একটি বাড়ি কনটেইনমেন্ট ও কিছুটা বাফার জোন করা হয়েছে। তার বাইরে দোকানপাট খোলা রয়েছে। সামাজিক দূরত্ব রেখে, নির্দিষ্ট সময়ে বাজার হাট করতে পারবেন গ্রামবাসীরা। বয়কটের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এটা উচিত নয়।