আর কয়েকঘন্টা পরেই ময়নাতদন্ত, তারপর শেষকৃত্য, একমাত্র ছেলের মৃত্যুতে শোকে মুহ্যমান বাবা বুকে পাথর চাপা দিয়েই পাটনা থেকে আসছেন মুম্বাই

Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন, সায়নী দাশগুপ্ত, ১৫ জুন : সারাক্ষণ মুখে হাসি লেগে ছেলেটা আর নেই! একমাত্র ছেলের আকস্মিক আত্মহত্যার খবরে শোকে পাথর হয়ে গেছেন তিনি। বাড়ির সবচেয়ে ছোট ছেলে ছিলেন তিনি। চার দিদির আদরের ভাই। সেই ছেলের মর্মান্তিক খবর শুনেই অসুস্থ হয়ে পড়েন বাবা।
কিছুদিন আগে ছেলের সাথে ফোনে কথা হয় বাবার, খুব তাড়াতাড়ি বাড়ি আসছে বলে জানায়। বাড়িতে এসে বাবাকে পাহাড়ে বেড়াতে নিয়ে যাবেন বলেও জানান সুশান্ত। কিন্তু সেই ছেলের আর বাড়ি ফেরা হলোনা ! মাস তিনেক আগেই শেষবারের জন্য বাড়িতে এসেছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত।

Advertisement
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
আত্নীয় ও বন্ধু-বান্ধব এসে পৌঁছেছেন :

অভিনেতার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই, পাটনায় রাজপুতদের বাড়ির বাইরে ভিড় জমিয়েছেন পাড়ার প্রতিবেশীরা! কেউই মেনে নিতে পারছেন না তাঁর মৃত্যু সংবাদ! তাঁর মৃত্যুতে গোটা দেশ শোকস্তব্ধ! টুইটার, ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম ছেয়ে গিয়েছে শোক বার্তায়। আজ আর কয়েকঘন্টা পর, সকালেই মুম্বাইয়ের আর এন কুপার মিউনিসিপ্যাল হাসপাতালে মৃতদেহের ময়নাতদন্ত হবে। মৃতদেহ এখানেই রাখা আছে। তারপর মুম্বাইতেই শেষ কৃত্য সম্পন্ন হবে বলে জানা গেছে। সুশান্তের এক দিদি ইতিমধ্যে মুম্বাইয়ে পৌঁছে গেছেন। আর এক দিদি পাটনা থেকে তাঁর বাবাকে সঙ্গে নিয়ে সকালে পৌঁছবেন। করোনা পরীক্ষার জন্য সুশান্তের সোয়াব বা লালারসের নমুনাও সংগ্রহ করা হয়েছে, নিয়ম মেনে।