লকডাউনের মধ্যেই ইউটিউবে মুক্তি পেলো শর্টফিল্ম “এরাও মানুষ”, সঙ্গীত পরিচালনায় কল্যাণ সেন বরাট, গান গেয়েছেন ইমন চক্রবর্তী, পরিচালনায় মেদিনীপুরের কমল কৃষ্ণ কুইলা

দ্য বেঙ্গল পোস্ট

লকডাউনের মাঝেই ইউ টিউবে মুক্তি পেল শর্টফিল্ম “এরাও মানুষ”। অভিনেতা ও কাহিনীকার তুষার কুমারের কাহিনী ও চিত্রনাট্য অবলম্বনে এই শর্টফিল্মটি তৈরি হয়েছে।
এতে তুষার কুমারের পাশাপাশি অভিনয় করেছেন ঈশিতা চক্রবর্তী, মীনা নাথ ,আকাশ ধর, পল্লব ধর ,রাজা এবং প্রমুখরা।
ছবিটির পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন, তরুণ প্রজন্মের পরিচালক, মেদিনীপুরের ভূমিপুত্র কমল কৃষ্ণ কুইলা। সহকারী পরিচালক হিসেবে সহযোগিতা করেছেন তুষার কুমারও । পরিচালক আমাদেরকে জানান যে, সমাজের পিছিয়ে পড়া এবং বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রতিবন্ধীদের নিয়ে এই ছবির কাহিনী লেখা হয়েছে। তাঁর আশা এই ছবির গল্প দর্শক দরবারে সমাদৃত হবে এবং আলোড়ন সৃষ্টি করবে ।
এই ছোট্ট কাহিনীটিতে সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন বিশিষ্ট সংগীত পরিচালক কল্যাণ সেন বরাট। শুধু তাই নয়, জি বাংলা খ্যাত সঙ্গীত শিল্পী ইমন ও বিশ্বজিৎকে দিয়ে গাওয়ানো হয়েছে গানও।

ছবিটি প্রায় এক বছর ধরে বিভিন্ন শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে অংশগ্রহণ করার পর পরিচালক ও তুষার কুমারের যৌথ উদ্যোগে রিলিজ হলো আলো ট্রাস্ট ইউটিউব চ্যানেলে ।
এই লকডাউনে সমগ্র দর্শকদের কথা মাথায় রেখে আলো ট্রাস্টের এই ছোট্ট প্রয়াস দর্শকদের একঘেয়েমি জীবন থেকে কিছুটা মুক্তি দেবে বলেও আশাবাদী পরিচালক কমল কৃষ্ণ কুইলা । তিনি আরও জানান তাঁর এই শর্ট ফিল্ম যদি দর্শকদের মন জয় করতে পারে তবে তিনি আগামীদিনে বড়ো ছবি করার চেষ্টা করবেন এবং তখন নায়ক হিসেবে তাঁর ভাতৃপ্রতিম অভিনেতা তুষার কুমারই হবেন প্রথম পছন্দ।
সমগ্র ছবিটি তৈরিতে সহযোগিতা ও উৎসাহ দিয়েছেন বিএসএফইউ । এই জন্য কমলবাবু বেঙ্গল শিল্পী ফেডারেশন ইউনিটের সকলকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন।

এদিকে,অভিনেতা ও কাহিনীকার তুষার কুমার জানান, সকলের ভালোবাসা ও আশীর্বাদ মাথায় নিয়ে এগিয়ে যাওয়াই তাঁর মূল লক্ষ্য। উল্লেখ্য কয়েকদিন আগেই লকডাউন চলাকালীন মুক্তি পেয়েছে তার আরেকটি ছবি “দুঃস্থ শিল্পী”। অন্যদিকে ইতিমধ্যেই বাড়িতে বসে, পরবর্তী “লকডাউনের ফাঁসে” ছবির শুটিং শুরু করেছেন তিনি।