পাশে নেই প্রশাসন কিংবা কোন রাজনৈতিক দল, নিহত গৃহশিক্ষকের পাশে ‘গৃহ শিক্ষক কল্যাণ সমিতি’র সদস্যরা

দ্য বেঙ্গল পোস্ট

গত ১৮ মে আত্মহত্যা করেছিলেন, ঘাটালের মনসুখা (কিশোরচক) গ্রামের যুবক অনুপ মাইতি (৩২)। উচ্চশিক্ষিত (ইংরেজি বিষয়ে স্নাতকোত্তর) হয়েও পাননি সরকারি চাকরি; তাই গৃহশিক্ষকতার পথ বেছে নিয়েছিলেন। সেই গৃহশিক্ষকতা থেকেই, পুরো সংসার চালাতেন তিনি। বাবা পেশায় দিনমজুর। তবুও কষ্ট করে চালিয়ে নিচ্ছিলেন অনুপ। বাধ সাধল করোনা মহামারী আর লকডাউন! তিন মাস ধরে কোন আয় না হওয়ায় এবং শুরু করা পাকা বাড়ি সম্পূর্ণ করতে না পারার চিন্তায়, ভুগছিলেন মানসিক অবসাদে। বেছে নিয়েছিলেন চরম সিদ্ধান্ত! তারপর থেকে, পাঁচ দিন হতে চললেও, কোন রাজনৈতিক দল বা প্রশাসনের তরফ থেকে পরিবারের পাশে দাঁড়াতে আসেননি কেউ।

আজ (২২ মে), অনুপ’দের (পড়ুন গৃহশিক্ষকদের) নিজেদের সংগঠন “গৃহশিক্ষক কল্যাণ সমিতি”র পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হলো, অনুপের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়ে। সেইমতো, সংগঠনের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা শাখা এবং ঘাটাল ইউনিটের সদস্যরা আজ ‘শোকপ্রস্তাব’ সহ সাধ্যমত আর্থিক সাহায্য নিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন, নিহত অনুপের বাড়িতে। তাঁর বাবার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে, ১০০০০ টাকার চেক এবং দেওয়া হয়েছে আগামী তিন মাসের সংসার খরচ বহন করার প্রতিশ্রুতিও। শুধু তাই নয়, তাঁর বাবা-মা’র প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়ে, সংগঠনের রাজ্য শাখা ও জেলা শাখার পক্ষ থেকে ভবিষ্যতেও প্রতি মুহূর্তে পাশে থাকার বার্তা দেওয়া হয়েছে।