সুস্থ আছেন জেলার প্রথম করোনা আক্রান্তের মা, দ্বিতীয়বার করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও রিপোর্ট নেগেটিভ, সুস্থতার পথে নির্ণয় হাসপাতালের নার্সও

দ্য বেঙ্গল পোস্ট

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার প্রথম করোনা আক্রান্ত ছিলেন, দাসপুর-১ ব্লকের নন্দনপুর-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের নিজামপুরের স্বর্ণশিল্পী (মুম্বই ফেরত) গণেশ চন্দ্র জানা। এরপর তাঁর বাবা ও স্ত্রী’র রিপোর্টও পজিটিভ আসে। প্রত্যেকেই এখন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তবে, ঐ যুবকের মা’এর রিপোর্ট নেগেটিভ আসায়, তাঁকে মেদিনীপুর শহরের করোনা লেভেল – ১ হাসপাতালে কিছুদিন রাখার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, গত শুক্রবার তাঁর শ্বাসকষ্টের সমস্যা হওয়ায় তাঁকে পুনরায় করোনা হাসপাতাল লেভেল ১ এ ভর্তি করা হয় এবং চিকিৎসা শুরু করা হয়। একইসাথে, তাঁর নমুনাও সংগ্রহ করা হয়।

আজ (সোমবার) জেলা স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে জানা যায়, তাঁর করোনা রিপোর্ট এবারও নেগেটিভ এসেছে এবং তিনি সুস্থ আছেন। একইসাথে সূত্রের খবর অনুযায়ী, মেদিনীপুর শহরের নির্ণয় হাসপাতালের আক্রান্ত নার্সের দ্বিতীয় করোনা রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছে। করোনা লেভেল ৩-৪ (বড়মা) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই নার্স এখন প্রায় সুস্থ বলে জানা গেছে। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ গিরিশ চন্দ্র বেরা এই বিষয়ে জানিয়েছেন, “উনি দ্রুত সুস্থ হচ্ছেন বলে খবর পেয়েছি।”
অপরদিকে, চন্দ্রকোনা টাউনের আক্রান্ত পুলিশ কর্মীরও দ্বিতীয় করোনা রিপোর্ট গতকাল নেগেটিভ এসেছে বলে সূত্রের খবর। এই মুহূর্তে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২১ এবং চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্তের (অ্যাক্টিভ করোনা পজিটিভ) সংখ্যা ৩ জন বলে জানা যায়। এদিকে গতকালের রেকর্ডও ভেঙে দিয়ে, দেশে আজ আক্রান্তের সংখ্যা ৫২৪২ জন এবং মৃত্যু সংখ্যাও সমস্ত রেকর্ড ছাপিয়ে ১৫৭!