জেলার ‘করোনা যোদ্ধা’দের জন্য পৃথক সেফ হোমের উদ্বোধন শীঘ্রই, করোনা রোগীর তথ্য এবার অনলাইনে, রোগী ভর্তি গ্রাম স্তর থেকেই

.

মণিরাজ ঘোষ, পশ্চিম মেদিনীপুর, ১৬ সেপ্টেম্বর : জেলার ‘করোনা যোদ্ধা’দের জন্য সম্পূর্ণ পৃথক একটি সেফ হোম গড়ে তোলা হয়েছে,‌ পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়্গপুরেরে নিমপুরায় (৬ নং জাতীয় সড়কের পাশে সরকারি গেস্ট হাউস)। ওই ‘সেফ হোম’ বা ‘নিরাপদ নিলয়’টির উদ্বোধন হতে চলেছে খুব শীঘ্রই, জানা গেছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে। এই সেফ হোমে ৪০ (40) টি শয্যা ছাড়াও, ২৪ ঘন্টার জন্য স্বাস্থ্য পরিষেবা বা মনিটরিং সিস্টেম সবকিছুই থাকছে বলে জানা গেছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে। থাকবে অক্সিজেনের ব্যবস্থাও। তবে, লেভেল ফোরের মতো কিছু কিছু পরিষেবা হয়তো এখানে থাকবেনা বলেই আপাততো জানা গেছে। তা সত্বেও জেলার একের পর এক ‘করোনা যোদ্ধা’র সংক্রমণ ও মৃত্যু কালে এই উদ্যোগ কিছুটা হলেও তাঁদের মনোবল বৃদ্ধি করবে বলে মনে করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, প্রশাসনিক কর্মী ও আধিকারিক এবং সাংবাদিকরা এখানে স্বাস্থ্য পরিষেবা পাবেন বলে জানা গেছে।

thebengalpost.in
পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য ভবনের উদ্যোগে নতুন সেফ হোম এবং একগুচ্ছ নতুন পরিকল্পনা :

.
.

অপরদিকে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এবং জেলা স্বাস্থ্য ভবনের সহযোগিতায়, একটি ওয়েব পোর্টাল তৈরি করা হচ্ছে, যেখানে জেলার করোনা হাসপাতাল বা সেফ হোমে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীদের সার্বিক তথ্য আপলোড করা হবে। তাঁদের চিকিৎসা পরিষেবা থেকে শুরু করে শারীরিক অবস্থা, সবকিছুই এই ওয়েব পোর্টাল থেকে জানা যাবে বলে জানা গেছে জেলা প্রশাসন সূত্রে। জেলাশাসক ডঃ রশ্মি কমল জানিয়েছেন, “একটি ওয়েব পোর্টাল তৈরি হচ্ছে। কোভিড সংক্রমিতদের শারীরিক অবস্থা ও তাঁদের চিকিৎসার দিকে নজর রাখতেই এই পদক্ষেপ।” এই অ্যাপ’টি স্বয়ং জেলাশাসকের কল্পনা অনুযায়ী তৈরি হচ্ছে বলে জানা গেছে। জেলা স্বাস্থ্য ভবনের পক্ষ থেকে উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক (১) ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী’র তত্ত্বাবধানে এই অ্যাপের নকশা (Design) বা খুঁটিনাটি বিষয় থেকে শুরু করে, সার্বিক বিষয়টি তৈরি করছেন জেলা প্রশাসনের তৈরি দুই শীর্ষস্থানীয় আধিকারিক প্রতীক সিং (আইএএস, প্রোভেশনাল) এবং জেলা তথ্য প্রযুক্তি আধিকারিক (ডিআইও) বিবেকানন্দ মাইতি। ডাঃ সারেঙ্গী জানিয়েছেন, “জেলাশাসক ডঃ রশ্মি কমলের পরিকল্পনায় প্রতীক বাবু ও বিবেকানন্দ বাবু এই ওয়েব পোর্টাল তৈরি করছেন। আমরা বিষয়টি ‌নিয়ে যতটা সম্ভব সাহায্য করছি।” জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নিমাই চন্দ্র মন্ডল‌ জানিয়েছেন, “এরকম একটি ওয়েব পোর্টাল তৈরি হচ্ছে যেখানে, সংক্রমিত ওদের সমস্ত তথ্য আপলোড করা হবে।”

thebengalpost.in
নতুন ওয়েব পোর্টাল তৈরি হচ্ছে জেলায়, মিলবে সমস্ত তথ্য :

.

এদিকে, জেলার কোভিড টাস্ক ফোর্স আরো একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে যে, এবার আর জেলা স্তর থেকে বা পুলিশের তরফ থেকে, করোনা সংক্রমিতদের কোভিড হাসপাতালে পাঠানো থেকে শুরু করে সার্বিক বিষয়গুলি নিয়ন্ত্রণ করা হবে না। একেবারে গ্রাম ও ব্লক স্তর থেকে বিষয়গুলি নিয়ন্ত্রণ করা হবে। তৈরি করা হবে, অ্যাডমিশন সেল। এই সেলে, গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, সচিব, সুপারভাইজার, এ এন এম, আশা, ভিআরপি থেকে শুরু করে বিএমওএইচ, বিডিও এবং পরবর্তী স্তরে মহকুমা শাসক, মহাকুমা পুলিশ অফিসার, অতিরিক্ত মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকেরা থাকবেন। তৈরি হওয়া ওয়েবপোর্টালে, রোগীর সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য আপলোড করার দায়িত্ব একেবারে গ্রাম স্তর থেকেই শুরু করা হবে এবং প্রয়োজন অনুযায়ী কোভিড হাসপাতালে পাঠানোর বিষয়টিও তদারকি করা হবে।

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে