দায়িত্বে দীনেন রায়, প্রশাসকমণ্ডলী থেকে বাদ পড়ে শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ প্রণব বসুর অঙ্গীকার “পাশে ছিলাম, আছি, থাকব”

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ২০ নভেম্বর: মেদিনীপুর পৌরসভার পৌর প্রশাসকমণ্ডলী’র চেয়ারপার্সন হচ্ছেন খড়্গপুর গ্রামীণের বিধায়ক দীনেন রায়। অভিজ্ঞ এই রাজনীতিবিদকেই প্রাক্তন পৌর প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারপার্সন দীননারায়ণ ঘোষের স্থলাভিষিক্ত করলেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, মেদিনীপুর সদরের মহকুমাশাসক তথা পৌর প্রশাসক (চেয়ারপার্সন) দীননারায়ণ ঘোষ অতিরিক্ত জেলাশাসক (এডিএম) হয়ে পাশের জেলা ঝাড়গ্রামে যাওয়ার আগে, গত ১৮ ই নভেম্বর (বুধবার), নবনিযুক্ত মহকুমাশাসক নীলাঞ্জন ভট্টাচার্য’কে পৌরসভার দায়িত্বও বুঝিয়ে দিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু, ওই দিন সন্ধ্যাতেই এক নতুন সরকারি নির্দেশিকা আসে। ওই নির্দেশিকা অনুযায়ী, মেদিনীপুর পৌরসভার তিন সদস্যের প্রশাসকমণ্ডলী হিসেবে এবার থেকে দায়িত্ব পালন করবেন, বিধায়ক দীনেন রায়, বিধায়ক মৃগেন্দ্রনাথ মাইতি এবং প্রাক্তন কাউন্সিলর নির্মাল্য চক্রবর্তী এবং এই প্রশাসকমণ্ডলী’র চেয়ারপার্সন হবেন দীনেন রায়।

thebengalpost.in
মেদিনীপুর পৌরসভা :

.
.

এর ফলে, একদিকে যেমন, মেদিনীপুর সদরের মহকুমাশাসক’কে পৌরসভার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হল, ঠিক তেমনই প্রথম দিন থেকে (২০১৮ র ডিসেম্বর) প্রশাসকমণ্ডলী বোর্ডে নিযুক্ত থাকা প্রাক্তন পৌরপ্রধান প্রণব বসু’কে বাদ দেওয়া হল। মুখে কিছু না বললেও, স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠ প্রণব বসু থেকে শুরু করে মেদিনীপুর শহরের সকল শুভেন্দু অনুগামীই। তাঁদের মতে “শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ বলেই বাদ দেওয়া হল প্রণব বসু’কে, এছাড়া অন্য কোন কারণ নেই!” উল্লেখ্য যে, মেদিনীপুর পৌরসভার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর ২০১৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর থেকে মেদিনীপুর পৌরসভার প্রশাসক (চেয়ারপারসন বা প্রধান) হিসেবে দায়িত্ব নেন মহকুমা শাসক দীননারায়ণ ঘোষ। তাঁর সঙ্গে প্রশাসকমণ্ডলী’তে রেখে দেওয়া হয়, প্রাক্তন পৌরপ্রধান প্রণব বসু এবং মেদিনীপুরের বিধায়ক বর্ষীয়ান মৃগেন্দ্রনাথ মাইতি’কে। সম্প্রতি, প্রশাসকমণ্ডলীতে চতুর্থ সদস্য হিসেবে নিযুক্ত হয়েছিলেন প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা দলের জেলা যুব সহ সভাপতি নির্মাল্য চক্রবর্তীও। দীননারায়ণ ঘোষের জায়গায় এবার থেকে প্রশাসকমণ্ডলী’র প্রধান হচ্ছেন দীনেন রায়। আগের কমিটির সদস্য মেদিনীপুরের বিধায়ক মৃগেন মাইতি এবং প্রাক্তন কাউন্সিলর নির্মাল্য চক্রবর্তী নতুন কমিটিতেও রয়েছেন। কিন্তু, তাৎপর্যপূর্ণভাবে বাদ পড়লেন বর্ষীয়ান নেতা প্রণব বসু।

thebengalpost.in
নবনিযুক্ত পৌর প্রশাসক দীনেন রায় :

.
thebengalpost.in
বিজ্ঞাপন :

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, গত ৩১ শে অক্টোবর মেদিনীপুর শহরের ক্লাব সমন্বয় কমিটি’র বিজয়া সম্মিলনী উপলক্ষে উপস্থিত ছিলেন ওই কমিটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দু’র পাশের আসনটিই অলংকৃত করেছিলেন তাঁর ঘনিষ্ঠ অনুগামী, বর্ষীয়ান তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন পৌরপ্রধান প্রণব বসু। শুধু তাই নয়, বক্তৃতায় শুভেন্দু অধিকারী কে সম্বোধন করতে গিয়ে, ‘মাননীয় মন্ত্রী’র জায়গায় মুখ ফসকে ‘মুখ্যমন্ত্রী’ বেরিয়ে গিয়েছিল তাঁর মুখ দিয়ে! সাথে সাথেই নিজের ভুল শুধরে নিয়েছিলেন ঠিকই, কিন্তু সেদিনের সেই সামান্য ‘ভুল’ টিকেই কেন্দ্র করে সভায় উপস্থিত শুভেন্দু অনুগামীদের ‘তুমুল করতালি’ যে শুভেন্দু-বিচ্ছিন্ন তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব ভালোভাবে গ্রহণ করেনি, তা প্রমাণিত হল! ঘটনাটি নেহাতই কাকতালীয় হলেও, এই মুহূর্তে তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব তথা স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে শুভেন্দু ঘনিষ্ঠতা একেবারেই মেনে নিচ্ছেন না তা বারেবারেই প্রমাণিত হচ্ছে। তা সে, তাঁর ঘনিষ্ঠদের নিরাপত্তা তুলে নেওয়া থেকে শুরু করে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া, সবকিছুর মাধ্যমেই স্পষ্ট বুঝিয়ে দিচ্ছেন তিনি। এর মধ্যেই আবার শুভেন্দু অধিকারী’র সঙ্গে ‘বিভেদ’ বা মতানৈক্য মিটিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে! সবমিলিয়ে পরিস্থিতি জটিল ছিল, আরো হয়তো জটিল হচ্ছে।

thebengalpost.in
মেদিনীপুর শহরে অনুষ্ঠিত বিজয়া সম্মিলনী (৩১ অক্টোবর) তে শুভেন্দু’র পাশে প্রণব বসু :

আর এ সবের মাঝেই, আজ (২০ নভেম্বর) মেদিনীপুর শহরের ৩ টি জগদ্ধাত্রী পুজোর উদ্বোধনে আসছেন স্বয়ং শুভেন্দু অধিকারী। এই মুহূর্তে তাঁর অন্যতম বিশ্বস্ত দুই অনুগামী কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি এবং দলের জেলা সম্পাদক স্নেহাশিস ভৌমিকের আয়োজনে দু’টি পুজো (যথাক্রমে- হবিবপুর ও রবীন্দ্রনগর) ছাড়াও, কুইকোটার একটি পুজো উদ্বোধন করবেন, পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। রবীন্দ্রনগরের জগদ্ধাত্রী পুজোর প্রধান উদ্যোক্তা স্নেহাশিস ভৌমিক হলেও, অন্যতম পৃষ্ঠপোষক প্রণব বসু ও। স্বভাবতই দেখা হবে, প্রণব বাবুর সাথে। আর তার আগেই ক্ষুব্ধ ও মর্মাহত প্রণব বাবু এক সংবাদমাধ্যমকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, “আমি কেন বাদ পড়েছি, আমি বলতে পারব না। তবে, এটুকু বলতে পারি, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রথম দিন থেকে, শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো!”

thebengalpost.in
প্রণব বসু :

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে