রিহা চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার মামলা দায়ের করল ইডি

Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন, সুদীপ্তা ঘোষ, ৩১ জুলাই : গত মঙ্গলবার ২৮ শে জুলাই, বিহারের আদালতে রিহা চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং। এরপরই বিহারের ৪ জন পুলিশ মুম্বাইতে আসেন সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত করতে। এর পরে ইডি বিহার পুলিশকে তাদের কাছে দায়ের হওয়া এফআইআর এর সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চায়। অবশেষে, আজ, শুক্রবার (৩১ জুলাই), রিহা চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ১৫ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি।

দ্য বেঙ্গল পোস্ট
সুশান্ত সিং রাজপুত :

সুশান্ত সিং এর বাবা অভিযোগ করেন, সুশান্তের কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক থেকে ১৫ কোটি টাকার লেনদেন হয় এমন সব ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে, যেটার সাথে সুশান্তের কোনো সম্পর্ক নেই! রিহাই ওই টাকা গুলি সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে সরিয়েছেন। এরপরই ইডি এবং বিহার পুলিশ এই মামলার তদন্তে নামে। সেখানে এরকম অনেক তথ্য সামনে আসে, যেখানে দেখা যায় বে-আইনি লেনদেন হয়েছে। শুধু রিহা নয়, রিহার পরিবারের অন্যরাও এই কাজে যুক্ত। জানা গেছে, সুশান্ত দুটি স্টার্টআপ কোম্পানি চালু করেছিলেন যার একটির শীর্ষ পদে ছিলেন রিহা এবং অন্যটিতে ছিলেন রিহার ভাই শৌভিক। এমনকি জানা গেছে মহারাষ্ট্রের রায়গরে যে ফ্ল্যাটে এই দুটি কোম্পানির অফিস ছিল সেগুলির মালিক রিহার বাবা।
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
সুশান্ত সিং রাজপুত এবং শৌভিক চক্রবর্তী :

সুশান্তর বাবা কে কে সিংয়ের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে, বিহার পুলিশ রিহার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬, ৩৪১, ৩৪২, ৩৮০, ৪০৬ এবং ৪২০ ধারায় মামলা দায়ের করে। যদিও আপাতত সুশান্ত মৃত্যুর সিবিআই তদন্তের দাবি খারিজ করেছে সুপ্রিম কোর্ট।
দ্য বেঙ্গল পোস্ট
সপরিবারের রেহা চক্রবর্তী :

Advertisement