কর্মী খুনের প্রতিবাদে মেদিনীপুর থেকে আগামীকাল ১২ ঘন্টা বনধের ঘোষণা করলেন দিলীপ ঘোষ

thebengalpost.in
মেদিনীপুরে দিলীপ ঘোষের সাংবাদিক বৈঠক :
.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর ও নদীয়া, ১ নভেম্বর: নদীয়ার গায়েশপুরে বিজয় শীল (৩৪) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে আজ (১ নভেম্বর)। এই যুবককে নিজেদের সমর্থক বলে দাবি করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। মেদিনীপুর শহরের হোটেল হিন্দুস্তানে আজ (১ নভেম্বর) এক সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বললেন, “এ আর নতুন কি! প্রতিদিনই আমাদের কর্মী-সমর্থকদের মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে। নদীয়ার গায়েশপুরের যুবক আমাদের দলের সক্রিয় কর্মী ছিলনা, তবে সমর্থক ছিলেন। ওনার ভাইপো আমাদের দলের যুব মোর্চার সক্রিয় কর্মী। পুরো পরিবারই আগে তৃণমূল সমর্থক ছিল, লোকসভা ভোটের পর থেকে বিজেপি সমর্থক। তাই, তৃণমূলের লোকেরা খুন করে ঝুলিয়ে দিয়ে, এবারও আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দিতে চাইছে, মেদিনীপুরের শিয়ালসাঁই (দাঁতনের মোহনপুর থানা) এর ঘটনার মতো। এর প্রতিবাদে আগামীকাল আমরা ১২ ঘন্টার কল্যানী বনধ ডাকছি। একইসাথে, রাজ্যের প্রতিটি থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো হবে।”

thebengalpost.in
মেদিনীপুরে সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ :

.
.

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রবিবার সকালে নদীয়ার গায়েশপুরের যুবক বিজয় শীলের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল থেকে নিখোঁজ থাকা, পেশায় গাড়ির চালক এই যুবকের দেহ কল্যাণী কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পেছনে মাঠের ধারে একটি ঝোপ-জঙ্গল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে আজ। বিজেপি রাজ্য সভাপতি মেদিনীপুরে বসে বললেন, “উনি সক্রিয় রাজনীতি করতেন না, তবে উনি সহ ওনাদের পরিবার বিজেপির সাপোর্টার ছিলেন! তাই, ওনাকে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেউ আত্নহত্যা করলে ওইভাবে হাঁটু গেড়ে গলায় দড়ি নেবে কেন, সারা শরীরে কাদাই বা লেগে থাকবে কেন!” যদিও এই অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়ে তৃণমূলের দাবি, উনি সারাজীবনে কখনোই বিজেপি করেননি বা বিজেপিকে সমর্থন করেননি! উনি তৃণমূলের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। এদিকে, রহস্যজনক এই মৃত্যুর তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ওই যুবকের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানোও হয়েছে ইতিমধ্যে।

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে