“জনসাধারণের কমিটিতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ ছিল, নিজের স্বার্থে তৃণমূলে ফিরলেন বিমল গুরুং”, মেদিনীপুরে মহম্মদ সেলিমের কটাক্ষ

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ২১ অক্টোবর: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মেদিনীপুর শহরে আজ (২১ অক্টোবর) সিপিআইএম জেলা কমিটির সোশ্যাল মিডিয়া কনভেনশন এবং নিজেদের পোর্টাল উদ্বোধন উপলক্ষে উপস্থিত হয়েছিলেন, সিপিআইএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম। মীরবাজারে কৃষক ভবনে আয়োজিত এই কনভেনশন বিভিন্ন ব্লকের শতাধিক প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। সেলিম বলেন, “কর্পোরেট স্বার্থবাহী সরকার চলছে, আর কর্পোরেট নিয়ন্ত্রিত গদী মিডিয়া নিজেদের স্বার্থ সিদ্ধির জন্য অন্যায়কে সমর্থন এবং জনবিরোধী পদক্ষেপ গুলিকে আড়াল করে খবর পরিবেশন করেই চলছে। তার সঙ্গে প্রতিবাদীদের কন্ঠস্বরকে আড়াল করছে।” জেলা সোশ্যাল টীমের প্রতিবেদন পেশ করেন সিপিআইএমের রাজ্য কমিটির সদস্য তাপস সিনহা। তার উপর ২২ জন প্রতিনিধি মত প্রকাশ করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন দেবাশীষ চ্যাটার্জী।

thebengalpost.in
পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সিপিআইএমের সোশ্যাল মিডিয়া টিমের নিজস্ব পোর্টাল উদ্বোধন :

.
.

কনভেনশনের পর এক সাংবাদিক সম্মেলনে মহম্মদ সেলিম বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। সম্প্রতি, দুর্গাপুজো কে কেন্দ্র করে হাই কোর্টের রায় প্রসঙ্গতে তিনি বলেন, “কোর্টের রায়ের উপর বক্তব্য আর থাকতে পারে না।” করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মোদী ও মমতা’কে একযোগে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “মহামারীতে এই মুহূর্তে আমাদের দেশ এক নম্বরে। লক, আনলক সবই ব্যার্থ, মোদী মমতা অপদার্থ। তার প্রমাণ এই পরিস্থিতি।” পুরোহিত ভাতা প্রসঙ্গেও মমতা’কে আক্রমণ করে তিনি বলেন, “ট্রাম্পকে নিয়ে উৎসব, রাম মন্দির নিয়ে উৎসব, আর আদবানি-মোদীর পাঠশালার এক নম্বর অনুগত ছাত্রী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও একটার পর একটা ধর্মীয় উস্কানি মূলক কাজ করে যাচ্ছে। ইদের সময় থেকে ইমাম ভাতা, এখন পুরোহিত ভাতা!” অপরদিকে, জঙ্গলমহলে ফের মাওবাদী পোষ্টার এবং বিমল গুরুংয়ের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার ‘ইচ্ছে’ প্রসঙ্গে সেলিম বলন, “জনসাধারনের কমিটি আসলে তৃনমূল, মাওবাদী ও আর এস এস এর মিলেজুলি বাহিনী, যার পিছনে দেশি-বিদেশী পুঁজি ছিলো বামপন্থীদের নিকেশ করার জন্য। কিন্তু পারেনি। খুনী মাওবাদীদের চাকরির প্যাকেজ দিয়ে পুনর্বাসন দিয়েছিল। খুন হয়ে যাওয়া পরিবারগুলির প্রতি অবিচার করা হয়েছে। এখন সেই খুনীরা ভাগ হয়ে তৃণমূল আর বিজেপির সাথে মিলেমিশে আছে নেতা হয়ে। অপরদিকে, বিমল গুরুং এতদিন পুলিশের চাপে আত্মগোপনে ছিলো বিজেপির আশ্রয়ে। এখন পুলিশের চাপে, নিজের স্বার্থে আবার তৃণমূলে। মানুষের স্বার্থে বা গোর্খা জনজাতির স্বার্থে নয়!”

TheBengalPost
জেলা সিপিআইএমের সোশ্যাল মিডিয়া কনভেনশন :

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে