“করোনাকে আর ভয় নয়, জয় হবে নিশ্চয়”, তিনটি ধাপে টিকাকরণের জন্য প্রস্তুত পশ্চিম মেদিনীপুর

বিজ্ঞাপন

মণিরাজ ঘোষ, পশ্চিম মেদিনীপুর, ১১ জানুয়ারি: “করোনাকে আর ভয় নয়, জয় হবে নিশ্চয়”, করোনা অতিমারী’র একেবারে প্রাথমিক পর্বে, জুন (২০২০) মাসেই এই গান বেঁধেছিলেন জেলার স্বাস্থ্যকর্তা। চলতি সপ্তাহেই দেশ ও রাজ্য জুড়ে করোনা প্রতিষেধক টিকাকরণের প্রাক্কালে, নিজের লেখা ও গাওয়া সেই গানের লাইন স্মরণ করে, পশ্চিম মেদিনীপুরের উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী বললেন, “জুন মাসেই গানে গানে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেছিলাম- ‘করোনাকে আর ভয় নয়, জয় হবে নিশ্চয়…আবার নতুন করে বাঁচবো মোরা, চলো জীবন ছন্দে ফেরাই।’ আজ যেন সেই গান সার্থক হল। করোনা অতিমারী হারল বিজ্ঞানের কাছে।” আগামী ১৬ ই জানুয়ারি থেকে সারা দেশ তথা এ রাজ্যেও স্বাস্থ্যকর্মীদের দিয়ে প্রথম ধাপের টিকাকরন শুরু হওয়ার কথা। ডাঃ সারেঙ্গী জানালেন, “সারা দেশ ও রাজ্যের প্রতিটি জেলার সাথে সাথে এই জেলাতেও করোনা টীকাকরণ শুরু হয়ে যাবে। সঠিক তারিখের বিষয়ে নির্দেশিকা না এলেও, এখনও পর্যন্ত আমাদের জানানো হয়েছে, নির্দেশিকা আসার ২ ঘন্টার মধ্যেই যেন রেফ্রিজারেটর যুক্ত গাড়ি পাঠানো হয়। জেলা প্রশাসন তথা জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে সেই প্রস্তুতি নিয়ে নেওয়া হয়েছে। ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করে রাখার সমস্ত প্রযুক্তিগত আয়োজন সম্পন্ন করা হয়েছে।”

thebengalpost.in
ড্রাই রানের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে জেলাশাসক, জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক কর্মাধ্যক্ষ, সিএমওএইচ, ডেপুটি সিএমওএইচ এবং মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রাজ্যের প্রতিটি জেলার মতো পশ্চিম মেদিনীপুরেও ৮ ই জানুয়ারির ‘ড্রাই রান’ বা টিকাকরণ মহড়া সফল হয়েছে। আগামী ১৬ ই জানুয়ারি রাজ্য জুড়ে টিকাকরণ শুরু হওয়ার ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে। প্রতিটি জেলায়, আদর পুনাওয়ালা’র সিরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড ভ্যাকসিন বা টিকা পৌঁছে যাওয়ার বিষয়টিও একপ্রকার নিশ্চিত। অপেক্ষা শুধু সরকারি নির্দেশিকার। এই পরিস্থিতিতে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার জেলাশাসক ডঃ রশ্মি কমল, মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নিমাই চন্দ্র মন্ডল এবং উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসন ও জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর একশো শতাংশ প্রস্তুত। তিনটি ধাপে এই প্রথম পর্যায়ের টিকাকরণ হবে। প্রথম ধাপে- সমস্ত স্তরের স্বাস্থ্যকর্মী (আশা কর্মী সহ), সরকারি ও বেসরকারি চিকিৎসক এবং ‌স্বাস্থ্য আধিকারিক বৃন্দ; দ্বিতীয় ধাপে- পুলিশ, প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা তথা প্রশাসনের কর্মী ও আধিকারিক বৃন্দ, সাংবাদিক প্রমুখ এবং তৃতীয় ধাপে- পঞ্চাশোর্ধ ও কো-মর্বিডিটি (নানা ধরনের অসুস্থতা যুক্ত) যুক্ত সাধারণ মানুষ। আর এই বিষয়ে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের সমস্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলার স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। সোমবার জেলার উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী জানালেন, “২৫ টি টীকাকরণ কেন্দ্রে এই টিকাকরণ করা হবে। প্রায় ৪৫ টি কোল্ড চেন পয়েন্ট নির্দিষ্ট ও প্রস্তুত করা হয়েছে। ওয়াকিং কুলারও রেডি রাখা হয়েছে। পুলিশি প্রহরায় কোল্ড চেন পয়েন্ট থেকে টিকাকরণ কেন্দ্রে পৌঁছে যাবে ভ্যাকসিন। সর্বক্ষণের জন্য স্বাস্থ্যকর্মীরা নজর রাখবেন কোল্ড চেন পয়েন্টে।” করোনা ভ্যাকসিনের সাইড এফেক্ট বা পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া বিষয়েও আশ্বস্ত করে ডাঃ সারেঙ্গী এদিন জানিয়েছেন, “এই ভ্যাকসিনের মারাত্মক কোনো সাইড এফেক্ট পাওয়া যায়নি, আমরা সকলেই জানি। তবে, জ্বর, গা-হাত-পা ব্যথা, অ্যালার্জিক কোনো সমস্যা এই ধরনের সাধারণ পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হতে পারে। তা সত্ত্বেও, প্রতিটি টিকাকেন্দ্রে মেডিক্যাল অফিসাররা থাকছেন। অ্যাম্বুলেন্স থাকছে এবং যেকোনো জরুরি বা আপদকালীন সমস্যার জন্য স্বাস্থ্য পরিষেবা প্রস্তুত রাখা হচ্ছে।” সর্বোপরি, এই ভ্যাকসিনেশন প্রক্রিয়ার সার্বিক প্রস্তুতি, নজরদারি ও যেকোনো আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলাশাসক ডাঃ রশ্মি কমলের নেতৃত্বাধীন একটি Adverse Events Following Immunization Committee গড়ে তোলা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ডাঃ সারেঙ্গী। এই কমিটিতে জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ নিমাই চন্দ্র মন্ডল, মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ পঞ্চানন কুন্ডু, ডিস্ট্রিক্ট ক্লিনিক্যাল কো-অর্ডিনেটর ডাঃ কৃপাসিন্ধু গাঁতাইত, সুপার ডাঃ তন্ময় কান্তি পাঁজা এবং অতিরিক্ত মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ও উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক বৃন্দও থাকছেন। সবমিলিয়ে, সার্বিক প্রস্তুতি একশো শতাংশ সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে।

thebengalpost.in
ডেপুটি CMOH ডাঃ সৌম্যশঙ্কর সারেঙ্গী :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে