ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী মেদিনীপুর, খড়্গপুর সহ জেলায় সংক্রমিত ৩১৭ জন, সুস্থতার হার ৯০ শতাংশ ছাড়িয়ে গেল, মৃত্যু ৫ জনের

thebengalpost.in
পুজোর পর সংক্রমণ বাড়লো মেদিনীপুর শহরে,‌ টেস্ট কমল খড়্গপুর শহরে :
.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৫ অক্টোবর: জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট অনুযায়ী, ষষ্ঠী (২২ অক্টোবর) থেকে অষ্টমী (২৪ অক্টোবর) পর্যন্ত পশ্চিম মেদিনীপুরে মোট করোনা সংক্রমিত হয়েছেন, ৩১৭ জন। ষষ্ঠীর রাতে ১৩৮ জন, সপ্তমীর রাতে ১০৪ জন এবং অষ্টমীর রাতে ৭৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্টে। গত তিনদিনে মোট ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। ফলে, জেলায় ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা (জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট অনুযায়ী) বেড়ে হয়েছে ১৮৮। শনিবার (২৪ অক্টোবর) পর্যন্ত জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন (জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট অনুযায়ী)- ১৩৪১৪ জন। এর মধ্যে, সুস্থ হয়ে উঠেছেন, ১২১০৭ জন। চিকিৎসাধীন আছেন মাত্র ১১১৯ জন, যার মধ্যে করোনা হাসপাতাল ও সেফ হোমে আছেন ২৭৩ জন (অর্থাৎ প্রায় ২৫০ টি শয্যা এখনো খালি আছে)। ৮৪৬ জন আছেন গৃহ নিভৃতবাসে। সর্বোপরি, জেলায় সুস্থতার হার এই মুহূর্তে ৯০ শতাংশেরও বেশি! ফলে, দেশ ও রাজ্যের তুলনায় সুস্থতার হারে অনেকটাই এগিয়ে গেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা।

thebengalpost.in
পুজো মণ্ডপ গুলি জীবাণুমুক্ত করা হল নবমীর দিন :

.
.

এদিকে, গত ২২ অক্টোবর, ষষ্ঠীর দিন ডেবরা থানার ওসি বিশ্বরঞ্জন ব্যানার্জি (৫৩), জেলা পরিষদের কৃষি কর্মাধ্যক্ষ রমাপ্রসাদ গিরি (৪৫) এবং মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের একজন অভিজ্ঞ গাইনোকোলজিস্ট (৫৮) সহ পশ্চিম মেদিনীপুরে সংক্রমিত হয়েছিলেন ১৩৮ জন। এর মধ্যে, মেদিনীপুর শহরের ২২ জন এবং রেল সূত্রে ২০ জন সহ খড়্গপুরের ২৬ জন সংক্রমিত হয়েছিলেন। শালবনী’র কোবরা ক্যাম্পের ৩ জন‌ জওয়ানের রিপোর্টও ওই দিন পজিটিভ এসেছিল। এছাড়াও, গড়বেতা, বেলদা দাঁতন, ঘাটাল, দাসপুর প্রভৃতি এলাকায় একাধিক ব্যক্তি করোনা সংক্রমিত হয়েছিলেন। ২৩ অক্টোবর, সপ্তমীর দিন পশ্চিম মেদিনীপুরে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১০৪ জন। এর মধ্যে, মেদিনীপুর শহর ও শহরতলীতে ১৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। পাটনা বাজারে একই পরিবারের ৫ জন (62m, 55f, 43m, 38f, 14f) করোনা সংক্রমিত হয়েছেন শুক্রবার (২৩ অক্টোবর)। এছাড়াও, মহতাবপুর (৬৫) ও গোলাপীচকে (৭৮) ২ জন প্রৌঢ় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কোতোয়ালী থানার বিভিন্ন এলাকায় আরো ৭ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে শুক্রবার। খড়্গপুরে সপ্তমীর রাতে ১৬ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অপরদিকে, ঘাটাল মহকুমা (ঘাটাল, দাসপুর, ক্ষীরপাই, চন্দ্রকোনা) য় প্রায় ২০ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল ওই দিন। এছাড়াও, গড়বেতা (৫), গোয়ালতোড়, চন্দ্রকোনা রোড, বেলদা, দাঁতনে একাধিক জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

thebengalpost.in
পুজো মণ্ডপগুলি জীবাণুমুক্ত করা হল নবমীর দিন :

.

গতকাল অর্থাৎ অষ্টমীর রাতে (২৪ অক্টোবর), পশ্চিম মেদিনীপুরে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ৭৫ জন। এর মধ্যে, মেদিনীপুর শহরে ১৫ জন ও খড়্গপুরে ১৯ জন‌ করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। শহরের কোতোয়ালী থানার অন্তর্গত তোলাপাড়া তে একই পরিবারের ২ জন (২২ তরুণী, ১৪ কিশোর) এবং শহরতলীর মুড়াকাটায় (গুড়গুড়িপাল থানা) একই পরিবারের ২ জন (৫২ ও ২১ বছরের মহিলা) করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়াও, পাটনা বাজার (৩০ যুবক), জর্জকোট (৫১ মহিলা), কেরানিচটি (৫৩ মহিলা), বল্লভপুর (৪৭ মহিলা) তাঁতিগেড়িয়া-টাউন কলোনি (৬০ মহিলা), অশোকনগর (৬৫ পুরুষ), রাঙামাটি (৫৬ মহিলা) এবং হাঁসপুকুর (৩৩ বছরের যুবক) এলাকায় ১ জন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এছাড়াও, কোতোয়ালী থানা এলাকায় আরো ২ জন এবং গুড়গুড়িপাল থানা এলাকায় ১ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে শনিবার রাতে। অপরদিকে, খড়্গপুর শহরের মালঞ্চ এলাকায় মোট ৪ জন, ডিভিসি মায়াপাড়া এলাকায় ৩ জন, টাটা মেটালিকসের ২ জন এবং রেল সূত্রে ৪ জন‌ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও খরিদা, তালবাগিচা, পাঁচরুলিয়া, ঝাপেটাপুর সহ মোট ১৯ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। বেলদা এসবিআই ব্যাঙ্কের দুই তরুণ কর্মী (৩৫ ও ২৮) সহ মোট ৩ জন, দাঁতনে ১ জন, গড়বেতায় ৩ জন, চন্দ্রকোনা টাউনে ৩ জন, চন্দ্রকোনা রোডে ১ জন, সবংয়ে ১ জন, গোয়ারতোড়ে ১ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। শালবনীতে দুই তরুণী (২১ ও ২২), ডেবরার শ্যামচক (৫০ বছরের ব্যক্তি), ডেবরা বাজার (৩৪ বছরের তরুণ) ও দুর্লবচকের এক ব্যক্তি (৬২) সহ মোট ৩ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে শনিবার রাতে। এছাড়াও, ঘাটাল মহকুমার ঘাটাল ও দাসপুর মিলিয়ে আরো ১০ জনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে সপ্তমীর রাতে।

.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে