মানবসেবায় ব্রতী হয়েই ‘বড়দিন’ উদযাপন মেদিনীপুরের বিভিন্ন সংগঠন ও সমাজকর্মীদের

বিজ্ঞাপন

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ২৬ ডিসেম্বর: ‘মহামানব’ যীশু খ্রিস্টের পবিত্র জন্মদিবস বা মেরি ক্রিসমাস উপলক্ষ্যে, মানবসেবায় ব্রতী হলেন মেদিনীপুরের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন, চার্চ এবং সমাজকর্মীরা। বাঙালির বড়দিনে, জীবসেবার মধ্য দিয়ে ‘বিশ্বপিতা’ যীশু খ্রিস্টের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করলেন, মেদিনীপুরের প্রমীলা বাহিনী পরিচালিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘শালবীথি’। মেদিনীপুর পৌরসভা পরিচালিত, মেদিনীপুর সেন্ট্রাল বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন আবাসনের দ্বিতলে অবস্থিত বৃদ্ধাশ্রমে পৌঁছে গিয়ে, পরিবার বিচ্ছিন্ন প্রৌঢ়-প্রৌঢ়া’দের সাথে বড়দিনের আনন্দ ভাগ করে নিলেন, শালবীথির সদস্যা ও শুভাকাঙ্খী সমাজকর্মীরা। গানে-কববিতায় আনন্দ প্রদানের সাথে সাথে, তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়, কেক ও অন্যান্য খাবার।

thebengalpost.in
বাঘমারি গ্রামে শালবীথি :

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এরপর, তাঁরা পৌঁছে যান,‌শালবনী ব্লকের লোধা শবর অধ্যুষিত বাঘমারি গ্রামে। ৮০ টি শিশুর হাতে তুলে দেওয়া হয় ক্রিসমাসের উপহার। সান্তাক্লজের সাজে আসর জমিয়ে দেন, শিক্ষক ও সমাজকর্মী মণিকাঞ্চন রায় ও নরসিংহ দাস। উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষক ও সমাজকর্মী সুব্রত মহাপাত্র, বিশিষ্ট সমাজসেবী ও শিক্ষক সুদীপ খাঁড়া, সমাজকর্মী মৃণাল কোটাল, ডিসট্রিক্ট চেম্বার অব কমার্সের মহিলা সেলের সভানেত্রী কান্তা বাসু, স্থানীয় পঞ্চায়েত তপন নায়েক প্রমুখ। ‘শালবীথি’ পরিবারের সম্পাদিকা রীতা বেরা বলেন, “বাসস্ট্যান্ডের কর্মসূচিতে আমাদের সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেন, বিশিষ্ট সমাজসেবী ও সংস্কৃতিপ্রেমী লক্ষ্মণ ওঝা। অন্যদিকে, সমাজকর্মী মৃণাল কোটালের সাহায্যে আমরা বাঘমারি গ্রামটিতে পৌঁছই। শালবীথি তার সীমাবদ্ধ ক্ষমতার পরিসরে বরাবরের মতো এবারও অসহায় শিশু, বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের নিয়েই বিশেষ দিনটি পালন করার উদ্যোগ নিয়েছে। সকলের সহযোগিতায় এই উদ্যোগ সার্থক হয়েছে।” এই স্বেচ্ছাসেবী পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ‘শালবীথি সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন’ এর সভাপতি পাঞ্চালী চক্রবর্তী, মনোয়ারা বেগম, মৃদুলা ভূঁইয়া, ঝুমঝুমি চক্রবর্তী, সোনালী সিনহা, কৃষ্ণা রায়, মৌসুমী ভট্টাচার্য্য প্রমুখ।

thebengalpost.in
সেভেন্থ ডে অ্যাডভেন্টিস্ট চার্চের মানবসেবা :

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে, মানবসেবার মতো ‘বড় কাজ’ করেই বড়দিন পালন করল, সেভেন্থ ডে অ্যাডভেন্টিস্ট চার্চ (Seventh Day Adventist Church)। মেদিনীপুর শহরের মন্দির, মসজিদ, গীর্জা, বাস স্ট্যান্ড, স্টেশন সহ বিভিন্ন এলাকার ভবঘুরে মানুষ কিংবা ভিক্ষা বৃত্তি করে জীবন নির্বাহকারী মানুষ’কে কম্বল প্রদান করার মধ্য দিয়েই এবার বড়দিন পালন করলেন, এই চার্চের সদস্যরা। শুক্রবার এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, ফাদার ডেভিড আকাশ, সমাজসেবী অর্ঘ্য চক্রবর্তী প্রমুখরা। ‘সান্টাক্লজ’ এর বেশে পথশিশুদের চকলেট প্রদান করতে করতে ফাদার ডেভিড আকাশ বললেন, “প্রচন্ড শীত থেকে এই মানুষগুলি যদি, সামান্য একটু পরিত্রাণও পান, সেই লক্ষ্যেই আমাদের এই উদ্যোগ। গত বছর আমরা শোভাযাত্রা সহকারে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে গিয়ে রোগী ও পরিজনদের ফলমূল বিতরণ করেছিলাম, এই বছর কোভিডের কারণে আমরা শোভাযাত্রা থেকে বিরত থেকেছি।” অপরদিকে, মেদিনীপুর শহরের সিপাই বাজার চার্চ থেকে ১১০ জন দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেওয়া হয়, এলাকার বিশিষ্ট সমাজসেবী নির্মাল্য চক্রবর্তী’র উদ্যোগে।

thebengalpost.in
নির্মাল্য চক্রবর্তীর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ :

বিজ্ঞাপন

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে