ফের শিরোনামে রাম বাবু! রেলকর্মীকে হুমকি ও তোলা চাওয়ার অপরাধে অস্ত্রসহ গ্রেফতার সাগরেদরা, তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে আহত ১০

Arrested eight antisocial of kharagpur for giving threatening, political clash between Trinamool and bjp

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, খড়্গপুর, ১৫ সেপ্টেম্বর: মেদিনীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে (সেন্ট্রাল জেল) বন্দী আছেন খড়্গপুরেরে রেল মাফিয়া রাম বাবু। কিন্তু, দুষ্কৃতীমূলক কাজকর্মে ফের জড়িয়ে গেল তাঁর নাম! খড়্গপুরের এক রেলকর্মীর পরিবারকে চমকে তাঁর পরিবারের কাছে থেকে কয়েক লক্ষ টাকা তোলা দাবি করার অভিযোগ উঠল তাঁর সাগরেদ বা ‘রাম বাবুর লোক’ বলে এলাকায় পরিচিত কয়েকজনের বিরুদ্ধে। ওই পরিবারের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ আট দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর)। খড়্গপুর টাউন থানার পুলিশ গতকাল শহরের জয় হিন্দ নগর এলাকা থেকে এদের গ্রেপ্তার করে। ধৃতদের কাছ থেকে একটি বন্দুকও পাওয়া গেছে। খড়গপুর টাউন থানার পুলিশ আজ (১৫ সেপ্টেম্বর) ধৃতদের আদালতে তোলে।

thebengalpost.in
তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে আহত ১০ জন :

.

অপরদিকে, খাস জমিকে কেন্দ্র করে শাসকদল তৃণমূল এবং বিরোধীদল বিজেপি’র সংঘর্ষে আজ ১০ জন আহত হয়ে খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বলে জানা গেছে। আজ সকালে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুর লোকাল থানার অন্তর্গত চাঁদাবিলায় যুযুধান দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ বাধে। এই সংঘর্ষে দু’পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন জখম হয়েছেন বলে জানা যায়। বিজেপি’র অভিযোগ, ওই এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস পঞ্চায়েত এবং তৃণমূল কর্মীরা তাদের কর্মীদের মারধর করে। তাদের দলের ৭ জন গুরুতর জখম হয়। তাদের খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অপরদিকে, তৃণমূল কংগ্রেসের স্থানীয় পঞ্চায়েতের বক্তব্য, “আজ সকালে বিজেপি কর্মীরা আমার বাড়িতে হঠাৎ করে চড়াও হয়ে ভাঙচুর করেছে এবং আমাদের কর্মীরা প্রতিরোধ করতে এলে তাদের মারধর করা হয়। আমাদের ৩ জন আহত কর্মীকে খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।” এই ঘটনায়, এলাকায় পৌঁছয় খড়্গপুর লোকাল থানার পুলিশ এবং এলাকায় এখনো বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা আছে বলে জানা যায়।

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে