স্বস্তি স্বাস্থ্য ভবনে! প্রত্যক্ষ সংস্পর্শে থাকা কর্মী ও আধিকারিকদের রিপোর্ট নেগেটিভ এল, জীবাণুমুক্ত করা হল অফিস চত্বর

.

মণিরাজ ঘোষ, মেদিনীপুর, ১ আগস্ট : স্বস্তি! শুধু জেলা স্বাস্থ্য ভবন তথা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের কার্যালয়েই নয়, জেলাজুড়েও। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য ভবনের অ্যাকাউন্ট সেকশনের এক কর্মী’র করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে শুক্রবার (৩১ জুলাই) সন্ধ্যায়। বর্তমানে, তিনি আয়ুশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে, তাঁর পজিটিভ রিপোর্টের পর জেলার করোনা-যুদ্ধের প্রধান এবং প্রথম সারির সৈনিকদের কেন্দ্র করে সারা জেলাজুড়েই ছড়িয়েছিল আশঙ্কার (ঈষৎ) কালো মেঘ! এই গুরুত্বপূর্ণ ও কঠিন সময়ে যদি জেলার কোনো স্বাস্থ্য আধিকারিকের রিপোর্টও পজিটিভ আসে, তবে কিভাবে পরিচালিত হবে করোনা-যুদ্ধ, তা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছিলেন অনেকেই। সম্পূর্ণ ভাবে যে চিন্তামুক্ত হতে পারছিলেন না স্বয়ং আধিকারিকরাও, তা বলাই বাহুল্য! তবে, দুপুরের পর সমস্ত আশঙ্কা ও চিন্তার কালো মেঘ আপাতভাবে সরে গেল বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের রিপোর্টে অ্যাকাউন্ট বিভাগের ওই কর্মীর প্রত্যক্ষ সংস্পর্শে থাকা অন্যান্য কর্মী ও আধিকারিকদের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। ফলে, আপাতত সমস্ত অনিষ্ট চিন্তার অবসান ঘটেছে বলেই মনে করা হচ্ছে। জেলা স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে এও জানা গেছে, জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক, অতিরিক্ত মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক, উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সহ প্রত্যেকেই সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন। ভবিষ্যতে, কোনোরকম উপসর্গ দেখা দিলে হয়তো আরটিপিসিআর টেস্টের সাহায্য নেওয়া হতে পারে। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, গতকাল থেকেই জেলায় শুরু হয়েছে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট। অন্যদিকে, গত ২৭ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে, র‌্যান্ডম অ্যান্টিবডি টেস্ট।

thebengalpost.in
স্বাস্থ্য ভবন জীবাণুমুক্ত করা হল :

এদিকে, স্বাস্থ্য ভবনের ওই কর্মী যেহেতু জেলা পরিষদের গেস্ট হাউসে থাকতেন, তাই জেলা পরিষদের ওই গেস্টহাউস সহ সমগ্র স্বাস্থ্য ভবন আজ জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে, মেদিনীপুর দমকল কর্মীদের সহায়তায়।

.
.

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে