মেদিনীপুর মেডিক্যালে করোনা আক্রান্ত অন্তঃসত্ত্বা দীর্ঘক্ষণ যন্ত্রণায় ছটফট করলেন, অবশেষে ভর্তি বিশেষ ওয়ার্ডে

inhuman behaviour to the pregnant lady in midnapore medical college and hospital

.

দ্য বেঙ্গল পোস্ট প্রতিবেদন, মেদিনীপুর, ৭ সেপ্টেম্বর : একেই বলে করোনা যন্ত্রণা! প্রসব যন্ত্রণার থেকেও ক্রমেই তা ভয়ঙ্কর হয়ে দাঁড়াচ্ছে বিভিন্ন ক্ষেত্রে। অহেতুক আতঙ্ক থেকে অমানবিকতার চিত্র পরিস্ফুট হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়। জেলা সদর মেদিনীপুর শহরের মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের অত্যাধুনিক “মাতৃমা” ভবনেও আজ চরম এক অমানবিকতার চিত্র ফুটে উঠল! করোনা আক্রান্ত প্রসূতি হাসপাতালের ‘মাতৃমা’ ভবনের সামনে পড়ে যন্ত্রণায় কাতরাতে থাকলেন দীর্ঘক্ষণ। একদিকে প্রসব বেদনা, অপরদিকে তাঁকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া উত্তেজনা থেকে তৈরি হওয়া মানসিক যন্ত্রণা! এই দুই নিয়ে, মাতৃমা ভবনের একতলার এক কোণে ভয়ে কুঁকড়ে বসে থাকলেন দীর্ঘক্ষণ। অবশেষে, প্রায় ঘন্টা দু’য়েক পরে তাঁকে ভর্তি নেওয়া হল, করোনা আক্রান্ত প্রসূতিদের জন্য তৈরি হওয়া ‘মাতৃমা’র বিশেষ ওয়ার্ডে বা নির্ধারিত শয্যায়।

thebengalpost.in
মেদিনীপুর মেডিক্যালে করোনা আক্রান্ত প্রসূতিকে ভর্তি নেওয়া হল দীর্ঘক্ষণ পর :

.
.

চন্দ্রকোনা ১ নম্বর ব্লকের ক্ষীরপাইয়ের আদবপুর গ্রামের বাসিন্দা ছায়া মল্লিক দে (২০) প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে, আজ (সোমবার) সকালে প্রথমে ভর্তি হন ক্ষীরপাই প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। এরপর, নিয়ম অনুযায়ী করোনা’র র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হয় এবং রিপোর্ট আসে পজিটিভ। এরপরেই করোনা আক্রান্ত এই অন্তঃসত্ত্বাকে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নেয় স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। সেইমতো, সোমবার বিকেলে রীতিমতো পিপিই কিট পরিয়ে অ্যাম্বুল্যান্সে করে ওই গর্ভবতী মহিলাকে ক্ষীরপাই থেকে পাঠানো হয় মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। তবে, অ্যাম্বুল্যান্স চালক মহিলাকে হাসপাতালের গেটে ফেলে রেখেই চম্পট দেয় বলে অভিযোগ। এদিকে, পিপিই পরিহিতা ওই প্রসূতিকে প্রবেশ করতে দেখে, আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে অন্যান্য রোগীর পরিজনদের মধ্যেও। অপরদিকে, প্রায় আড়াই ঘণ্টা মাতৃমা ভবনের সামনে বসে ছটকাতে থাকেন গর্ভবতী করোনা আক্রান্ত ওই মহিলা। এমনকি সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেননি কোনও স্বাস্থ্যকর্মীও, অভিযোগ এমনটাই। কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে প্রথমে অজুহাতে দেওয়া হয়, বেড নেই। অবশেষে, উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপে প্রায় তিন ঘণ্টা পর কোরোনা আক্রান্ত ওই অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে ভর্তি নেওয়া হল মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ‘মাতৃমা’ ভবনের বিশেষ ওয়ার্ডে।

thebengalpost.in
প্রসূতি’র প্রতিও অমানবিক ব্যবহার :

***আরো পড়ুন : লকডাউন অমান্য করে মেদিনীপুরের গ্রেফতার উত্তরপ্রদেশের ২ জন, জেলায় আটক ২৬৯ ও গ্রেপ্তার ৭০….

.
.

জেলা থেকে রাজ্য, রাজ্য থেকে দেশ প্রতি মুহূর্তের খবরের আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক বুক পেজ এবং যুক্ত হোন Whatsapp Group টিতে